‘নো হেলমেট, নো ফুয়েল’

174

চুয়াডাঙ্গা জেলা পুলিশের ব্যতিক্রমী উদ্যোগ
নিজস্ব প্রতিবেদক:
এখন থেকে মোটরসাইকেলচালকদের মাথায় হেলমেট ছাড়া তেল দেবে না চুয়াডাঙ্গার ফিলিং স্টেশনগুলো। গতকাল মঙ্গলবার সকাল থেকে চুয়াডাঙ্গার প্রতিটি ফিলিং স্টেশনে ‘নো হেলমেট, নো ফুয়েল’-সংবলিত সচেতনতামূলক ব্যানার টাঙিয়ে দেয় চুয়াডাঙ্গা জেলা পুলিশ। এ সময় পুলিশের পক্ষ থেকে হেলমেটবিহীন চালকদের জ্বালানি সরবরাহ না করার জন্যও বলা হয়। চুয়াডাঙ্গা শহরের মোজাম্মেল হক ফিলিং স্টেশনে ঝিরিঝিরি বৃষ্টির মধ্যেই দুপুরে এ কার্যক্রমের উদ্বোধন করেন চুয়াডাঙ্গার পুলিশ সুপার জাহিদুল ইসলাম।
পুলিশ সুপার জাহিদুল ইসলাম জানান, সম্প্রতি লক্ষ্য করা যাচ্ছে, মোটরসাইকেলচালক ও আরোহী সামান্য দুর্ঘটনায় পড়লেও বড় ধরনের ক্ষতির মুখে পড়ছেন। এর অন্যতম কারণ হেলমেট ব্যবহার না করা। এ জন্য দুর্ঘটনা ও ক্ষতির পরিমাণ কমিয়ে আনতে এমন কৌশল অবলম্বন করা হয়েছে। সেই সঙ্গে জনসাধারণকে সচেতন করতেও এ উদ্যোগটি নেওয়া। যাঁরা এ ‘নো হেলমেট, নো ফুয়েল’ নিয়ম মেনে চলবেন না, তাঁদের বিরুদ্ধে পরবর্তীতে আইনগত ব্যবস্থা নেওয়া হবে বলেও জানান তিনি। তিনি আরও বলেন, চুয়াডাঙ্গা জেলার ৪টি উপজেলার ১৮টি পেট্রল পাম্পে পর্যায়ক্রমে ‘নো হেলমেট, নো ফুয়েল’ কার্যক্রম শুরু করা হবে। নিজেদের জীবনের নিরাপত্তার কথা বিবেচনা করে হলেও প্রত্যেক চালক ও আরহীর হেলমেট ব্যবহার করা উচিত।
এ সময় পাম্পে হেলমেটবিহীন মাবুদ সরকার নামের এক ব্যক্তি তেল নিতে এলে জরিমানা না করে প্রথমবারের মতো সতর্ক করে জেলা পুলিশের পক্ষ থেকে তাঁকে হেলমেট পরিয়ে দেওয়া হয়। তারপর তাঁর মোটরসাইকেলে পেট্রল দিয়ে এ কার্যক্রমের উদ্বোধন করা হয়।
এ সময় অতিরিক্ত পুলিশ সুপার (সদর সার্কেল) মো. কলিমুল্লাহ, টিআই মাহবুব হোসেন, শাহাবুদ্দিন, আহসান হাবিব, মাহফুজ, সার্জেন্ট মৃত্যুঞ্জয়সহ চুয়াডাঙ্গা ট্রাফিক পুলিশের ঊর্ধ্বতন কর্মকর্তারা উপস্থিত ছিলেন।