মেহেরপুর ও ঝিনাইদহে জাতীয় সমবায় দিবস পালন : চুয়াডাঙ্গায় ডিসি গোপাল চন্দ্র দাস

356

সরকারি সেবা পেতে জনগণকে আর বেগ পেতে হয় না
ডেস্ক রিপোর্ট: ‘সমবায় ভিত্তিক সমাজ গড়ি, টেকসই উন্নয়ন নিশ্চিত করি’ স্লোগানকে সামনে নিয়ে সারাদেশে জাতীয় সমবায় দিবস-২০১৮ উদ্যাপিত হয়েছে। সারা দেশের ন্যায় গতকাল রোববার চুয়াডাঙ্গা, মেহেরপুর ও ঝিনাইদহে জাতীয় সমবায় দিবস-২০১৮ নানা কর্মসূচির মধ্যে পালিত হয়েছে।
নিজস্ব প্রতিবেদক জানিয়েছেন, সমবায় ভিত্তিক সমাজ গড়ি “টেকসই উন্নয়ন নিশ্চিত করি” এই স্লোগানে সারা দেশের ন্যায় চুয়াডাঙ্গাতেও জেলা সমবায় অফিসের আয়োজনে ৪৭তম জাতীয় সমবায় দিবস উদ্যাপন হয়েছে। দিবসটি উপলক্ষে নানা কর্মসূচি পালন করা হয়। এ উপলক্ষে গতকাল রোববার সকাল ১০টায় চুয়াডাঙ্গায় জাতীয় ও সংগঠনের পতাকা উত্তোলন, শোভাযাত্রা, আলোচনা সভা ও সন্ধায় এক সাংস্কৃতিক অনুষ্ঠানের আয়োজন করা হয়। শুরুতেই পবিত্র কোরআন ও পবিত্র গিতা থেকে পাঠের মধ্য দিয়ে অনুষ্ঠানের সূচনা করা হয়। চুয়াডাঙ্গা কেন্দ্রীয় সমবায় ব্যাংকের সভাপতি শেখ নাজিম উদ্দিনের সভাপতিত্বে অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথি হিসেবে উপস্থিত থেকে বক্তব্য রাখেন জেলা প্রশাসক গোপাল চন্দ্র দাস। প্রধান অতিথির বক্তব্যে জেলা প্রশাসক গোপাল চন্দ্র দাস বলেন ‘প্রশাসন আগে প্রশাসক হিসেবে থাকলেও এখন সেবক হিসেবে কাজ করছে। এজন্য সরকারি সেবা পেতে জনগণকে বেগ পেতে হয় না। আপনাদের সকল ভালো উদ্যোগে প্রশাসন পাশে থাকবে। এসময় তিনি সমবায়ের গুরুত্ব তুলে ধরে সকলকে স্বনির্ভরতা অর্জনের লক্ষ্যে উৎপাদনমুখী সমবায় করার আহ্বান জানান। অনুষ্ঠানে বিশেষ অতিথি ছিলেন, চুয়াডাঙ্গা জেলা পরিষদ চেয়ারম্যান শেখ শামসুল আবেদিন খোকন, চুয়াডাঙ্গার অতিরিক্ত পুলিশ সুপার (সদর সার্কেল) মো. কলিমুল্লাহ, সদর উপজেলা পরিষদের চেয়ারম্যান আসাদুল হক বিশ্বাস, সদর উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা (ইউএনও) ওয়াশীমুল বারী, চুয়াডাঙ্গা জজ কোর্টের পাইলিক প্রসিকিউটর এ্যাড. শামসুজ্জোহা। অনুষ্ঠানে শুভেচ্ছে বক্তব্য রাখেন জেলা সমবায় অফিসার জাকির হোসেন খান। এছাড়াও অনুষ্ঠানে উপস্থিত ছিলেন, জেলা সমবায় কার্যালয়ের উপ-সহকারী নিয়ন্ত্রক মীর মনিরুল ইসলাম, পরিদর্শক আব্দুর রাশেদ, জাহাঙ্গীর হোসেন, আওয়াল হোসেন, নার্গিস আক্তার, প্রশিক্ষক নূর আলম প্রমূখ। অনুষ্ঠানটি পরিচালনা করেন জেলা সমবায় কার্যালয়ের প্রশিক্ষক নূর ইসলাম।


