ভ্রাম্যমাণ পতিতাদের নাগালে বন্দি ভূক্তভূগী যুব সমাজের একাংশ ওলি-গলিতে সমাজ অবক্ষয়ের করুণ চিত্র

199

বদরগঞ্জ প্রতিনিধি: জেলা থেকে শহর, শহর থেকে শহরতলী, শহরতলী থেকে গ্রামাঞ্চল, না, কোথাও কোন একটি জনপদ আজ সুস্থ নেই যেখানে অবৈধ’র ছায়ায় অপকর্ম হতে বাকি রয়েছে ? সভ্যতার যুগে অসভ্যতার আধার যেন অনেকটাই অগচরে গিলে খাচ্ছে গোটা সমাজের জনপদ। ঠিক এ সময়ে প্রাণহীন অকেজো সমাজের নিস্ক্রীয়তাই যেন চোখে আঙ্গুল দিয়ে দেখিয়ে দেয় এ কোন অবক্ষয়ের মাঝে আমাদের বসবাস ! যখন চারিদিকে চলছে চুরি, খুন, গুম অপহরণ। থেমে নেই পথে, ঘাটে, মাঠে আনাচে-কানাচে মাদক ও নেশার জয়-জয়কার। সেই সাথে রাতের আধারে অতি গোপনে চলছে ভ্রাম্যমাণ পতিতাদের দেহ ব্যবসার মত জঘন্য অপকর্ম। এ সবের সঙ্গে যারা জড়িত রয়েছে তারাও এ সমাজের একাংশ। এ নিয়ে গত ৮ডিসেম্বর ঝিনাইদহ সদরের সাধুহাটী ইউনিয়ন পরিষদ এলাকায় আনুমানিক রাত সাড়ে ১১টার দিকে ধরা পড়ে একটি ভ্রাম্যমাণ পতিতা। স্থানীয়দের জিঙ্গাসাবাদে নিজেকে সুমি নামের পরিচয় দিয়ে সে চুয়াডাঙ্গা শহর থেকে এসেছে বলে জানায়। কথা হয় এমন পতিতাদের যারা স্মরণ করে থাকে, অর্থাৎ সেই সব পতিতা শেখদের সঙ্গে। তারা অকপটে জানান, এসব কর্মকান্ড চলে প্রতি রাতেই। এ সবের সঙ্গে জড়িত রয়েছে সমাজের নামি-দামি লোকজন, বিভিন্ন প্রকার ব্যবসায়ীসহ যুব-সম্প্রদায়। অন্যদিকে ধৃত পতিতাও অভিন্ন সুরে একই কথা স্বীকার করেন। সব মিলিয়ে অভিজ্ঞ মহল মনে করেন, এখনও আমাদের সমাজে রীতিমত সচেতনতার অভাব রয়েছে এমন সব অবৈধ, অপকর্মের ঘটনাবলিতে। এ সব পথ থেকে এমন ভূক্তভূগীদের সরিয়ে আনা সময়ের দাবী ও অত্যন্ত জরুরী।