দর্শনায় সাংবাদিকের দূরদর্শীতায় রক্ষা পেল দোকানে চুরি : দুই চোর পাকড়াও

174

দর্শনা অফিস: দর্শনায় সাংবাদিক রয়েলের দূরদর্শীতায় বড় ধরনের চুরির হাত থেকে রক্ষা পেল মডার্ণ স্টোর। গতকাল শনিবার সকাল ৭টার দিকে দর্শনা বাসস্ট্যান্ডের মডার্ণ স্টোরে চুরির সময় দুই চোরকে পাকড়াও করা হয়েছে। এসময় চোর সুমন ও তৌফিক নামের দুই চোরকে উত্তমমাধ্যম দিয়ে পুলিশে সোপর্দ করা হয়েছে। দর্শনা বাসস্ট্যান্ডে দোকান চুরির হাত থেকে রক্ষা ও দুই চোরকে পাকড়াও করায় সাংবাদিক রয়েল হয়েছে প্রশংশিত।
জানা গেছে, গতকাল শনিবার সকাল ৭টার দিকে দর্শনা বাসস্ট্যান্ড মিন্টু মার্কেটের ব্যবসায়ী আবু জাফরের মডার্ণ স্টোরে সংঘবদ্ধ চোরেরা হানা দেয়। প্রতিদিনের ন্যায় চুয়াডাঙ্গা থেকে প্রকাশিত দৈনিক সময়ের সমীকরণ পত্রিকার দর্শনা সহকারী ব্যুরো প্রধান ওয়াসিম রয়েল কর্মস্থলে যাওয়ার সময় নজর পড়ে মিন্টু মার্কেটের দিকে। এসময় তিনি মোটরসাইকেলে চড়ে বেশ কিছু দূর চলে যায়। চলে যাওয়ার পর তার সন্দেহ হলে ফিরে আসে মিন্টু মার্কেটের সামনে। এরপর মোটরসাইকেল রেখে মার্কেটের মধ্যে যায়। সেখানে যাওয়ার সময় সংঘবদ্ধ চোরচক্র বিষয়টি বুঝতে পেরে সটকে পড়ার চেষ্টা করে। এসময় সাংবাদিক রয়েল মার্কেটর ভিতর ঢুকে দেখতে পান মডার্ণ স্টোরের দুটি তালাকাটা অবস্থায় সার্টার গেট তোলা। এতে সাংবাদিক রয়েল চোরচক্রের পিছু নেয়। এসময় চোরচক্রের মধ্যে তিনজন দর্শনা হল্ট স্টেশনের দিকে পালিয়ে যায় এবং বাকি দুইজনকে পিছু ধাওয়া করে একাই দর্শনা রশিক শাহর মাজারের নিকট থেকে সুমন ও তৌফিক নামের দুই চোরকে পাকড়াও করে। এরপর দুই চোরকে পাকড়াও করে নিয়ে আসলে লোকজন ধরে তাদেরকে উত্তম মাধ্যম দিয়ে দর্শনা পুলিশে সোপর্দ করে। আটককৃত চোর কুমিল্লা জেলার মুরাদনগর উপজেলার নয়াকান্দি গ্রামের মৃত আবু হাসেমের ছেলে তৌফিক ও একই উপজেলার আলীয়ারপুর গ্রামের আব্দুল আলীমের ছেলে সুমন। আটককৃত দুই চোরের বিরুদ্ধে পুলিশ মামলা দায়ের করে দামুড়হুদা থানায় সোপর্দ করেছে। উল্লেখ্য, গত ২ আগষ্ট দর্শনা বাসস্ট্যান্ডের এসএল আবাসিক হোটেলের রুম ভাড়া করে সেখানে থাকে। আজ সকালের দিকে তারা হোটেল থেকে বের হয়ে যায়। পরে পার্শ্বের মার্কেটের মডার্ণ স্টোর তালা ভেঙ্গে চুরি করতে গিয়ে দুইজন ধরা পড়ে। সেখানে অবস্থান করছিলো।