দামুড়হুদার পৃথক স্থানে বজ্রপাতে আহত ৪

26

প্রতিবেদক, দামুড়হুদা:
দামুড়হুদা উপজেলার পৃথক স্থানে বজ্রপাতে চারজন আহত হয়েছেন। আহত ব্যক্তিরা হলেন উপজেলার কানাইডাঙ্গা গ্রামের মৃত মো. বশির আহম্মেদ ভোলার ছেলে কৃষক মিঠু (৫০), একই গ্রামের মৃত মহির উদ্দিনের ছেলে আব্দুর রশিদ (৫০), জুড়ানপুর গ্রামের প্রশান্তর স্ত্রী তুলশী রাণি (২৬) ও একই গ্রামের মজিবরের ছেলে জুবায়ের (৩২)। গতকাল বুধবার বিকেল চারটার দিকে এ ঘটনা ঘটে।
স্থানীয়রা জানান, দামুড়হুদা উপজেলার কানাইডাঙ্গা গ্রামের মৃত বশির আহম্মেদ ভোলার ছেলে কৃষক মিঠু ও একই গ্রামের মৃত মহির উদ্দিনের ছেলে আব্দুর রশিদ নিজের হালের বলদ নিয়ে কানাইডাঙ্গা বাটকিমারি মাঠে চরাতে যান। এ সময় বৃষ্টির পাশাপাশি বজ্রপাত শুরু হয়। মাঠে বজ্রাপাত হলে কৃষক মিঠু ও রশিদ আহত হন। বজ্রপাতে আহত দুইজনের শরীরের বিভিন্ন অংশ ঝলসে যায়। আহতদের চিকিৎসার জন্য দামুড়হুদা উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে ভর্তি করা হয়। একই দিনে জুড়ানপুর গ্রামের প্রশান্তর বাড়ির উঠানে নারিকেল গাছের ওপর বজ্রপাত হলে রান্নাঘরে থাকা প্রশান্তর স্ত্রী তুলশী রাণি ও একই গ্রামের মজিবরের ছেলে জুবায়ের আহত হন। তাঁদের পরিবারের লোকজন আহতদের উদ্ধার করে দামুড়হুদা উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে নিয়ে যান। তুলশী রাণির কোলে ৭ মাসের শিশুসন্তান সুস্থ অবস্থায় থাকলেও তুলশি রাণির অবস্থা আশঙ্কাজনক।
দামুড়হুদা উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে কর্তব্যরত চিকিৎসক অমিত কুমার বিশ্বাস জানান, তিনজনের অবস্থা ভালো আছে। কিন্তু তুলশি রাণির মাথায় একটু সমস্যা আছে। তাই তাঁকে চুয়াডাঙ্গা সদর হাসপাতালে রেফার্ড করা হতে পারে।