মাথাভাঙ্গা ব্রিজের পাশের অবৈধ স্থাপনা উচ্ছেদ

56

নিজস্ব প্রতিবেদক:
চুয়াডাঙ্গা শহরের শহীদ হাসান চত্বর এলাকায় নির্মাণাধীন মাথাভাঙ্গা সেতুর অবৈধ স্থাপনা উচ্ছেদ করেছে চুয়াডাঙ্গা সড়ক বিভাগ। গতকাল রোববার বেলা ১১টার দিকে ওই সব অবৈধ স্থাপনা দোকান মালিকদের সহযোগিতায় উচ্ছেদ অভিযান শুরু হয়। এ সময় প্রায় ৫০টি দোকান সরানো হয়।
জানা যায়, চুয়াডাঙ্গা-মেহেরপুরের একমাত্র সংযোগ সেতু কয়েকবার ধসে পড়ে। পরে প্রায় তিন কোটি টাকা ব্যয়ে ধসে পড়া সেতুটি সংস্কার করে যোগাযোগ ব্যবস্থা স্বাভাবিক করে কর্তৃপক্ষ। নতুন সেতুর নির্মাণ আদেশ এলে সংস্কার করা সেতুটির পাশেই গত ২৮ সেপ্টেম্বার প্রায় ২৩ কোটি টাকা ব্যয়ে ১৪০ মিটার দৈর্ঘ্য ও ১২.২৫ মিটার প্রস্থের নতুন সেতুর নির্মাণকাজের উদ্বোধন করা হয়। নির্মাণাধীন সেতুর প্রথম অংশ হাসান চত্বর এলাকায় সড়ক বিভাগের জায়গায় বিভিন্ন ধরনের বেশ কিছু দোকান পড়ে যায়। সে সময় থেকেই একাধিকবার মাইকিং করে অবৈধ স্থাপনা সরিয়ে নিতে বলা হয় সড়ক বিভাগের পক্ষ থেকে। সর্বশেষ গত শনিবারও স্থাপনাগুলো নিজ দায়িত্বে সরিয়ে নিতে বলে কর্তৃপক্ষ। তারপরেও না সরালে চুয়াডাঙ্গা সড়ক বিভায় সদর থানার পুলিশের সহযোগিতায় গতকাল সকাল নয়টার দিকে হাসান চত্বরের ওই সব স্থাপনা সরাতে দুই ঘণ্টা সময় বেধে দেয়। দুই ঘণ্টার মধ্যে দোকানের মালামাল সরিয়ে নিলে স্থাপনাগুলো উচ্ছেদ করা হয়।
চুয়াডাঙ্গা সড়ক বিভাগের উপবিভাগীয় প্রকৌশলী আদম আলী বলেন, নতুন সেতু নির্মাণের সময় থেকে এসব অবৈধ স্থাপনা সরাতে বলা হচ্ছে। গত শনিবারও জেলা প্রশাসক নিজে উপস্থিত থেকে সবাইকে নিজ দায়িত্বে দোকান ও দোকানের মালামাল সরিয়ে নিতে বলেন। তারপরও না সরালে সড়ক বিভাগ সকালে উপস্থিত হয়ে অবৈধ স্থাপনা সরাতে দুই ঘণ্টা সময় দেয়। দোকানের মালিকরা মালামাল সরিয়ে নিলে এ সব স্থাপনাগুলো উচ্ছেদ করা হয়।