তিন কার্যদিবসে প্রতিবেদন দাখিলের নির্দেশ

61

চুয়াডাঙ্গার গ্রীন লাইফ মেডিকেল সেন্টারের বিরুদ্ধে তদন্ত শুরু
নিজস্ব প্রতিবেদক:
চুয়াডাঙ্গার গ্রীন লাইফ মেডিকেল সেন্টারে রোগীর রক্তের গ্রুপ নির্ণয় পরীক্ষায় ভুল রিপোর্ট ও অতিরিক্ত টাকা নেওয়ার অভিযোগের ঘটনায় জেলা স্বাস্থ্য বিভাগ নড়েচড়ে বসেছে। এ ঘটনার তদন্তে তিন সদস্যবিশিষ্ট কমিটি গঠন করা হয়েছে। তদন্ত কমিটিকে তিন কার্যদিবসের মধ্যে প্রতিবেদন দাখিলের নির্দেশ দিয়েছে জেলা স্বাস্থ্য বিভাগ। বিষয়টি নিশ্চিত করে সিভিল সার্জন ডা. এ এস এম মারুফ হাসান। তিনি জানান, চুয়াডাঙ্গায় গ্রীন লাইফ মেডিকেল সেন্টারের ঘটনায় তিন সদস্যবিশিষ্ট একটি কমিটি গঠন করা হয়েছে। তিন কার্যদিবসের মধ্যে প্রতিবেদন দাখিলের জন্য তদন্ত কমিটিকে নির্দেশ প্রদান করা হয়েছে।
উল্লেখ্য, গত ৯ জুলাই চুয়াডাঙ্গায় গ্রীন লাইফ মেডিকেল সেন্টারের বিরুদ্ধে এক রোগীর রক্তের গ্রুপ নির্ণয় পরীক্ষায় ভুল রিপোর্ট (‘বি’ পজিটিভ) ও অতিরিক্ত টাকা নেওয়ার অভিযোগ উঠে। পরে ওই রোগীর শরীরে রক্ত পুশ করার সময় নারদিতা ক্লিনিক কর্তৃপক্ষ আবারও রক্তের গ্রুপ নির্ণয় করলে ‘ও’ পজিটিভ রিপোর্ট আসে। এর আগে গত বছরের ২৮ জুন এই প্রতিষ্ঠানের বিরুদ্ধে ভুয়া চিকিৎসক দিয়ে রোগীদের সঙ্গে প্রতারণার অভিযোগের সত্যতা নিশ্চিত হলে ৫৫ হাজার টাকা জরিমানা ও প্রতিষ্ঠানটি সিলগালা করে দেন মোবাইল কোর্ট। এ ঘটনায় দীর্ঘ তিন মাস বন্ধ থাকার পর ওই বছরের ৩ অক্টোবর প্রতিষ্ঠানটি খুলে ১৪ অক্টোবর চিকিৎসকের দেওয়া রোগীর নির্ধারিত পরীক্ষা না করেই ৪ শ টাকা হাতিয়ে নেওয়ায় অভিযোগ ওঠে। যায় সত্যতাও পাওয়া যায়। পরবর্তী বছরে ৮ ফেব্রুয়ারি চুয়াডাঙ্গা সদর হাসপাতালের প্যাথলজিতে পরীক্ষার জন্য রাখা এক ভর্তি রোগীর কৌশলে তাঁর ব্লাড স্যাম্পল নিয়ে গ্রীন লাইফ মেডিকেল সেন্টারে পরীক্ষা করে অতিরিক্ত টাকা নেওয়ার অভিযোগ উঠে। পরে মালিক আনারুল ইসলামকে পুলিশ আটক করে। এসব কর্মকাণ্ড থেকে বিরত থাকার শর্তে ওই সময় মুচলেকায় নিয়ে তাঁকে মুক্তি দেয় পুলিশ।