দামুড়হুদার মাথাভাঙ্গা নদীতে ডুবে শিশু নিখোঁজ!

223

দামুড়হুদা প্রতিনিধি: দামুড়হুদার পুরাতন বাস্তপুর গ্রামের ভ্যানচালক মকলেছের শিশু ছেলে তামিম (৬) মাথাভাঙ্গা নদীতে ডুবে যাওয়ার ৮ ঘন্টা পেরিয়ে গেলেও তার কোন সন্ধান পাওয়া যায়নি। গতকাল বুধবার দুপুর ১টার দিকে নিকট আত্মীয়ের সাথে মাথাভাঙ্গা নদীতে গোসল করতে গিয়ে নদীতে ডুবে যায়। পরে ফায়ার সার্ভিসের সদস্যরা এসে খুলনা থেকে ডুবুরি আনার চেষ্টা করা হচ্ছে বলে চলে যান। স্থানীয়রা নদীতে জাল পেতে লাশ উদ্ধারের চেষ্টা করছে। স্থানীয়রা জানায়, বুধবার মকলেছের বাড়িতে মামা, মামী ও খালা বেড়াতে আসে। দুপুর ১টার দিকে তারা বাড়ির প¦ার্শবর্তী মাথাভাঙ্গা গোসল করতে গেলে তামিম তাদের সাথে গোসল করতে যায়। গোসলের সময় সকলের অজান্তে তামিম নদীতে ডুবে যায়। পরে স্থানীয়রা খোঁজাখুজি করে না পেলে বিকাল সাড়ে ৪টার দিকে দামুড়হুদার দর্শনার ফায়ার সার্ভিসে খবর দেয়। খবর পেয়ে তারা দ্রুত ঘটনাস্থলে আসে নদীতে পানি বেশি হওয়ায় তারা নদীতে না নেমে তামিমের লাশ উদ্ধারে খুলনা থেকে ডুবুরি আনার চেষ্টা করা হচ্ছে বলে চলে যায়। স্থানীয়রা সন্ধা পর্যন্ত নদীতে বহু খোঁজাখুঁজি করে কোন সন্ধান না পেলে সন্ধ্যায় নদীতে জাল বিছিয়ে তামিমের লাশ উদ্ধারের চেষ্টা করছে। ফায়ার সার্ভিসের সাব অফিসার আনোয়ার হোসেন জানান, খবর পেয়ে আমরা দ্রুত ঘটনাস্থলে পৌছায়। এসময় আমাদের এলাকায় কোন ডুবুরি না থাকায় আমরা খুলনা ডুবুরিদের সাথে যোগাযোগ করি। খুলনা থেকে সন্ধ্যা ৬টার দিকে ডুবুরি দল দামুড়হুদার উদ্দেশ্যে রওনা হয়েছে বলে জানতে পেরেছি। চার সন্তানের জনক তার একমাত্র পুত্র শিশু সন্তানকে হারিয়ে তার পরিবারসহ এলাকায় চলছে শোকের মাতম।