ট্রাকের চাকায় পিষ্ট হয়ে ইটভাটার মালিকের মৃত্যু

198

ভ্রাম্যমাণ প্রতিবেদক, আলমডাঙ্গা:
আলমডাঙ্গার রোয়াকুলিতে মালবাহী ট্রাকের নিচে পিষ্ট হয়ে ইটভাটার মালিক হাসান নিহত হয়েছেন। গতকাল মঙ্গলবার সন্ধ্যা ছয়টার দিকে এ ঘটনা ঘটে। নিহত হাসান আলমডাঙ্গা পৌর এলাকার গোবিন্দপুর গ্রামের আব্দুর রহিমের ছেলে। দুর্ঘটনার খবর পেয়ে আলমডাঙ্গা ফায়ার সার্ভিস ও থানা পুলিশ উপস্থিত হয়ে লাশ উদ্ধার করে।
স্থানীয় সূত্রে জানা যায়, আলমডাঙ্গার পৌর এলাকার গোবিন্দপুর গ্রামের আব্দুর রহমানের ছেলে হাসান (৪০) গতকাল মঙ্গলবার সন্ধ্যায় ইটভাটার কিছু মালামাল কেনার জন্য চুয়াডাঙ্গায় যান। সন্ধ্যা ছয়টার দিকে নিজ মোটরসাইকেলযোগে আলমডাঙ্গায় তাঁর নিজ বাড়িতে ফিরছিলেন। এ সময় জেহালা ইউনিয়নের রোয়াকুলি গ্রামের মধ্যে প্রবেশ করলে তাঁর সামনে থাকা কাঁচামালবাহী একটি ট্রাকের ওভারটেক করার চেষ্টা করেন তিনি। মোটরসাইকেল ওভারটেক করার মূহুর্তে হঠাৎ সামনে থেকে আলমসাধু চলে আসায় হাসান মোটরসাইকেলের নিয়ন্ত্রণ হারিয়ে ফেলেন। এ সময় আলমসাধুর ধাক্কায় হাসান মোটরসাইকেলসহ ট্রাকের নিচে ছিটকে পড়লে ট্রাকের চাকায় পিষ্ট হয়ে ঘটনাস্থলেই তিনি মারা যান।
হাসানের পরিবারের লোকজন জানান, ফরিদপুর গ্রামে আরএমবি নামের একটি ইটভাটা আছে হাসানের। গতকাল মঙ্গলবার আনুষ্ঠানিকতার মাধ্যমে ইটভাটায় আগুন দেওয়ার কথা ছিল। এ কারণে তিনি চুয়াডাঙ্গায় তাঁর ভাটার জন্য ব্যবহৃত জিনিসপত্র কিনতে যান। ফেরার সময় তিনি ট্রাকের নিচে পড়ে মারা গেলে খবর পেলে দ্রুত ঘটনাস্থলে পৌঁছালে হাসানের রক্তাক্ত লাশ ট্রাকের নিচে পড়ে থাকতে দেখেন তাঁর পরিবারের সদস্যরা।
সড়ক দুঘর্টনার প্রত্যক্ষদর্শীরা বলেন, মঙ্গলবার সন্ধ্যা ছয়টার দিকে একটি ট্রাক (চুয়াডাঙ্গা ট-১১-০১৭৩) দ্রুতগতিতে আলমডাঙ্গার মুখে যাচ্ছিল। এ সময় হাসান মোটরসাইকেলটি ওই ট্রাকের ওভারটেক করার চেষ্টা করলে তাঁর সামনে আলমসাধু চলে আসে। এ সময় তাঁর গাড়িতে থাকা গ্রিজের ব্যাগ হ্যান্ডেলে বেঁধে গেলে তিনি নিয়ন্ত্রণ হারিয়ে আলমসাধু গাড়ির পাশে ধাক্কা লাগে ছিটকে ট্রাকের নিচে পড়েন। ট্রাকচালক লোড গাড়ি ব্রেক মেরে নিয়ন্ত্রণ করার চেষ্টা করলেও হাসানের শরীরের ওপরে উঠে যায়। এ ঘটনার পরই ট্রাকচালক পালিয়ে যান। ঘটনার সংবাদ পেয়ে ঘটনাস্থলে আলমডাঙ্গা ফায়ার সার্ভিস, থানার পুলিশ ও মুন্সিগঞ্জ ফাঁড়ি পুলিশ উপস্থিত হয়ে হাসানের লাশ উদ্ধার করে। হাসানের পরিবারের পক্ষ থেকে মামলা না করায় তাঁর লাশ পরিবারের নিকট হস্তান্তর করা হয়।
এ ব্যাপারে আলমডাঙ্গা থানার উপপরিদর্শক (এসআই) মহব্বত জানান, সড়ক দুর্ঘটনার খবর পেয়ে দ্রুত ঘটনাস্থলে পৌঁছে লাশ উদ্ধার করা হয়েছে। সড়ক দুর্ঘটনার পরই ট্রাকচালক পালিয়েছেন। দুর্ঘটনার কবলে পড়া মোটরসাইকেল ও ট্রাক (চুয়াডাঙ্গা ট-১১-০১৭৩) উদ্ধার করা হয়েছে। এ ব্যাপারে কেউ মামলা করলে আইনগত ব্যবস্থা নেওয়া হবে।
আলমডাঙ্গা থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) আশিকুর রহমান জানান, রোয়াকুলি সড়ক দুর্ঘটনায় নিহতের ঘটনা জানার পরই পুলিশ পাঠানো হয়েছে। মামলা না করায় লাশ পরিবারের নিকট হস্তান্তর করা হয়েছে।