যশোরের ঝিকরগাছা থেকে ধর্ষক মালেক গ্রেপ্তার

21
চুয়াডাঙ্গার গোপিনাথপুরে প্রথম শ্রেণির স্কুলছাত্রী ধর্ষণের ঘটনায়
নিজস্ব প্রতিবেদক:
চুয়াডাঙ্গার গোপিনাথপুরে প্রথম শ্রেণির স্কুলছাত্রী ধর্ষণের ঘটনায় ধর্ষক আব্দুল মালেককে গ্রেপ্তার করেছে পুলিশ। গতকাল শুক্রবার দিবাগত রাত দেড়টার দিকে যশোর জেলার ঝিকরগাছা থেকে তাঁকে গ্রেপ্তার করে চুয়াডাঙ্গা সদর থানার পুলিশ। এ বিষয়ে আজ শনিবার সংবাদ সম্মেলনের মাধ্যমে বিস্তারিত তথ্য তুলে ধরা হবে বলে জানিয়েছেন চুয়াডাঙ্গা সদর থানার ভারাপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) আবু জিহাদ খান।
পুলিশ সূত্রে জানা গেছে, ওই শিশুটির ধর্ষণের ঘটনার পরই অভিযুক্ত ধর্ষক আব্দুল মালেককে গ্রেপ্তার করতে মাঠে নামে পুলিশের একাধিক টিম। বিভিন্ন তথ্য-উপাত্ত বিশ্লেষণ করে ও গোপন সংবাদের ভিত্তিতে চুয়াডাঙ্গা সদর থানার পুলিশ জানতে পারে ধর্ষক আব্দুল মালেক যশোর এলাকায় আত্মগোপনে রয়েছেন। পরে গতকাল শুক্রবার রাতে চুয়াডাঙ্গা সদর থানার ওসি আবু জিহাদ খানের নেতৃত্বে ওসি (তদন্ত) লুৎফুল কবির ও উপপরিদর্শক (এসআই) ভবতোষ ফোর্স নিয়ে যশোর এলাকায় অভিযান পরিচালনা করেন। এ সময় রাত দেড়টার দিকে যশোর জেলার ঝিকরগাছা উপজেলার নুয়ালি গ্রাম থেকে আত্মগোপনে থাকা ধর্ষক আব্দুল মালেককে গ্রেপ্তার করা হয়।
এ বিষয়ে চুয়াডাঙ্গা সদর থানার ওসি আবু জিহাদ খান জানান, ‘বিভিন্ন তথ্য-উপাত্ত বিশ্লেষণ করে ও গোপন সংবাদের ভিত্তিতে আমরা জানতে পারি, ধর্ষক আব্দুল মালেক যশোর জেলার ঝিকরগাছা এলাকায় আত্মগোপনে রয়েছেন। পরে সেখানে অভিযান পরিচালনা করে তাঁকে গ্রেপ্তার করা হয়।’ তিনি আরও জানান, আজ শনিবার সংবাদ সম্মেলনের মাধ্যমে এ বিষয়ে বিস্তারিত তথ্য সাংবাদিকদের কাছে তুলে ধরা হবে।
প্রসঙ্গত, খাবারের লোভ দেখিয়ে চুয়াডাঙ্গা সদর উপজেলার গোপিনাথপুর গ্রামের স্কুলপাড়ার ছয় বছরের এক শিশুকে ধর্ষণের অভিযোগ ওঠে প্রতিবেশী আব্দুল মালেকের বিরুদ্ধে। এরপর ধর্ষক আব্দুল মালেক ওই শিশুটিকে পুনরায় ধর্ষণের চেষ্ট করলে ঘটনাটি জানাজানি হয়ে যায়। পরে ধর্ষণের শিকার ওই শিশুটিকে চুয়াডাঙ্গা সদর হাসপালে ভর্তি করা হয়। এ ঘটনায় শিশুটির মা রতœা খাতুন বাদী হয়ে অভিযুক্ত ওই ধর্ষক আব্দুল মালেককে আসামি করে মামলা করেন। ঘটনার পর থেকে ধর্ষক আব্দুল মালেক পলাতক ছিলেন।
            উল্লেখ্য, এ ঘটনায় গতকাল শুক্রবার দৈনিক সময়ের সমীকরণ পত্রিকায় ‘চুয়াডাঙ্গার গোপিনাথপুরে প্রথম শ্রেণির স্কুলছাত্রী ধর্ষণ-হাসপাতালে ভর্তি; পুলিশ সুপারের ঘটনাস্থল পরিদর্শন, ধর্ষক মালেক পলাতক’ শিরোনামে একটি সংবাদ প্রকাশ হয়।