মেয়র পদে ৮ জন প্রার্থীর মনোনয়নপত্র জমা

192

চুয়াডাঙ্গা পৌরসভার নির্বাচন : সংরক্ষিত ১৩ ও সাধারণ কাউন্সিলর পদে ৬৬ জনসহ
নিজস্ব প্রতিবেদক:
চুয়াডাঙ্গা পৌরসভার নির্বাচনে মেয়র পদে ৮ জন, সংরক্ষিত কাউন্সিলর পদে ১৩ জন এবং সাধারণ কাউন্সিলর পদে ৬৬ জন প্রার্থী মনোনয়নপত্র জমা দিয়েছেন। ইভিএমের মাধ্যমে আগামী ২৮ ডিসেম্বর পৌরসভার ভোট গ্রহণ অনুষ্ঠিত হবে। গতকাল মঙ্গলবার চুয়াডাঙ্গা পৌরসভা নির্বাচনের মনোনয়নপত্র জমাদানের শেষ দিনে মেয়র পদে আওয়ামী লীগ মনোনিত নৌকা প্রতীকের প্রার্থী চুয়াডাঙ্গা পৌর আওয়ামী লীগের সাংগঠনিক সম্পাদক জাহাঙ্গীর আলম মালিক খোকন, বাংলাদেশ জাতীয়তাবাদী দল বিএনপি মনোনিত ধানের শীষের প্রার্থী জেলা বিএনপির সদস্য সিরাজুল ইসলাম মনি, ইসলামী আন্দোলন বাংলাদেশের মনোনিত প্রার্থী তুষার ইমরান, স্বতন্ত্র প্রার্থী হিসেবে মজিবুল হক মালিক মজু, অ্যাডভোকেট মুনিবুল হাসান পলাশ, তানভীর আহমেদ মাসরিকী, শরিফ হোসেন দুদু ও সৈয়দ ফারুক উদ্দিন আহম্মেদ মনোনয়নপত্র দাখিল করেন।
আওয়ামী লীগ মনোনিত নৌকা প্রতীকের প্রার্থী চুয়াডাঙ্গা পৌর আওয়ামী লীগের সাংগঠনিক সম্পাদক জাহাঙ্গীর আলম মালিক খোকন মনোনয়নপত্র জমাদানের সময় উপস্থিত ছিলেন জেলা আওয়ামী লীগের যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক ও সাবেক মেয়র রিয়াজুল ইসলাম জোয়ার্দ্দার টোটন, অ্যাড. শামসুজ্জোহা, সাংগঠনিক সম্পাদক মুন্সি আলমগীর হান্নান, জেলা যুবলীগের আহ্বায়ক নঈম হাসান জোয়ার্দ্দার, পৌর আওয়ামী লীগের সভাপতি এ বি এম জহুরুল ইসলাম জোয়ার্দ্দার, সাধারণ সম্পাদক (ভারপ্রাপ্ত) আলাউদ্দিন হেলা, জেলা ছাত্রলীগের সভাপতি মোহাইমেন হাসান জোয়ার্দ্দার অনিকসহ আওয়ামী লীগ ও অঙ্গসহযোগী সংগঠনের নেতৃবৃন্দ।
বাংলাদেশ জাতীয়তাবাদী দল বিএনপি মনোনিত ধানের শীষের প্রার্থী জেলা বিএনপির সদস্য সিরাজুল ইসলাম মনির মনোনয়নপত্র জমাদানের সময় উপস্থিত ছিলেন জেলা বিএনপির আহ্বায়ক কমিটির অন্যতম সদস্য ও একাদশ জাতীয় সংসদ নির্বাচনে বিএনপি মনোনিত ধানের শীষের প্রার্থী শরীফুজ্জামান শরীফ, জেলা বিএনপির যুগ্ম আহ্বায়ক খন্দকার আব্দুল জব্বার সোনা, জেলা বিএনপির নেতা অ্যাড. মানি খন্দকার, রাফাতুল্লাহ মহলদার, মাহামুদুর হাসান পল্টুসহ জেলা বিএনপি ও অঙ্গসহযোগী সংগঠনের নেতৃবৃন্দ।
