‘নকল মিলিয়নিয়ার’ হয়ে যা করলেন তরুণী

155

বিস্ময় ডেস্ক:
জার্মানির এশভাইলার। শহরে বেড়ে ওঠা আনা আসলে সাধারণ এক ট্রাকচালকের কন্যা ওই তরুণী। তার আসল পদবি সোরোকিন। কিন্তু ‘মিলিয়নেয়ার’ হওয়ার এই নাটক চালিয়ে যেতে তিনি ‘ডেলভি’ পদবির আশ্রয় নেন। সবাইকে বলেন যে, তার রয়েছে প্রায় ৬০ মিলিয়ন ইউরো মূল্যের উত্তরাধিকার সম্পত্তি। প্রতারণা ও চুরির অপরাধে অভিযুক্ত আঠাশ বছরের জার্মান-রুশ তরুণী আনা সোরোকিন। বৃহস্পতিবার যুক্তরাষ্ট্রের নিউ ইয়র্কের একটি আদালতে তিনি অভিযুক্ত হন। আনার বিরুদ্ধে অভিযোগ, বেশ কিছুদিন ধরেই ‘আনা ডেলভি’ নামে তিনি বন্ধুবান্ধব ও বেশ কিছু প্রতিষ্ঠানের কাছ থেকে বিশাল অঙ্কের টাকা ধার করেন। আসল পরিচয় লুকিয়ে নিজেকে তুলে ধরেন জার্মানিতে বিপুল অর্থের অধিকারী হিসাবে। আগামী ৯ মে তার বিরুদ্ধে আনা সমস্ত অভিযোগের ভিত্তিতে সাজার পরিমাণ জানানো হবে। আনার আইনজীবী টড স্পোডেক জানান, প্রমাণিত অভিযোগের ভিত্তিতে ৫ থেকে ১৫ বছরের কারাদ- পেতে পারেন তিনি। ভুয়া তথ্যের ভিত্তিতে বিভিন্ন ব্যাংকের কাছে তিনি ২২ মিলিয়ন মার্কিন ডলারের ঋণ চান। কিন্তু সেই ঋণ অনুমোদিত না হওয়ায় পর আরেক পরিচিতের কাছ থেকে এক লাখ মার্কিন ডলার ধার নেন তিনি। এই টাকাও কখনো শোধ করেননি আনা। বরং, মিথ্যা পরিচয়ের ভিত্তিতে নামিদামি রেস্তোরাঁ ও ক্লাবে তাকে দেখা যেত আমেরিকার তাবড় তাবড় সেলিব্রেটিদের সঙ্গে নাস্তা করতে। আনার নকল ‘ইন্সটাগ্রাম’ অ্যাকাউন্টে ফলাও করে দেওয়া আছে সেই সব ছবিও। প্রতারণা ও চুরি ছাড়াও আনার ওপর রয়েছে মার্কিন ভিসার মেয়াদ পেরোনোর পরও সেখানে থেকে যাওয়ার অভিযোগ। ফলে, তাকে জার্মানিতে ফেরত পাঠিয়ে সেখানে বিচারকার্য সম্পন্ন করার সম্ভাবনাও রয়ে যাচ্ছে।