তিতুদহে ভাতার টাকা আত্মসাৎ, ইউএনওর কাছে অভিযোগ

37

প্রতিবেদক, তিতুদহ:
চুয়াডাঙ্গা সদরের তিতুদহ ইউনিয়নের ৮ নম্বর ওয়ার্ডের মেম্বার জাকির হোসেনের বিরুদ্ধে ভাতার টাকা আত্মসাতের অভিযোগে সদরের উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা (ইউএনও) বরাবর লিখিত অভিযোগ দায়ের করেছেন বাটিকাডাঙ্গা গ্রামের কামরুজ্জামান কামাল। অভিযোগে কামাল বলেন, ‘এ বছরের নতুন কার্ডধারী বই থেকে অর্ধেক টাকা আত্মসাৎ করেছেন জাকির মেম্বার। তবে প্রথমবারে সব প্রতিবন্ধীর হাতে ৯ হাজার টাকা পৌঁছালেও আমি এবং আমার গ্রামের আরও দুজন পেয়েছি চার হাজার ৫ শ টাকা। তাই ইউএনও বরাবর লিখিত অভিযোগ দায়ের করেছি।’ এ বিষয়ে জাকির মেম্বার বলেন, ‘আমি কোনো ভাতার কার্ডের টাকা আত্মসাৎ করিনি এবং কোনা ধরনের হুমকিও কাউকে দেয়নি। আমাকে ফাঁসাতে অযথায় ইউএনও স্যারের কাছে মিথ্যা অভিযোগ দায়ের করা হয়েছে।’ তিতুদহ ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান আকতার হোসেন বলেন, ‘আমার দায়িত্বে ৩০৮টি কার্ড ছিল। আমরা সঠিকভাবে কার্ডগুলো বিতরণ করেছি। তবে যে কার্ডগুলো নিয়ে নানা ধরনের সমস্যার কথা উঠে আসছে, সে সব কার্ডগুলো উপজেলা থেকে স্থানীয় নেতৃবৃন্দ দিয়ে বণ্টন করা হয়েছে। এ বছর ৬২টি কার্ড উপজেলা থেকে বিতরণ করা হয়েছে। আমার দায়িত্বের ৩০৮টি কার্ড বিতরণে কোনো সমস্যা হয়নি, ইনশা-আল্লাহ আর হবেও না।’ এসময় তিতুদহ ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান আকতার হোসেন জাকির মেম্বারের বিরুদ্ধে ওঠা অভিযোগের বিষয়ে কোনো মন্তব্য করেননি।