বৃদ্ধ ওয়াজেদ আলীর লাশ ভারতে উদ্ধার

70

দর্শনা কামারপাড়া মাথাভাঙ্গা নদীতে গোসল করতে গিয়ে নিখোঁজ
দর্শনা অফিস:
মাথাভাঙ্গা নদীতে গোসল করতে গিয়ে দর্শনা কামারপাড়ার নিখোঁজ বৃদ্ধ ওয়াজেদ আলীর লাশ ভারতে পাওয়া গিয়েছে বলে গুঞ্জন উঠেছে। ওয়াজেদ আলীর পরিবারের সদস্যরা ধারণা করছেন, যেহেতু একই নদীতে গোসল করতে যেয়ে নিখোঁজ হওয়ার পর ভারতের অভ্যান্তরে ভাসমান অবস্থায় ওই নদী থেকে একটি লাশ উদ্ধার হয়েছে, সেহেতু উদ্ধার হওয়া লাশটি ওয়াজেদ আলীর। পরে সামাজিক যোগাযোগের মাধ্যমে লাশের ছবি দেখে নিশ্চিত হয়েছেন পরিবারের সদস্যরা।
জানা গেছে, গত ২১ শে সেপ্টেম্বর সোমবার বেলা ২টার দিকে দামুড়হুদা উপজেলার দর্শনা থানার পারকৃষ্ণপুর-মদনা ইউনিয়নের কামারপাড়া গ্রামের মৃত আক্কাস আলীর ছেলে ওয়াজেদ আলী বাড়ির অদূরে মাথাভাঙ্গা নদীতে গোসল করতে গিয়ে নিখোঁজ হন। পরে পরিবারের সদস্যরা অনেক খোঁজাখুঁজি করে সন্ধান না পেলে ধারণা করেন ওয়াজেদ আলীর নদীতে ডুবে মৃত্য হয়েছে এবং তাঁর লাশ নদীর স্রোতে ভেসে ভারতের অভ্যান্তরে চলে গেছে। পরে ভারতের কৃষ্ণনগর থানার আশপাশ এলাকায় ওয়াজেদ আলীর বেশ কিছু আত্মীয় থাকায় তাঁদের নিকট মোবাইলে নিখোঁজ হওয়ার বিষয়টি জানানো হয়। এরই মধ্যে নিখোঁজের ৭ দিন পর গত ২৮ শে সেপ্টেম্বর সোমবার ভারতের নদীয়া জেলার কৃষ্ণনগর থানার বিজয়পুর গোবিন্দপুর ব্রিজের নিকট মাথাভাঙ্গা নদীর শাখায় জেলেদের মাছ ধরার বেশালীতে অজ্ঞাত এক ব্যক্তির লাশ দেখতে পায় স্থানীয়রা। পরে থানা পুলিশের খবর দিলে ভাসমান লাশটি উদ্ধার করে থানা পুলিশ। পরে ওয়াজেদ আলীর ভারতে থাকা ওই আত্মীয়রা জানতে পেরে লাশ দেখে চিনতে পারেন অজ্ঞাত ব্যক্তির লাশ ওয়াজেদ আলীর। পরে গতকাল ওই লাশের ছবি তুলে সামাজিক যোগাযোগের মাধ্যমে বাংলাদেশে পাঠালে ওয়াজেদ আলীর পরিবারের সদস্যরা চিনতে পারেন এবং এলাকায় দ্রুত ছড়িয়ে পড়ে নিখোঁজ ওয়াজেদ আলীর লাশ পাওয়া গিয়েছে ভারতে।
এ বিষয়ে ওয়াজেদ আলীর ছেলে দেলোয়ার ও জামাতা হজরত আলী জানান, ‘আমরা লাশের ছবি দেখে চিনতে পেরেছি। লাশটি বাংলাদেশে নেওয়ার জন্য আইনগত ব্যবস্থা নেওয়া হচ্ছে। সংশ্লিষ্ট বিজিবি ক্যাম্পে জানানো হয়েছে।’
এ বিষয়ে বিজিবি দর্শনা ক্যাম্প কোম্পানি সূত্রে জানা যায়, নিখোঁজ হওয়া ওয়াজেদ আলীর পরিবারের পক্ষ থেকে লাশের সন্ধান পাওয়ার বিষয়টি জানা গেছে। তবে তার পরিবারের লোকজন সঠিকভাবে ওয়াজেদের লাশের শনাক্ত করলে আইনগত ব্যবস্থা নেওয়া হবে।
এ বিষয়ে দর্শনা থানার ভারপ্রাপ্ত ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) মাহাবুবুর রহমান কাজল জানান, ‘নিখোঁজ হওয়া ওয়াজেদ আলীর লাশ ভারতে পাওয়া গিয়েছে এমন খবর আমি শুনতে পেরেছি। তবে আইনগত ও প্রশাসনিকভাবে আমাকে অবহিত করা হয়নি।’