আলমডাঙ্গা অফিস জানিয়েছে, আলমডাঙ্গায় বর্ণাঢ্য আয়োজনের মধ্য দিয়ে ৪৭তম জাতীয় সমবায় দিবস পালিত হয়েছে। গতকাল রবিবার সকাল ১০টায় উপজেলা চত্বর থেকে এক বর্ণাঢ্য র‌্যালী শহর প্রদক্ষিণ শেষে উপজেলা পরিষদের পুরাতন হলরুমে এক আলেচনা সভা অনুষ্ঠিত হয়। উপজেলা নির্বাহী অফিসার রাহাত মান্নানের সভাপতিত্বে প্রধান অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন উপজেলা চেয়ারম্যান বীর মুক্তিযোদ্ধা হেলাল উদ্দিন। বিশেষ অতিথি ছিলেন উপজেলা ভাইস চেয়ারম্যান কাজী খালেদুর রহমান অরুন, মহিলা ভাইস চেয়ারম্যান শামীম আরা, আলমডাঙ্গা তন্তুবায় সমবায় সমিতির সাবেক চেয়ারম্যান বীর মুক্তিযোদ্ধা আলহাজ্ব শেখ নুর মোহাম্মদ জকু, উপজেলা পল্লী উন্নয়ন অফিসার সায়লা শারমীন, উপজেলা প্রাণি সম্পদ কর্মকর্তা ডা. মিজানুর রহমান, উপজেলা তন্তুবায় সমবায় সমিতির বর্তমান সাধারণ সম্পাদক ও পৌর আওয়ামী লীগের সভাপতি আবু মুছা, আলমডাঙ্গা প্রেসক্লাবের সাধারণ সম্পাদক খন্দকার হামিদুল ইসলাম আজম। স্বাগত বক্তব্য রাখেন উপজেলা সমবায় অফিসার মৃণাল কান্তি সরকার। খাদ্য গুদাম কর্মকর্তা আবু বক্কর সিদ্দিকের উপস্থাপনায় আরো বক্তব্য রাখেন জনতা সমবায় সমিতির ঋণদান সংস্থার সভাপতি শাহাবুল হক, সমবায়ী সিরাজুল ইসলাম, ওমর খৈয়ুম প্রমুখ।