এবারে চুয়াডাঙ্গা পৌরসভার মোট ভোটার ৬৭ হাজার ৭৭৪ জন। এর মধ্যে ১ নম্বর ওয়ার্ডে ৭৯৯৮ জন, ২ নম্বর ওয়ার্ডে ৭৯০০ জন, ৩ নম্বর ওয়ার্ডে ৬১৫২ জন, ৪ নম্বর ওয়ার্ডে ৬৩৭০ জন, ৫ নম্বর ওয়ার্ডে ৭৫১৯ জন, ৬ নম্বর ওয়ার্ডে ৮৬০২ জন, ৭ নম্বর ওয়ার্ডে ৮৪৯৮ জন, ৮ নম্বর ওয়ার্ডে ৭৬৭৫ জন এবং ৯ নম্বর ওয়ার্ডে ৭০৬০ জন। নির্বাচনে ৩৩ কেন্দ্রে ইভিএমের মাধ্যমে ভোট গ্রহণ করা হবে।
মেয়র পদে প্রার্থীরা ব্যক্তিগত ব্যয় ৩০ হাজার টাকা এবং নির্বাচনী ব্যয় ৪ লাখ করতে পারবেন। ওয়ার্ডের ক্ষেত্রে প্রার্থীরা ব্যক্তিগত ব্যয় ৫-৭ হাজার টাকা এবং সংরক্ষিত কাউন্সিলর পদে ১৫ হাজার টাকা ব্যয় করতে পারবেন। কাউন্সিলর পদে ৫০ হাজার টাকা এবং সংরক্ষিত কাউন্সিলর পদে ২ লাখ টাকা নির্বাচনী ব্যয় করতে পারবেন।
চুয়াডাঙ্গা পৌরসভা নির্বাচনে রিটার্নিং কর্মকর্তা ও জেলা নির্বাচন অফিসার তারেক আহমেমদ জানান, আগামী ২৮ নভেম্বর ইভিএমে ভোট গ্রহণ করা হবে। চুয়াডাঙ্গা পৌরসভায় গতবারে ৩১টি ভোট কেন্দ্র থাকলেও এবারে ৩৩টি ভোটকেন্দ্রে ভোট গ্রহণ করা হবে। ইতোমধ্যেই কেন্দ্রগুলি সরেজমিন পরিদর্শন করে ভোটকেন্দ্রগুলিকে চূড়ান্ত করা হয়েছে। ভোট গ্রহণের আগেই ইভিএমের জন্য দুইদিন ট্রেনিং ও মগ ভোটিং করা হবে। প্রত্যেকটি কেন্দ্রেই মগ ভোটিং-এর মাধ্যমে সাধারণ মানুষকে ইভিএমে ভোট প্রদান করা দেখানো হবে। সবার সার্বিক সহযোগিতা নিয়ে একটি সুষ্ঠু ও সুন্দর ভোটগ্রহণ অনুষ্ঠিত হবে।
কোন ওয়ার্ডে কারা জমা দিলেন মনোনয়ন:
সংরক্ষিত ওয়ার্ড:
চুয়াডাঙ্গা পৌরসভার সংরক্ষিত ৩টি ওয়ার্ডের কাউন্সিলর পদে মোট মনোনয়নপত্র জমা দিয়েছেন ১৩ জন। এর মধ্যে ১ নম্বর ওয়ার্ডে ৪ জন, ২ নম্বর ওয়ার্ডে ৩ জন ও ৩ নম্বর ওয়ার্ডে ৬ জন। ১, ২ ও ৩ নম্বর ওয়ার্ড মিলে ১ নম্বর সংরক্ষিত ওয়ার্ডে শাহিনা আক্তার, নাসরিন পারভীন, চাঁদনি খাতুন ও সুফিয়া খাতুন। ৪, ৫ ও ৬ নম্বর ওয়ার্ড মিলে ২ নম্বর সংরক্ষিত ওয়ার্ডে বিলকিস নাহার, সুলতানা আঞ্জু ও হাসিমা খাতুন। ৭, ৮ ও ৯ নম্বর ওয়ার্ড মিলে ৩ নম্বর সংরক্ষিত ওয়ার্ডে শেফালী খাতুন, শাহানা খাতুন, মোমেনা খাতুন, জাহানারা খাতুন, জাহানারা বেগম ও আন্না খাতুন।
