ভিডিও কনফারেন্সের মাধ্যমে চুয়াডাঙ্গা ও মেহেরপুরসহ সারাদেশে বিভিন্ন প্রকল্পের উদ্বোধন

262

তরুণ প্রজন্ম দেশের সব চেয়ে বড় শক্তি -প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা
ডেস্ক রিপোর্ট: তরুণ প্রজন্মকে দেশের সব চেয়ে বড় শক্তি আখ্যায়িত করে, তাঁদের কর্মসংস্থানে সরকারের বিভিন্ন পদক্ষেপ তুলে ধরে উন্নয়নের ধারাবাহিকতা রক্ষায় আগামী নির্বাচনে তাঁদের ভোট চেয়েছেন মাননীয় প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা। তিনি বলেন, ‘আওয়ামী লীগের শাসনে গত ১০ বছরে দেশের জনগণ অভূতপূর্ব উন্নয়ন প্রত্যক্ষ করেছে। কাজেই আমাদের তথা দেশের সবচেয়ে বড় শক্তি তরুণ প্রজন্মের কাছে আগামীর নির্বাচনের জন্য নৌকা প্রতীকে ভোট চাইব, যাতে করে দেশের উন্নয়নের ধারাবাহিকতাটা বজায় থাকে। গতকাল রোববার বিকেলে গণভবন থেকে ভিডিও কনফারেন্সের মাধ্যমে যুব ও ক্রীড়া মন্ত্রণালয়য়ের বিভিন্ন প্রকল্পের উদ্বোধনকালে এসব কথা বলেন প্রধানমন্ত্রী। তিনি চুয়াডাঙ্গা ও মেহেরপুরসহ দেশের চারটি জেলার সঙ্গে ভিডিও কনফারেন্সে সংযুক্ত থেকে উপজেলা পর্যায়ের ৬৬টি শেখ রাসেল মিনি স্টেডিয়াম, ৬টি জেলার যুব প্রশিক্ষণ কেন্দ্র এবং বাংলাদেশ ক্রীড়া শিক্ষাপ্রতিষ্ঠানের (বিকেএসপি) সিনথেটিক টার্ফসমৃদ্ধ মাল্টি স্পোর্টস কমপ্লেক্সের উদ্বোধন করেন এবং স্থানীয় জনসাধারণ ও উপকারভোগীদের সঙ্গে মতবিনিময় করেন।
নিজস্ব প্রতিবেদক জানিয়েছেন, গতকাল রোববার বেলা সাড়ে ১১টায় চুয়াডাঙ্গা জেলা প্রশাসকের সম্মেলন কক্ষে জেলা প্রশাসক গোপাল চন্দ্র দাসের উপস্থিতিতে ভিডিও কনফারেন্সের মাধ্যমে গণভবন থেকে চুয়াডাঙ্গা জেলার দুইটি উপজেলায় মিনি স্টেডিয়াম ও জেলা যুব উন্নয়ন অধিদপ্তরের শুভ উদ্বোধন করেন মাননীয় প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা। এসময় উপস্থিত ছিলেন চুয়াডাঙ্গার পুলিশ সুপার মাহবুবুর রহমান (পিপিএম), জেলা পরিষদের চেয়ারম্যান, অতিরিক্ত জেলা প্রশাসক জসিম উদ্দিন আহমেদ, পৌর মেয়র ওবাইদুর রহমান চৌধুরী জিপু, গণপূর্ত বিভাগের নির্বাহী প্রকৌশলী শাহিন রেজা, জেলা যুব উন্নয়ন অধিদপ্তদরের উপ-পরিচালক মাসুম আহমেদ, চুয়াডাঙ্গা বিএডিসি বীজ বিপণন সিনিয়র সহকারি পরিচালক ফরিদুল ইসলাম, জেলা মাদকদ্রব্য অধিদপ্তরের সহকারি পরিচালক আব্দুল্লাহ আল মামুন, চুয়াডাঙ্গা আঞ্চলিক পাসপোর্ট অফিসের সহকারি পরিচালক রুবাইয়াত ফেরদৌস, জেলা ক্রীড়া অফিসার নরেশ গাইনসহ বিভিন্ন সরকারি দপ্তরের কর্মকর্তারা।
উল্লেখ্য, ১৬ কোটি ৭৫ লাখ টাকা ব্যায়ে চুয়াডাঙ্গা পৌর এলাকার জাফরপুরে নির্মিত যুব প্রশিক্ষন কেন্দ্র থেকে প্রতিবছর পাঁচশ’ প্রশিক্ষনার্থী আবাসিক সুবিধায় এবং ছয়শ’ প্রশিক্ষনার্থী অনাবাসিকভাবে বিভিন্ন বিষয়ের উপর প্রশিক্ষণ নিতে পারবে। এই প্রশিক্ষণ কেন্দ্র থেকে কৃষি উৎপাদন, প্রাণি প্রতিপালন, মৎস্য চাষ, ব্লক-বাটিক, স্ক্রিণ প্রিন্ট ও পোষাক তৈরী, ক্ষুদ্র ও কুটির শিল্প, কম্পিউটার প্রশিক্ষণ, মোবাইল ফোন সার্ভিসিংসহ বিভিন্ন বিষয়ে প্রশিক্ষণের ব্যবস্থা রাখা হয়েছে। এছাড়া ভিডিও কনফারেন্সের মাধ্যমে চুয়াডাঙ্গা জেলার জীবননগর উপজেলায় ও দামুড়হুদা উপজেলায় শেখ রাসেল মিনি স্টেডিয়াম উদ্বোধন করেন মাননীয় প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা।

