মন্দির নির্মাণের অনুমতি দিল পাকিস্তান

29

বিশ্ব প্রতিবেদন:
পাকিস্তানের সরকারি নীতি-নির্ধারণী পরিষদ দেশটিতে সংখ্যালঘু হিন্দু ধর্মাবলম্বীদের নতুন একটি মন্দির নির্মাণের অনুমোদন দিয়েছে। দেশটির সরকারকে বিভিন্ন ধর্মীয় বিষয়ে পরামর্শ দিয়ে আসা এই পরিষদ বলছে, ইসলামি আইনে সংখ্যালঘুদের উপাসনালয়ের অনুমতি রয়েছে। পাক সরকারের এই সিদ্ধান্তের প্রশংসা করেছেন দেশটির পার্লামেন্টের সদস্য ও প্রখ্যাত হিন্দু নেতা লাল মালহি। তবে সংখ্যালঘু হিন্দুদের জন্য বেসরকারিভাবে মন্দির নির্মাণে সরকারের প্রত্যক্ষ তহবিল ব্যয়ের অনুমতি না দেয়ায় ধর্মীয় পরিষদের সমালোচনা করেছেন তিনি। বর্তমানে ইসলামাবাদে হিন্দুদের কার্যকর কোনও মন্দির নেই। মুসলিম সংখ্যাগরিষ্ঠ পাকিস্তানের রাজধানীতে প্রায় ৩ হাজারসহ দেশজুড়ে দশ লাখের বেশি হিন্দুর বসবাস রয়েছে। কাউন্সিল অব ইসলামিক আইডিওলোজির এক বিবৃতিতে বলা হয়েছে, নিহত স্বজনদের শেষকৃত্য আয়োজনে পাকিস্তানের হিন্দুদের সাংবিধানিক অধিকার রয়েছে। এতে বলা হয়েছে, এই অধিকারের আলোকে ইসলামাবাদের হিন্দু সম্প্রদায়ের একটি যথাযথ উপাসনালয় থাকা দরকার; যেখানে তারা নিজেদের ধর্মীয় বিধি-বিধান অনুযায়ী শেষকৃত্য আয়োজন করতে পারেন। এছাড়া ধর্মীয় এবং বিয়ের অনুষ্ঠান আয়োজনের জন্য হিন্দু সম্প্রদায়ের একটি কমিউনিটি সেন্টার নির্মাণের অনুমতিও দিয়েছে কাউন্সিল অব ইসলামিক আইডিওলোজি। এটিও তাদের সাংবিধানিক অধিকার বলে বিবৃতিতে জানিয়েছে পাকিস্তান সরকারের সর্বোচ্চ এই ধর্মীয় নীতি-নির্ধারণী পরিষদ। হিন্দু ধর্মাবলম্বীদের উপাসনালয় নির্মাণে সরকারি অর্থ ব্যয়ের অনুমতি দিতে কাউন্সিল অব ইসলামিক আইডিওলোজিকে তাদের সিদ্ধান্ত পুনর্বিবেচনার আহ্বান জানিয়েছেন পাকিস্তানের প্রধানমন্ত্রী ইমরান খান।