দোকান মালিক সমিতির দুঃখ প্রকাশ : সৌহার্দ্যপূর্ণ সহাবস্থান

178

চুয়াডাঙ্গায় ব্যবসায়ীদের হাতে সাংবাদিক লাঞ্ছিতের ঘটনায় পৃথক বৈঠক
নিজস্ব প্রতিবেদক:
চুয়াডাঙ্গায় পেঁয়াজের বাজার মনিটরিং ও ভ্রাম্যমাণ আদালতের অভিযান চলাকালে সংবাদ সংগ্রহে দায়িত্বরত সংবাদকর্মীকে লাঞ্ছিতের ঘটনায় ক্ষমা চেয়েছেন হামলাকারীরা। এ ঘটনায় লিখিত বিবৃতি দিয়ে দুঃখ প্রকাশ করেছেন বাংলাদেশ দোকান মালিক সমিতি চুয়াডাঙ্গা জেলা শাখার নেতৃবৃন্দ। গতকাল রোববার দুপুরে পুলিশ পার্ক লেনে সময়ের সমীকরণ-এর প্রধান কার্যালয়ে সময়ের সমীকরণ পরিবার ও সাংবাদিক নেতৃবৃন্দের সঙ্গে বৈঠকে বসেন দোকান মালিক সমিতির নেতারা। বৈঠকে উন্মুক্ত আলোচনা শেষে সাংবাদিক নেতাদের উপস্থিতিতে লাঞ্ছিতের শিকার দুই সংবাদকর্মী এস এম শাফায়েত ও তৌহিদুর রহমান তপুর কাছে ক্ষমা ও দুঃখ প্রকাশ করেন তাঁরা। ওই দিনের সৃষ্ট ঘটনার সন্তোষজনক মীমাংসা হওয়ায় পূর্ব-ঘোষিত মানববন্ধন কর্মসূচি স্থগিত করা হয়।
বৈঠকে সাংবাদিক নেতৃবৃন্দ বলেন, ‘সংবাদকর্মীরা পেশাগত দায়িত্বপালন করবেন আর আপনারা (ব্যবসায়ীরা) তাঁদের সহযোগিতা করবেন, এটাই প্রত্যাশা। কিন্তু সংবাদ সংগ্রহে দায়িত্বরত দুই সংবাদকর্মীর ওপর হামলা করে তাঁদের মোবাইল ফোন ভেঙে তথ্যচিত্র মুছে ফেলার চেষ্টা দুঃখজনক। সেই সঙ্গে বাজার মনিটরিং অভিযানকালে নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট ও পুলিশ সদস্যদের ঘেরাও করে গোলযোগ সৃষ্টি করা অনুচিত। যেকোনো সমস্যা আলোচনার মাধ্যমে সমাধান সম্ভব। উত্তেজনার বশবর্তী হয়ে প্রশাসনিক কাজে এরূপ বাধাদান বেআইনি ও শাস্তিযোগ্য অপরাধ।’
সাংবাদিক নেতৃবৃন্দ আরও বলেন, ‘আমরা অন্যায়ের প্রতিবাদ করি আর ভালো কাজে সবার পাশে থাকি। সংবাদ সংগ্রহ করতে গিয়ে আমাদের দুই সংবাদকর্মীকে ব্যবসায়ীদের হাতে লাঞ্ছিতের শিকার হতে হবে, তা আশা করিনি। আমরা সব সময় চাই, সব শ্রেণি-পেশার মানুষের সঙ্গে সৌহার্দ্যপূর্ণ সহাবস্থান। গণমাধ্যম ও গণমাধ্যমকর্মীদের স্বাধীনতা যেন কখনোই বাধাগ্রস্ত না হয় এবং ভবিষ্যতে যেন এমন ঘটনার পুনরাবৃত্তি না ঘটে, সে ব্যাপারে সজাগ দৃষ্টি রাখবেন।’
ব্যবসায়ী নেতৃবৃন্দ বলেন, ‘সাংবাদিকদের ওপর হামলার ঘটনাটি অনাকাক্সিক্ষত। এমন অপ্রত্যাশিত ঘটনা আমরা কখনোই আশা করি না। বিভিন্ন সময়ে বিপদে-আপদে আমাদের পাশে থেকে সহযোগিতা করেছেন সাংবাদিকেরা। এ ঘটনার যেন পুনরাবৃত্তি না হয়, সে ব্যাপারে ব্যবসায়ীদের সচেতন করা হবে। আমরা এ ঘটনায় লাঞ্ছিত দুই সংবাদকর্মীর প্রতি সমবেদনা ও দুঃখ প্রকাশ করছি।’