মেহেরপুর অফিস জানিয়েছে, বেলা সাড়ে ১১টার দিকে মেহেরপুর জেলা প্রশাসকের সম্মেলন কক্ষে ভিডিও কনফারেন্সের মাধ্যমে গণভবন থেকে যুব উন্নয়ন অধিদপ্তদরের শুভ উদ্বোধন করেন মাননীয় প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা। মেহেরপুর জেলা প্রশাসকের সম্মেলন কক্ষে উদ্বোধনী অনুষ্ঠানে জেলা প্রশাসকসহ পুলিশ সুপার মোস্তাফিজুর রহমান, জেলা পরিষদের চেয়ারম্যান আলহাজ¦ গোলাম রসুল, স্থানীয় সরকারের উপ-পরিচালক খায়রুল হাসান, অতিরিক্ত জেলা প্রশাসক তৌফিকুর রহমান, গণপূর্ত বিভাগের নির্বাহী প্রকৌশলী মোক্তার হোসেন দেওয়ান, জেলা যুব উন্নয়ন অধিদপ্তরের উপ-পরিচালক গিয়াস উদ্দীন আহমেদ, জেলা কৃষি সম্প্রসারণ অধিদপ্তরের উপ-পরিচালক ড. আখতারুজ্জামান, শহর আওয়ামী লীগের সভাপতি এ্যাড. ইয়ারুল ইসলাম, জেলা মহিলা আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদিকা লাভলী ইয়াসমিন, জেলা পরিষদের সদস্য শামিম আরা হীরা, নার্গিস আরা, শাহিন উদ্দিন, খাজা ময়নদ্দিন লিটনসহ জেলার বিভিন্ন সরকারি দপ্তরের কর্মকর্তা এবং জনপ্রতিনিধিরা উপস্থিত ছিলেন।
উল্লেখ্য, ১২ কোটি ৪২ লাখ ২৫ হাজার টাকা ব্যায়ে মেহেরপুর-কুষ্টিয়া সড়কে পুলিশ লাইনের পাশে নির্মিত যুব প্রশিক্ষন কেন্দ্র থেকে প্রতিবছর ৪শ’ প্রশিক্ষনার্থী আবাসিক সুবিধায় এবং প্রায় হাজার খানেক প্রশিক্ষনার্থী অনাবাসিকভাবে বিভিন্ন বিষয়ের উপর প্রশিক্ষণ করার ব্যবস্থা করা হয়েছে। এই কেন্দ্র থেকে কৃষি উৎপাদন, প্রাণি প্রতিপালন, মৎস্য চাষ, ব্লক-বাটিক, স্ক্রিণ প্রিন্ট ও পোশাক তৈরী, ক্ষুদ্র ও কুটির শিল্প, কম্পিউটার প্রশিক্ষন, মোবাইল ফোন সার্ভিসিং বিভিন্ন বিষয়ে প্রশিক্ষন প্রদান করা হবে।
প্রসঙ্গত, সারাদেশে ৬টি যুব প্রশিক্ষণ কেন্দ্র, ৬৬টি শেখ রাসেল মিনি স্টেডিয়াম, ৩৮টি মাল্টি স্পোর্টস কমপ্লেক্স ও ৭৩টি যুব ও ক্রীড়া স্থাপনার উদ্বোধন করেছেন প্রধানমন্ত্রী।