মেহেরপুর গাংনীর আমতৈল গ্রামে পারিবারিক কলহের জেরে : মামা ও মামাতো ভাইদের লাঠির আঘাতে মিনারুলের নিহত

238

গাংনী অফিস/হাটবোয়ালিয়া প্রতিনিধি: মেহেরপুরের গাংনী উপজেলার আমতৈল গ্রামের তুচ্ছ ঘটনায় পরিবারের মহিলারা ঝগরায় জরিয়ে পরে। এঘটনায় পরে মামা ও মামাতো ভাইদের লাঠির আঘাতে মিনারুল ইসলাম (৩০) নামের একজন নিহত হয়েছে। গতকাল বুধবার বিকেলে নিজ বাড়িতে এ ঘটনা ঘটে। আহত হয়েছেন মিনারুলের পিতা কালাম হোসেন ও ছোট ছেলে মিলন হোসেন ছেলে। স্থানীয় ও পুলিশ সূত্রে জানা গেছে, গতকাল বুধবার সকাল ১০টার দিকে আমতৈল গ্রামের কুদ্দুস শাহর ছেলে ইদ্রীস শাহর বাড়িতে গিয়ে ধানের বিষয়ে কথা বলে। এঘটনায় পারিবারিক ভাবে তুচ্ছ ঘটনাকে কেন্দ্র করে কালাম ও তার শ্যালক আব্দুল কুদ্দুসের পরিবারের নারীদের মাঝে ঝগড়া বাধে। এর জের ধরে বিকেল ৪টার দিকে আব্দুল কুদ্দুস ও তার দুই ছেলে ইসরাইল এবং ই¯্রাফিলসহ পরিবারের সদস্যরা তাদের বাড়িতে হামলা চালায়। খবর পেয়ে হাটবোয়ালিয়ায় অবস্থানরত মিনারুল ও মিলন ছুটে আসে। প্রথমে মিনারুল বাড়ির সামনে পৌছালে  কুদ্দুস ও তার ছেলেরা লাঠিসোটা নিয়ে হামলা চালায়। মাথায় লাঠির আঘাতে কালাম ও তার ছেলে মিনারুল গুরুতর আহত হয়। স্থানীয়রা তাদের উদ্ধার করে চুয়াডাঙ্গার আলমডাঙ্গা উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে নিয়ে যায়। সন্ধ্যায় হাসপাতালে পৌঁছুলে মিনারুলকে মৃত ঘোষণা করেন চিকিৎসক। অপর দিকে কালাম ও মিলন হোসেন রয়েছে চিকিৎসাধিন। গাংনী থানা ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) আনোয়ার হোসেন জানান, মরদেহ পুলিশ হেফাজতে নেয়া হয়েছে। বৃহস্পতিবার ময়নাতদন্ত করানো হবে। হামলাকারী মামা ও তার দুই ছেলেকে আটকের চেষ্টা চলছে।