জীবননগর অফিস জানিয়েছে, ‘সমবায় ভিক্তিক সমাজ গড়ি, টেকশই উন্নয়ন নিশ্চিত করি’ এই প্রতিপাদ্যকে সামনে রেখে জীবননগরে ৪৭তম জাতীয় সমবায় দিবস পালিত হয়েছে। গতকাল রবিবার সকাল ১০টার সময় জীবননগর উপজেলা প্রশাসন ও উপজেলা সমবায় দপ্তরের আয়োজনে সমবায় দিবস উপলক্ষে জাতীয় পতাকা ও সমবায় পতাকা উত্তোলন শেষে, একটি বর্ণাঢ্যর‌্যালী বের হয়ে শহরের প্রধান প্রধান সড়ক প্রদক্ষিন শেষে উপজেলা কৃষি প্রশিক্ষণ হলরুমে এক আলোচনা সভা অনুষ্ঠিত হয়। উপজেলা নির্বাহী অফিসার সিরাজুল ইসলামের সভাপতিত্বে আলোচনা সভায় প্রধান অতিথি হিসাবে উপস্থিত ছিলেন উপজেলা চেয়ারম্যান আবু মো. আ. লতিফ অমল, বিশেষ অতিথি ছিলেন উপজেলা ভাইস চেয়ারম্যান হাজী হাফিজুর রহমান, মহিলা ভাইস চেয়ারম্যান আয়েসা সুলতানা লাকী, কৃষি কর্মকর্তা মোহাম্মদ আলী জিন্নাহ, উপজেলা সমবায় অফিসার মোতাহার হোসেন, জীবননগর প্রেস ক্লাবের সভাপতি আনোয়ারুল কবির। অনুষ্ঠানে সমবায়ীদের মধ্যে বক্তব্য রাখেন বাবুল আক্তার, হুসাইন আহম্মেদ ও রওশন আলী। অনুষ্ঠানটি সার্বিক পরিচালনা করেন এটিও রশিদুল ইসলাম।
মেহেরপুর অফিস জানিয়েছে, বর্ণাঢ্য র‌্যালি, আলোচনা সভা ও সমবায়ীদের মাঝে পুরষ্কার বিতরণের মধ্য দিয়ে মেহেরপুরে ৪৭ তম জাতীয় সমবায় দিবস ২০১৮ পালন করা হয়েছে। গতকাল রোববার সকাল ১০টার দিকে জেলা প্রশাসক আতাউল গনির নেতৃত্বে জেলা সমবায় কার্যালয় থেকে একটি বর্ণাঢ্য র‌্যালি বের করা হয়। র‌্যালিটি মেহেরপুর শহরের প্রধান প্রধান সড়ক প্রদক্ষিণ শেষে জেলা শিল্পকলা একাডেমি প্রাঙ্গণে গিয়ে শেষ হয়। পরে সেখানে এক আলোচনা সভা ও সেরা সমবায় সমিতির মধ্যে পুরষ্কার বিতরণ করা হয়। জেলা সমবায় কর্মকর্তা মীর্জা কামাল উদ্দিনের সভাপতিত্বে ‘সমবায় ভিত্তিক সমাজ গড়ি, টেকসই উন্নয়ন নিশ্চিত করি’ শীর্ষক আলোচনা সভায় প্রধান অতিথির বক্তব্য রাখেন জেলা প্রশাসক মো. আতাউল গনি। বিশেষ অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন, জেলা পরিষদের চেয়ারম্যান আলহাজ্ব গোলাম রসুল, অতিরিক্ত পুলিশ সুপার শেখ জাহিদুল ইসলাম, জেলা মহিলা বিষয়ক কর্মকর্তা এসএম সফিউল আযম, মেহেরপুর সাহিত্য পরিষদের সভাপতি নুরুল আহমেদ। জেলা সমবায় অফিসের পরিদর্শক মাহবুবুল হক মন্টু ও রোকনুজ্জামান তুষারের সঞ্চালনায় অন্যান্যের মধ্যে বক্তব্য রাখেন খুদিরাম হালদার, জন পি বিশ্বাস, আব্দুল মজিদ প্রমুখ। এর আগে জেলা শিল্পকলা একাডেমী প্রাঙ্গণে জাতীয় পতাকা ও সমবায় পতাকা উত্তোলন করা হয়।


ঝিনাইদহ অফিস জানিয়েছে, ‘সমবায় ভিত্তিক সমাজ গড়ি, টেকসই উন্নয়ন নিশ্চিত করি’ এ স্লোগানকে সামনে রেখে ঝিনাইদহে ৪৭ তম জাতীয় সমবায় দিবস পালিত হয়েছে। জেলা সমবায় কার্যালয়ের আয়োজনে গতকাল রোববার সকালে শহরের পুরাতন ডিসি কোর্ট চত্বর থেকে একটি র‌্যালি বের করা হয়। র‌্যালিটি শহরের প্রধান প্রধান সড়ক প্রদিক্ষণ শেষে পৌর সভা চত্বরে গিয়ে শেষ হয়। পরে ডা. কে আহম্মদ পৌর কমিউনিটি সেন্টারে আলোচনা সভার আয়োজন করা হয়। জেলা সমবায় অফিসার সৈয়দ নুরুল কুদ্দুস এর সভাপতিত্বে অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন জেলা প্রশাসক সরোজ কুমার নাথ। বিশেষ অতিথি ছিলেন অতিরিক্ত পুলিশ সুপার মিলু মিয়া বিশ্বাস, ঝিনাইদহ সদর উপজেলা নির্বাহী অফিসার শাম্মী ইসলাম, জেলা সমবায় ইউনিয়নের চেয়ারম্যান মিজানুর রহমান। এসময় অন্যান্যদের মধ্যে বক্তব্য রাখেন, সদর উপজেলা সমবায় অফিসার আবু জাফর, নারী সমবায়ী লাভলী ইয়াসমিন, ইসহাক আলী প্রমুখ। পরে শ্রেষ্ঠ সমবায়ীদের হাতে ক্রেষ্ট তুলে দেওয়া হয়।