নারীর জন্য প্রয়োজনীয় খাবার

455

cover+woman+food

স্বাস্থ্য ডেস্ক: কিছু খাবার খাদ্য তালিকায় অন্তর্ভুক্ত করার মাধ্যমে নারীদের শরীরে আয়রন ও ক্যালসিয়ামের ঘাটতি পূরণ করা সম্ভব। স্বাস্থ্যবিষয়ক একটি ওয়েবসাইট থেকে জানা যায় এমন কিছু খাদ্য উপাদান সম্পর্কে যা নারীদেহের দৈনন্দিন পুষ্টিচাহিদা পূরণে সাহায্য করে। তিসি: তিসি সার্বিকভাবেই একটি স্বাস্থ্যকর খাবার। এটি ওমেগা-থ্রি ফ্যাটি অ্যাসিডের ভালো উৎস যা হৃদরোগ ও স্তন ক্যানসারের ঝুঁকি কমাতে সাহায্য করে। এছাড়াও এটি বাত ও হজম জনিত সমস্যা সমাধানে সহায়তা করে। স্যামন: স্যামন মাছ আয়রনের ভালো উৎস। এছাড়াও এটি ওমেগা-থ্রি ফ্যাটি এসিডে সমৃদ্ধ, যা মন ভালো রাখতে সাহায্য করে। বিশেষজ্ঞদের মতে, ওমেগা-থ্রি হতাশা কমাতে ও ‘মুড সুইং’ এর প্রভাব কমাতে সাহায্য করে। ক্র্যানবেরি: গবেষণায় দেখা গেছে, নিয়মিত ক্র্যানবেরি খেলে স্তন ক্যান্সার ও হৃদরোগের ঝুঁকি কমে যায়। এছাড়াও এটি ‘ইউরিন ইনফেকশন’য়ের প্রতিরোধক হিসেবে কাজ করে। তাই প্রতিদিন এক গ্লাস ক্র্যানবেরির জুস খাওয়া প্রয়োজন। পালংশাক: পালংশাক ভিটামিন, খনিজ এবং ম্যাগনেসিয়ামে ভরপুর। ‘প্রিমিন্সট্রেশন সিন্ড্রোম’ জনিত নানা উপসর্গ যেমন, ফোলা ভাব, স্তনে ব্যথা বা ওজন বৃদ্ধি ইত্যাদি কমাতে ম্যাগনেসিয়াম সাহায্য করে। আখরোট: বিশেষজ্ঞদের মতে, আখরোটে ওমেগা-থ্রি ফ্যাটি, অ্যান্টিঅক্সিডেন্ট এবং ফাইটোস্টেরোল এই তিনটি উপাদান থাকে যা স্তন ক্যানসারের ঝুঁকি কমায়। এছাড়া উচ্চ ওমেগা-থ্রি হাড় সুস্থ রাখে এবং বাত জ্বর ও হতাশা কমাতে সাহায্য করে। আখরোট ক্যালসিয়াম, ম্যাগনেসিয়াম ও ফলিক এসিড গঠনেও সাহায্য করে। ওটস: ওটস নারীদের শরীরে পুষ্টি চাহিদা পূরণের জন্য বেশ উপকারি। এটি হৃদপিণ্ড সুস্থ রাখে, হজমে সাহায্য করে, রক্তচাপ নিয়ন্ত্রণে রাখে এবং এর ভিটামিন বি-সিক্স ‘প্রিমিন্সট্রেশন সিনড্রোম’ ও ‘মুড সুইং’ প্রতিরোধে সাহায্য করে। এছারাও এর ফলিক এসিড নারীদের গর্ভজনিত সমস্যা ও গর্ভ পরবর্তী সমস্যা দূর করতে সাহায্য করে। দুধ: নারীদের ক্যালসিয়াম ঘাটতি জনিত সমস্যা থাকেই। এই ঘাটতি পূরণের জন্য দুধ একটি আদর্শ খাদ্য। কারণ দুধ ক্যালসিয়ামের ভালো উৎস। ‘প্রিমিন্সট্রেশন সিনড্রোম’ সমস্যা প্রতিরোধেও এটি সাহায্য করে।