এ সময় সাংবাদিক নেতৃবৃন্দের মধ্যে উপস্থিত ছিলেন অ্যাড. তছিরুল আলম মালিক ডিউক, রাজিব হাসান কচি, অ্যাড. মানিক আকবর, শাহ আলম সনি, আরিফুল ইসলাম ডালিম, রফিক রহমান, এম এ মামুন, বিপুল আশরাফ, আতিয়ার রহমান, আবুল হাশেম ও ইসলাম রকিব। এ ছাড়াও উপস্থিত ছিলেন দৈনিক সময়ের সমীকরণ-এর প্রধান সম্পাদক নাজমুল হক স্বপন, বার্তা সম্পাদক হুসাইন মালিক, সহসম্পাদক হেমন্ত কুমার সিংহ রায়, কবি রিগান এসকান্দার, ডেস্ক ইনচার্জ ফেরদৌস ওয়াহিদ, প্রতিবেদক রোকনুজ্জামান রোকন প্রমুখ।
ব্যবসায়ী নেতৃবৃন্দের মধ্যে উপস্থিত ছিলেন জেলা দোকান মালিক সমিতির সভাপতি আসাদুল হোসেন জোয়ার্দ্দার লেমন, সিনিয়র সহসভাপতি আব্দুল কাদের জগলু, সাধারণ সম্পাদক ইবরুল হাসান জোয়ার্দ্দার ইবু, সাংগঠনিক সম্পাদক নুরুজ্জামান খোকন প্রমুখ।
এদিকে, সন্ধ্যায় অতিরিক্ত জেলা ম্যাজিস্ট্রেট মনিরা পারভীনের অফিস কক্ষে দ্বিতীয় দফায় বৈঠকে বসেন ব্যবসায়ী নেতৃবৃন্দ। এ সময় গত শনিবার সকালে চুয়াডাঙ্গার নিচের বাজারে বাজার মনিটরিংয়ের সময় নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেটগণের ঘেরাও করে ভ্রাম্যমাণ আদালতের কাজে বাধা সৃষ্টি, সহযোগী পুলিশ সদস্যদের ওপর মারমুখী আচরণ ও সাংবাদিকদের ওপর হামলার ঘটনার বর্ণনা শোনেন তিনি। দোকান মালিক সমিতির সভাপতি আসাদুল হোসেন জোয়ার্দ্দার লেমন, সিনিয়র সহসভাপতি আব্দুল কাদের জগলু, সাধারণ সম্পাদক ইবরুল হাসান জোয়ার্দ্দার ইবু, সাংগঠনিক সম্পাদক নুরুজ্জামান খোকনসহ উপস্থিত নেতৃবৃন্দকে এ ঘটনার পুনরাবৃত্তি না করতে পরামর্শ দেন তিনি। এ সময় উপস্থিত ছিলেন অতিরিক্ত পুলিশ সুপার (প্রশাসন) কানাই লাল সরকার, নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট ও এনডিসি সিব্বির আহমেদ, জেলা মার্কেটিং অফিসার শহিদুল ইসলাম, ভোক্তা অধিকার সংরক্ষণ অধিদপ্তর জেলা কার্যালয়ের সহকারী পরিচালক সজল আহমেদ, সাংবাদিক এম এ মামুন, আরিফুল ইসলাম ডালিম ও এস এম শাফায়েত।
এ ঘটনায় দুঃখ প্রকাশ, সাংবাদিকদের প্রতি সমবেদনা ও ঘটনার পুনরাবৃত্তি হবে না জানিয়ে বাংলাদেশ দোকান মালিক সমিতি চুয়াডাঙ্গা জেলা শাখার পক্ষ থেকে বিবৃতি দেওয়া হয়েছে। সমিতির সাধারণ সম্পাদক ইবরুল হাসান জোয়ার্দ্দার ইবু স্বাক্ষরিত এক প্রেস বিজ্ঞপ্তিতে বলা হয়, পেঁয়াজের লাগামহীন মূল্যবৃদ্ধি নিয়ন্ত্রণে জেলা প্রশাসনের নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট ও এনডিসি সিব্বির আহমেদ-এর নেতৃত্বে চুয়াডাঙ্গার নিচের বাজারে অভিযান চালিয়ে কাঁচামালের আড়তপট্টিতে বাজার মনিটরিংয়ের সময় ভ্রাম্যমাণ আদালতের মাধ্যমে জরিমানা করা ও এক পুলিশ সদস্যের সঙ্গে সমিতির সদস্যের ধাক্কা লাগা নিয়ে আশপাশের ব্যবসায়ী, দোকানের কর্মচারী ও উপস্থিত জনতা বাগবিত-ায় জড়িয়ে পড়েন। ওই ঘটনার সংবাদ সংগ্রহে দায়িত্বরত দৈনিক সময়ের সমীকরণ-এর বিশেষ প্রতিবেদক এস এম শাফায়েত ও সার্কুলেশন সহকারী তৌহিদুর রহমান তপু লাঞ্ছিত হন। এ ঘটনা জানতে পেরে বাংলাদেশ দোকান মালিক সমিতি চুয়াডাঙ্গা জেলা শাখার নেতৃবৃন্দ ব্যবসায়ীদের সঙ্গে আলোচনায় বসেন এবং উক্ত ঘটনাটি সম্পূর্ণ অনাকাক্সিক্ষত আখ্যা দিয়ে সমিতির পক্ষ থেকে দুঃখ প্রকাশ করেছেন। সেই সঙ্গে লাঞ্ছিতের শিকার সংবাদকর্মীদের প্রতি সমবেদনা জানিয়েছেন তাঁরা। ভবিষ্যতে এ ধরনের ঘটনা আর ঘটবে না বলে তাঁরা আশা করেন।