পাকিস্তানকে আবার হারিয়ে শ্রীলঙ্কার সিরিজ জয়

17

খেলাধুলা প্রতিবেদন:
দ্বিতীয় টি-টোয়েন্টিতেও শ্রীলঙ্কার কাছে পাত্তা পায়নি পাকিস্তান। টি-টোয়েন্টি র‌্যাঙ্কিংয়ের শীর্ষ দলটিকে আবার হারিয়ে এক ম্যাচ বাকি থাকতেই সিরিজ জিতে নিয়েছে শ্রীলঙ্কা। লাহোরে সোমবার শ্রীলঙ্কা জিতেছে ৩৫ রানে। ভানুকা রাজাপাকসার ফিফটিতে শ্রীলঙ্কা ৬ উইকেটে করেছিল ১৮২ রান। জবাবে এক ওভার বাকি থাকতে ১৪৭ রানে অলআউট হয়ে যায় পাকিস্তান। এই প্রথম শ্রীলঙ্কার কাছে দ্বিপক্ষীয় টি-টোয়েন্টি সিরিজ হারল পাকিস্তান। লাহোরের গাদ্দাফি স্টেডিয়ামে টস জিতে ব্যাট করতে নেমে শ্রীলঙ্কার শুরুটা ভালো হয়নি। আগের ম্যাচে ফিফটি করা দানুস্কা গুনাথিলাকা তিন চার মেরে ফেরেন ব্যক্তিগত ১৫ রানে। আরেক ওপেনার অভিসকা ফার্নান্দো ৮ রান করে কাটা পড়েন রান আউটে। তখন ৪১ রানে নেই ২ উইকেট। তৃতীয় উইকেটে শেহান জয়াসুরিয়াকে সঙ্গে নিয়ে ঝড় তোলেন আগের ম্যাচে অভিষেক হওয়া রাজাপাকসা। বাঁহাতি এই ব্যাটসম্যান মাত্র ৩১ বলে তুলে নেন ফিফটি। তৃতীয় উইকেটে রাজাপাকসা ও জয়াসুরিয়া ৬২ বলে যোগ করেন ৯৪ রান। ২৮ বলে ৩৪ রান করা জয়াসুরিয়া রান আউটে কাটা পড়লে ভাঙে জুটি। রাজাপাকসাও এরপর বেশিক্ষণ টেকেননি। শাদাব খানকে ছক্কায় উড়াতে গিয়ে আউট হওয়ার আগে ৪৮ বলে ৪ চার ও ৬ ছক্কায় করেন ৭৭ রান। এরপর দ্রুত আরো দুই ব্যাটসম্যান ফিরলেও দাসুন শানাকার ১৫ বলে অপরাজিত ২৭ রানের ক্যামিওতে ১৮২ রানের পুঁজি পায় শ্রীলঙ্কা। লক্ষ্য তাড়ায় পাকিস্তান ১১ রানের মধ্যেই হারায় দুই ওপেনারকে। দ্বিতীয় ওভারে কাসুন রাজিথাকে স্কুপ করতে গিয়ে বোল্ড হয়ে ফেরেন ফখর জামান। পরের ওভারে নুয়ান প্রদীপের বলে বোল্ড হন বাবর আজমও। তৃতীয় উইকেটে ৪০ রানের জুটি গড়েছিলেন আহমেদ শেহজাদ ও সরফরাজ আহমেদ। এরপরই লেগ স্পিনার ওয়ানিন্দু হাসারাঙ্গার চার বলের মধ্যে শেহজাদ (১৩) ও সরফরাজের (২৬) সঙ্গে ফেরেন উমর আকমলও। এই সিরিজ দিয়ে ফেরা আকমল টানা দ্বিতীয় ম্যাচে মারেন গোল্ডেন ডাক! ৫২ রানে ৫ উইকেট হারানোর পর ষষ্ঠ উইকেটে ৪৭ বলে ৭৫ রানের দারুণ এক জুটিতে পাকিস্তানকে আশা দেখিয়েছিলেন ইমাদ ওয়াসিম ও আসিফ আলী। কিন্তু ইমাদের (২৯ বলে ৮ চারে ৪৭) বিদায়ে এ জুটি ভাঙার পর আর পেরে ওঠেনি স্বাগতিকরা। ২৫ রানে ৪ উইকেট নিয়ে শ্রীলঙ্কার সেরা বোলার প্রদীপ। হাসারাঙ্গা ৩টি ও ইসুরু উদানা নেন ২ উইকেট। আগামীকাল বুধবার একই মাঠে শেষ ম্যাচে হোয়াইটওয়াশ এড়ানোর চ্যালেঞ্জে নামবে পাকিস্তান।