মিরাজের ৭ উইকেটে বিধ্বস্ত ঢাকা

167

খেলাধুলা ডেস্ক: জাতীয় ক্রিকেট লিগের (এনসিএল) প্রথম স্তরের ষষ্ঠ রাউন্ডে বল হাতে দ্যুড়ি ছড়িয়েছেন মেহেদী হাসান মিরাজ। বুধবার চারদিনের ম্যাচের প্রথম দিন ক্যারিয়ার-সেরা বোলিং নৈপুণ্য উপহার দেন এই ডানহাতি স্পিনার। মিরাজের বোলিং তোপে পড়ে খুলনা বিভাগের বিপক্ষে ১০০ রানের কোটা পার করতে না করতেই গুটিয়ে যায় ঢাকা বিভাগ। বুধবার সাভারের বিকেএসপির-৩ নম্বর মাঠে আগে ব্যাটিংয়ে নেমে শুরুতে মোস্তাফিজুর রহমানের বোলিং তোপে পড়ে ঢাকা। কাটার মাস্টার একে একে ফিরিয়ে দেন রনি তালুকদার ও মোহাম্মদ জাহিদুজ্জামানকে। এরপর আবদুর রাজ্জাকের বলে বিদায় নেন আবদুল মজিদও। এরপরই দাপট দেখাতে শুরু করেন মিরাজ। একে একে তুলে নেন ঢাকার শেষ সাতটি উইকেট। তার বোলিং তোপে পড়ে ৩৮.২ ওভারে মাত্র ১১৩ রানে গুটিয়ে যায় ঢাকা। জবাবে ব্যাটিংয়ে নেমে দিন শেষে কোনো উইকেট না হারিয়ে ২৩ রান করা খুলনা বিভাগ ঢাকা চেয়ে পিছিয়ে রয়েছে ৯০ রানে। ঢাকা বিভাগের হয়ে রকিবুল হাসান সর্বোচ্চ ২৮ রান করেন। এছাড়া শুভাগত হোম চৌধুরী ২১, নাজমুল অপু ১৪ এবং শাহাদাত হোসেন করেন ১০ রান। আবদুল মজিদ ৯, রনি তালুকদার ৪, জাহিদুজ্জামান ৮ এবং নাদিফ চৌধুরী ৬ রান করে আউট হন। ১১.২ ওভার বোলিং করে পাঁচটি মেডেনসহ ২৪ রান দিয়ে ৭ উইকেট নেন মিরাজ। এনসিএলের চলতি আসরে এটাই কোনো বোলারের সেরা ফিগার। এছাড়া মোস্তাফিজ দুটি এবং রাজ্জাক নেন একটি উইকেট। এই নিয়ে ক্যারিয়ারের সপ্তমবারের মতো ইনিংসে ৫ কিংবা ততোধিক উইকেট পেলেন মিরাজ। এরআগে প্রথম শ্রেণির ক্রিকেটে তার সেরা বোলিং ফিগার ছিল ৬/৫০। প্রথম শ্রেণির ক্রিকেটে ২৩ ম্যাচে এখন পর্যন্ত মিরাজের নামের পাশে ৯১ উইকেট। ঢাকাকে গুটিয়ে দেয়ার পর ব্যাটিংয়ে নেমে প্রথম দিনটি স্বস্তিতেই পার করে দেন খুলনার দুই ওপেনার এনামুল হক ও সৌম্য সরকার। এনামুল ১২ এবং সৌম্য সরকার ১১ রান নিয়ে অপরাজিত রয়েছেন।