মঙ্গল গ্রহে যাচ্ছে আরব আমিরাত

19

বিশ্ব ডেস্ক:
জ্ঞান-বিজ্ঞানে মুসলমানদের উজ্জ্বল অতীতের উপযোগী করে বর্তমান এবং ভবিষ্যতকেও গড়তে চায় সংযুক্ত আরব আমিরাত। তাই এবার মঙ্গলগ্রহে পা রাখতে চলেছে দেশটি। জুলাই থেকে আগস্টের মধ্যেই প্রথম আরব দেশ হিসেবে মঙ্গলগ্রহে বিশেষ ধরনের মহাকাশযান পাঠাবে সংযুক্ত আরব আমিরাত। মহাকাশযানটির নাম ‘আল আমাল’, অর্থাৎ আশা। মহাকাশযানটি অভিনব, কারণ, এতে কোনো মানুষ থাকবে না
সংযুক্ত আরব আমিরাত প্রতিষ্ঠার ৫০ বছর পূর্ণ হবে আগামী বছর। এ উপলক্ষেই ২০২০ সালের জুলাই থেকে আগস্ট মাসের মধ্যে মঙ্গল অভিযানের পরিকল্পনা করেছে তেলসমৃদ্ধ মধ্যপ্রাচ্যের এই দেশ। মহাকাশযান এখন যাত্রা শুরু করলেও আপাতত ২০২১ সালের ফেব্রুয়ারির মধ্যে মঙ্গলে কাজ শুরু করা যাবে বলে আশা করা হচ্ছে। আগামী ১৪ জুলাই ‘আল আমাল’-এর যাত্রা শুরু করার কথা ছিল। তবে করোনা পরিস্থিতির কারণে তা পিছিয়ে দিতে হয়। সবকিছু ঠিক থাকলে মধ্য আগস্টে স্বয়ংক্রিয় মহাকাশযানটি যাত্রা শুরু করতে পারবে বলে আশা করা হচ্ছে। আল আমাল বা হোপ প্রোব ছাড়বে জাপানের তানেগাশিমা স্পেস সেন্টার থেকে। মঙ্গলগ্রহে পাঠানো হবে জাপানের এইচ-আইআইএ রকেট। অভিযানটিকে এক অর্থে শুধু সংযুক্ত আরব আমিরাতের না বলে, আন্তর্জাতি বললেও ভুল হবে না। এ কাজের জন্য যুক্তরাষ্ট্রের ইউনিভার্সিটি অব কলরাডোর ল্যাবরেটরি ফর অ্যাটমোস্ফেয়ার অ্যান্ড স্পেস ফিজিক্স, ইউনিভার্সিটি অব ক্যারিফোর্নিয়ার দ্য স্পেস সায়েন্স ল্যাবরেটরি এবং অ্যারিজোনা স্টেট ইউনিভার্সিটির স্কুল অব আর্থ অ্যান্ড স্পেস এক্সপ্লোরেশনের সঙ্গে চুক্তি করেছে আমিরাতের মোহাম্মেদ বিন রাশিদ স্পেস সেন্টার।