দামুড়হুদায় স্কুলছাত্রীর আত্মহত্যা : রহস্য

172

দামুড়হুদা প্রতিনিধি: দামুড়হুদা উপজেলার হোগলডাঙ্গা গ্রামে সুমি খাতুন (১৬) নামের ১০ম শ্রেণীর এক ছাত্রী বিষপানে আত্মহত্যা করেছে। সুমি হোগলডাঙ্গা গ্রামের শফিকুল ইসলামের মেয়ে ও হোগলডাঙ্গা মাধ্যমিক বিদ্যালয়ের ছাত্রী। গতকাল শুক্রবার ভোর ৫ টার দিকে সে মারা যায়। থানা পুলিশ খবর পেয়ে লাশ উদ্বার করে দামুড়হুদা মডেল থানায় নিয়ে আশে। সুমির চাচা শফিকুল ইসলাম জানায়, বৃহস্পতিবার বিকাল ৪টার দিকে সুমি বাড়ীর সকলের অজান্তে ঘরে থাকা ঘাস মারা বিষপান করে। এরপর বাড়ীর লোকজন তার তাকে উদ্ধার করে দামুড়হুদা উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে ভর্তি করে। পরে রাত ৩ টার দিকে তার অবস্থার অবনতি ঘটলে কর্তব্যরত চিকিৎসক তাকে চুয়াডাঙ্গা সদর হাসপাতালে রেফার্ড করে। চুয়াডাঙ্গা সদর হাসপাতালে নেওয়ার পথে হাসপাতাল গেটে পৌছালে তার মৃত্যু হয়। তার চাচা আরও জানায় কি কারণে বিষপান করেছে তা আমাদের জানা নেই। তবে বেশ কিছুদিন ধরে তার মাথার সমস্যা ছিল এবং মাঝে মাঝে তার মাথার সমস্যা হলে সে অজ্ঞান হয়ে পড়ত। তবে এই অপমৃত্যু নিয়ে অনকে রহস্যের জন্ম দিয়েছে।
দামুড়হুদা মডেল থানার অফিসার ইনচার্জ সুকুমার বিশ্বাস জানান, প্রাথমিকভাবে ধারনা করা হচ্ছে বিষপান করে আত্মহত্যা করেছে। তবে ময়না তদন্তর রিপোর্ট পাওয়ার পর তার মৃত্যুর সঠিক কারণ জানা যাবে। গতকাল ময়নাতদন্তর জন্য চুয়াডাঙ্গা সদর হাসপাতালে নেওয়া হলেও চিকিৎসক না থাকায় আজ শনিবার সকালে ময়নাতদন্তর জন্য পুনরায় পাঠানো হবে।