যত্নবান হলেই চোখের সমস্যা মোকাবিলা করা সম্ভব

17

চুয়াডাঙ্গায় বিশ্ব দৃষ্টি দিবস ও বিশ্ব মানসিক স্বাস্থ্য দিবসে আলোচনা সভা
নিজস্ব প্রতিবেদক:
চুয়াডাঙ্গায় বিশ্ব দৃষ্টি দিবস ও বিশ্ব মানসিক স্বাস্থ্য দিবস পালিত হয়েছে। এ উপলক্ষে গতকাল বৃহস্পতিবার সকাল সাড়ে আটটায় জেলা সিভিল সার্জনের কার্যালয় প্রাঙ্গণ থেকে একটি র‌্যালি বের হয়। র‌্যালিটি শহরের প্রধান প্রধান সড়ক প্রদক্ষিণ শেষে একই স্থানে এসে শেষ হয়। পরে চুয়াডাঙ্গা সদর হাসপাতালের সম্মেলনকক্ষে এক আলোচনা সভা অনুষ্ঠিত হয়। সিভিল সার্জন ডা. এ এস এম মারুফ হাসানের সভাপতিত্বে আলোচনা সভায় প্রধান অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন অতিরিক্ত জেলা ম্যাজিস্ট্রেট মনিরা পারভিন।
প্রধান অতিথির বক্তব্যে মনিরা পারভিন বলেন, ‘আগামীতে নিরাময়যোগ্য অন্ধত্বকে নির্মূল করার লক্ষ্য নিয়েই বিশ্বব্যাপী চোখের যতœ নেওয়ার জন্য গণসচেতনতা তৈরি, চক্ষু রোগ নির্মূলে প্রভাবিত করা, চোখের যতœ নেওয়ার তথ্য জনগণের কাছাকাছি আনাই হলো বিশ্ব দৃষ্টি দিবসের লক্ষ্য। আমাদের নিজেদের চোখের প্রতি যতœবান হতে হবে।’
সভাপতির বক্তেব্যে সিভিল সার্জন এ এস এম মারুফ হাসান বলেন, ‘চোখ মানবদেহের গুরুত্বপূর্ণ অঙ্গের অন্যতম। এ কারণে আমাদের সবার চোখের বিশেষ যতœ নেওয়া দরকার। কারণ অসচেতনতার কারণে অনেক সময় চোখে বড় ধরনের সমস্যার সৃষ্টি হয়। অথচ একটু যতœবান হলেই আমাদের চোখের যেকোনো সমস্যা মোকাবিলা করা সম্ভব। তাই এবার আমাদের প্রতিপাদ্য ‘সবার আগে দৃষ্টি’।’ এ ছাড়াও তিনি বিশ্ব মানসিক স্বাস্থ্য দিবস সম্পর্কৃত বক্তব্য দেন।
অনুষ্ঠানে বিশেষ অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন চক্ষু বিশেষজ্ঞ ডা. ফকির মোহাম্মদ, চুয়াডাঙ্গা সদর হাসপাতালের আবাসিক চিকিৎসা কর্মকর্তা (আরএমও) ডা. শামীম কবির ও চুয়াডাঙ্গা সদর হাসপাতালের চক্ষু বিশেষজ্ঞ ডা. শফিউজ্জামান সুমন।
সভায় উপস্থিত ছিলেন চুয়াডাঙ্গা সদর হাসপাতালের গাইনি কনসালট্যান্ট ডা. আকলিমা খাতুন, চুয়াডাঙ্গা সদর হাসপাতালের জুনিয়র সার্জারি কনসালট্যান্ট ডা. এহসানুল হক তন্ময়, চুয়াডাঙ্গা সদর হাসপাতালের মেডিকেল অফিসার ডা. সোনিয়া আহমেদ, ডা. নুরুন্নাহার খানম, ডা. সোহানা আহমেদ, ডা. আবু এহসান মো. ওয়াহেদ রাজু, ডেন্টাল সার্জন ডা. জয়নাল আবেদিন, নার্সিং সুপারভাইজার, নার্সিং ইনস্টিটিউটের শিক্ষার্থী, হাসপাতালের স্টাফসহ আরও অনেকে। অনুষ্ঠানটি সঞ্চালনা করেন চুয়াডাঙ্গা সদর হাসপাতালের হেলথ এডুকেটর দেলোয়ার হোসেন। অনুষ্ঠানটির সার্বিক সহযোগিতায় ছিল ‘সাইটসেভার’।