ভোক্তা অধিদপ্তরের অভিযানে ৩ দোকানিকে ৬৫ হাজার টাকা জরিমানা

58

ভ্রাম্যমাণ প্রতিবেদক, আলমডাঙ্গা:
চুয়াডাঙ্গা সদর ও আলমডাঙ্গা উপজেলায় নিত্যপ্রয়োজনীয় দ্রব্যের মূল্য নিয়ন্ত্রণে ভোক্তা অধিকার সংরক্ষণ অধিদপ্তর বিভিন্ন দোকানে অভিযান চালিয়ে ৩ দোকানিকে ৬৫ হাজার টাকা জরিমানা করেছে। গতকাল বুধবার সকাল ১০টার দিকে এ অভিযান পরিচালিত হয়।
জানা গেছে, চুয়াডাঙ্গার সদর উপজেলার মেসার্স চুয়াডাঙ্গা ট্রেডার্সের বিরুদ্ধে সরকারি চাল নিলামে ক্রয় করে তা বস্তা থেকে খুলে অন্যান্য কোম্পানির বস্তায় প্যাকেটজাত করে উচ্চমূল্যে বিক্রয়ের অভিযোগ পায় ভোক্তা অধিকার সংরক্ষণ অধিদপ্তর। এরপর গতকাল বুধবার সকাল ১০টার দিকে অভিযান চালিয়ে অভিযোগের সত্যতা মেলায় মেসার্স চুয়াডাঙ্গা ট্রেডার্সের মালিককে ৪০ হাজার টাকা জরিমানা করা হয়।
এদিকে, গতকাল বেলা ১১টার দিকে ভোক্তা অধিকার সংরক্ষণ অধিদপ্তর আলমডাঙ্গার হাটবোয়ালিয়া বাজারে অভিযান পরিচালনা করে। সেখানে চালের মূল্যতালিকা প্রদর্শন না করা, ক্রয়কৃত চালের মেমো সংরক্ষণ না করা ও পণ্যের মোড়কীকরণ বিধি লঙ্ঘন করার অপরাধে মেসার্স অপর্ণা খাদ্য ভান্ডারকে ২০ হাজার টাকা এবং মেসার্স ইকলাস ট্রেডার্সকে ৫ হাজার টাকা জরিমানা করা হয়। অভিযান পরিচালনা করেন জেলা ভোক্তা অধিকার সংরক্ষণ অধিদপ্তরের সহকারী পরিচালক সজল আহম্মেদ। এ সময় আরও উপস্থিত ছিলেন জাতীয় নিরাপত্তা গোয়েন্দা সংস্থা (এনএসআই) চুয়াডাঙ্গার সহকারী পরিচালক লুতফুল কবির কনক।
এ সময় উপস্থিত জনসাধারণের উদ্দেশে ভাক্তা অধিকার সংরক্ষণ অধিদপ্তরের সহকারী পরিচালক সজল আহম্মেদ বলেন, বর্তমান করোনা-সংকট মোকাবিলায় সরকার তৎপরতা চালিয়ে যাচ্ছে। এরই মধ্যে কিছু অসাধু ব্যক্তি তাদের আর্থিক মুনাফা অর্জনের লক্ষ্যে চড়া দামে মালামাল বিক্রি করছে, তাদের বিরুদ্ধে আইনগত ব্যবস্থা গ্রহণ করা হবে।’ এ সময় তিনি ব্যবসায়ীদের মানবিক হওয়ার জন্য আহ্বান জানান।