বন্যা দীর্ঘস্থায়ী হতে পারে

56

সমন্বিত পদক্ষেপের বিকল্প নেই
বন্যা পরিস্থিতি আশঙ্কাজনক। বানের পানি রাজধানী ঢাকার চারদিকে। উত্তর জনপদ বানে ভাসছে, সিলেট অঞ্চলেও নতুন করে বন্যার শঙ্কা দেখা দিয়েছে। দেশের বিভিন্ন জেলায় কয়েক দিন ধরে টানা বৃষ্টিপাত হচ্ছে। গ্রামাঞ্চলের বেশির ভাগ সড়কে এখন কোমর পানি। বাংলাদেশে ১৯৮৮ সালের পর এবারের বন্যা সবচেয়ে দীর্ঘস্থায়ী হতে পারে। এ কথা বলেছে জাতিসংঘ। এবারের বন্যা আগস্টেও গড়াবে বলে আশঙ্কা। এখন পর্যন্ত ১৪ লাখ মানুষ বন্যাকবলিত। বাস্তবে সংখ্যাটি আরো বেশি হওয়ার কথা। মৌসুমি বায়ুর প্রভাবে কয়েক দিন ধরে টানা ভারি বৃষ্টি হচ্ছে দেশের বিভিন্ন জেলায়। চলতি সপ্তাহের বাকি দিনগুলোতেও ভারি বৃষ্টির সম্ভাবনা রয়েছে। মৌসুমি বায়ুর প্রভাবে ঢাকা, রাজশাহী, সিলেট, চট্টগ্রাম, খুলনা, ময়মনসিংহ বিভাগের বেশির ভাগ স্থানে মাঝারি থেকে ভারি বর্ষণ হতে পারে। বন্যা পূর্বাভাস ও সতর্কীকরণ কেন্দ্র বলেছে, কুড়িগ্রাম, গাইবান্ধা, সিলেট, সুনামগঞ্জ ও নেত্রকোনা জেলায় বন্যা পরিস্থিতির আরো অবনতি হতে পারে। উত্তর-পূর্বাঞ্চলে মেঘনার উপরাংশের অববাহিকার প্রধান নদ-নদীর পানি আরো বাড়বে। ব্রহ্মপুত্র নদের পানিও বাড়তে শুরু করেছে। যমুনার পানিও বাড়তে পারে বলে জানিয়েছে তারা। রাজধানীর আশপাশের জেলাগুলোতে বন্যা পরিস্থিতির ক্রমাবনতি হচ্ছে। ঢাকার পাশের জেলা মুন্সীগঞ্জে সরকারি হিসাবেই প্রায় ২০ হাজার মানুষ পানিবন্দি। বেসরকারি হিসাবে সংখ্যাটি আরো অনেক বেশি। মঙ্গলবার রাতে অনেক নতুন এলাকা প্লাবিত হয়েছে। রাস্তাঘাট ভেঙে বন্যার পানি ঢুকছে ঘরের ভেতর। নদীভাঙনও দেখা দিয়েছে। পানিতে তলিয়ে গেছে অসংখ্য মাছের ঘের। বিশুদ্ধ পানি ও খাদ্যসংকট চলছে। গাজীপুরের কালিয়াকৈরের কয়েকটি ইউনিয়নের নিম্নাঞ্চলে বানের পানি ঢুকে পড়েছে। অনেক এলাকার নিচু সড়কে হাঁটু পানি। গবাদি পশু নিয়ে বিপাকে পড়ছে মানুষ। মানিকগঞ্জের অনেক এলাকা দুই দিন ধরে পানির নিচে। ফরিদপুরে পদ্মার পানি বিপৎসীমার ১০৫ সেন্টিমিটার ওপর দিয়ে বইছে। কয়েকটি উপজেলার ৩০টি ইউনিয়নের প্রায় ৫০ হাজার মানুষ পানিবন্দি। তলিয়ে গেছে ২৫টির বেশি স্কুল ও মাদরাসা। রাজবাড়ীতে পদ্মার পানি বিপৎসীমার ১০৪ সেন্টিমিটার ওপর দিয়ে বইছে। প্রায় ৯ হাজার পরিবার পানিবন্দি। আবার গোয়ালন্দ ও কালুখালী এলাকায় নদীভাঙন দেখা দিয়েছে। শেরপুর, গাইবান্ধা ও নীলফামারীতে পরিস্থিতির অবনতি হয়েছে। তিন দফা বন্যায় নাজেহাল হাওরবাসী। এমন ধারাবাহিক বন্যা তারা আগে দেখেনি। এমনিতেই দেশ করোনা মহামারিতে রয়েছে। এর মধ্যে উপর্যুপরি বন্যা মানুষকে একেবারে বিপন্ন করে তুলেছে। সব বিপদই আমাদের সামাল দিতে হবে। সরকার এই দুর্যোগ মোকাবেলায় সমন্বিত উদ্যোগ নেবে বলে আমরা আশা করি।