সাধারণ ওয়ার্ড:
চুয়াডাঙ্গা পৌরসভার ১ নম্বর ওয়ার্ডে কাউন্সিলর পদে মনোনয়নপত্র জমা দিয়েছেন ৮ জন। তাঁরা হলেন- জাহাঙ্গীর আলম, বিল্লাল হোসেন বেল্টু, আব্দুল মালেক, আলমগীর হোসেন, মুনছুর আলী, জয়নাল আবেদীন, গোলজার হোসেন ও মোমিনুর রহমান। ২ নম্বর ওয়ার্ডে কাউন্সিলর পদে মনোনয়নপত্র জমা দিয়েছেন ৯ জন। তাঁরা হলেন- মুন্সি রেজাউল করিম খোকন, কামরুজ্জামান বাবলু, মহিবুল ইসলাম, আলী হোসেন, খায়রুল হক, আব্দুল আজিজ জোয়ার্দ্দার, আবুল কালাম, আজিজুর রহমান ও আজম আলী মিলন। ৩ নম্বর ওয়ার্ডে কাউন্সিলর পদে মনোনয়নপত্র জমা দিয়েছেন ৭ জন। তাঁরা হলেন- নাজরিন পারভীন, আলমগীর হোসেন, জাহিদ হোসেন জুয়েল, জাহিদুল ইসলাম, আমিরুল ইসলাম, মহলদার ইমরান ও শরিফ আহমেদ। ৪ নম্বর ওয়ার্ডে কাউন্সিলর পদে মনোনয়নপত্র জমা দিয়েছেন ৫ জন। তাঁরা হলেন- মাফিজুর রহমান মাফি, শেখ সেলিম, দেলোয়ার হোসেন দয়াল, ফজলে রাব্বি মুন্সি ও তারিকুজ্জামান। ৫ নম্বর ওয়ার্ডে কাউন্সিলর পদে মনোনয়নপত্র জমা দিয়েছেন ৮ জন। তাঁরা হলেন- নাজমুল হক মিণ্টু, মুন্সি আলাউদ্দীন আহমেদ, গোলাম মোস্তফা শেখ, সাইফুদ্দিন, আলম, আসাদুজ্জামান সবুজ, শাহীনুর রশিদ ও মিজানুর রহমান। ৬ নম্বর ওয়ার্ডে কাউন্সিলর পদে মনোনয়নপত্র জমা দিয়েছেন ৬ জন। তাঁরা হলেন- আব্দুল মান্নান জোয়ার্দ্দার, মোনাজাত শেখ, আজাদ আলী, আলামিন ইসলাম, রফিকুল ইসলাম, ফরজ আলী শেখ ও রাশেদুল হাসান। ৭ নম্বর ওয়ার্ডে কাউন্সিলর পদে মনোনয়নপত্র জমা দিয়েছেন ৮ জন। তাঁরা হলেন- উজ্জ্বল হোসেন, মজনুল হক, আবুল হোসেন, সুমন হোসেন, সাইফুল আরিফ বিশ্বাস, আশাবুল হক, জয়নাল আবেদীন ও খালিদ মণ্ডল। ৮ নম্বর ওয়ার্ডে কাউন্সিলর পদে মনোনয়নপত্র জমা দিয়েছেন ৬ জন। তাঁরা হলেন- ফিরোজ শেখ, আহসান, শের আলী বিশ্বাস, টুটুল মোল্লা, সাইফুল ইসলাম ও আবু কাউসার বিশ্বাস। ৯ নম্বর ওয়ার্ডে কাউন্সিলর পদে মনোনয়নপত্র জমা দিয়েছেন ৮ জন। তাঁরা হলেন- সুমন আহমেদ, আলাউল ইসলাম, মফিজুর রহমান, আমান উল্লাহ, ইব্রাহিম শেখ ইমরান, আতিয়ার রহমান জোয়ার্দ্দার, কামরুজ্জামান চাঁদ ও শহিদুল কদর জোয়ার্দ্দার।