টেনিসে এক রোমাঞ্চকর যুগের সমাপ্তির পথে

318

36314_Federar

খেলাধুলা ডেস্ক: সময়ের বিবর্তনে টেনিসের একটি রোমাঞ্চকর যুগের সমাপ্তি হতে চলেছে। এ যুগ আর কখনো ফিরে আসবে কি-না তা হলফ করে বলার মতো দর্শক পাওয়া মুশকিল। রজার ফেদেরার ও রাফায়েল নাদাল। টেনিস ইতিহাসে সবচেয়ে উত্তেজনা ও রোমাঞ্চকর জুটি মনে করা হয় এটিকে। ২০০৮ সালে উইম্বলডনে তাদের মধ্যকার পাঁচ সেটের লড়াইকে এখন পর্যন্ত সর্বকালের সেরা বলে অবিহিত করেন অনেকে। টেনিস কোর্টে এই দুই খেলোয়াড় টানা এক যুগ দেখিয়েছেন একচ্ছত্র দাপট। দুইজন মিলেন জিতেছেন ৩১টি গ্রান্ড স্লাম শিরোপা। ১৭ শিরোপা জিতে পিট সাম্প্রাসকে টপকে আগেই নিজেকে কিংবদন্তি পর্যায়ে নিয়ে গেছেন সুইস তারকা ফেদেরার। অন্যদিকে ক্লে কোর্টের রাজা নাদাল জিতেছেন ১৪ গ্রান্ড স্লাম শিরোপা। এরমধ্যে ফ্রেঞ্চ ওপেনেই সর্বাধিক ৯ শিরোপা। কিন্তু সময়ের বিবর্তন আর ইনজুরির কারণে তারা দু’জন এখন মলিন। ফেদেরার-নাদাল যুগের সমাপ্তির আভাস বেশ আগেই পাওয়া গেছে। আর এখন সেটা বাস্তব হতে চলেছে। টেনিস র‌্যাঙ্কিংয়ের দিকে তাকালেই সেটা স্পষ্ট বুঝা যায়। এই দুই কিংবদন্তিই র‌্যাঙ্কিংয়ে সেরা চারের বাইরে। নাদাল পাঁচ নম্বরে থাকলেও ফেদেরার আছেন সাত নম্বরে। শীর্ষে আছেন যথাক্রমে নোভাক জকোভিচ ও অ্যান্ডি মারে। ২০০৩ সাল থেকে ফেদেরার এবং নাদাল কখনো একই সঙ্গে র‌্যাঙ্কিংয়ের সেরা চার থেকে বের হননি। কিন্তু এবার সেটা হলো। সর্বশেষ ২০০৩ সালে তারা দু’জন একসঙ্গে সেরা চারের বাইরে ছিলেন। তখন ফেদারের ছিলেন পঞ্চম স্থানে। আর তরুণ নাদাল ছিলেন ৭৬ নম্বরে। এই জুটির পুরোপুরি উত্থান শুরু ২০০৩ সাল থেকে। ওই বছর উইম্বলডনের শিরোপা জিতে প্রথম গ্রান্ড স্লাম জয়ের কৃতিত্ব দেখান ফেদেরার। পরের বছর অস্ট্রেলিয়ান, উইম্বলডন ও ইউএস ওপেন- এই তিন গ্রান্ড স্লাম জেতেন। আর নাদালের গ্রান্ড স্লাম জয় শুরু হয় ২০০৫ সালে। প্রথমবাররে মতো ফ্রেঞ্চ ওপেনের শিরোপা জেতেন তিনি। এরপর ক্লে কোর্টের এই লড়াইয়ের রাজা বনে যান তিনি। কিন্তু সময় এখন পাল্টেছে। তরুণ খেলোয়াড়দের হারতে গেলে তাদের ঘাম ছুটে যায়। শিরোপাও জেতেন কালেভাদ্রে। নাদাল সর্বশেষ গ্রান্ড স্লাম শিরোপা জিতেছেন ২০১৪ সালে ফ্রেঞ্চ ওপেনে। অন্যাদিকে রজার ফেদেরারের সর্বশেষ গ্রান্ড স্লাম শিরোপা ২০১২ সালে উইম্বলডনে। ফেদারের বয়স এখন ৩৫। আর নাদালেন ৩০। দু’জনই প্রায় ইনজুরিতে থাকেন। কোর্টে ফিরলেও শিরোপার কাছে যেতে পারেন খুব কম।