টেকসই উন্নয়নে দক্ষ জনসংখ্যার গুরুত্ব অপরিসীম

87

চুয়াডাঙ্গা ও মেহেরপুরে বিশ্ব জনসংখ্যা দিবস পালন, আলোচনা সভায় বক্তারা
সমীকরণ প্রতিবেদন:
চুয়াডাঙ্গা ও মেহেরপুরে বিশ্ব জনসংখ্যা দিবস পালিত হয়েছে। এ উপলক্ষে গতকাল শনিবার পৃথক সময়ে আলোচনা সভা, সনদপত্র ও পুরস্কার বিতরণ অনু্িঠত হয়েছে।
চুয়াডাঙ্গা:
বিশ্ব জনসংখ্যা দিবস-২০২০ উপলক্ষে চুয়াডাঙ্গায় আলোচনা সভা ও সনদপত্র বিতরণ অনুষ্ঠিত হয়েছে। গতকাল শনিবার সকাল সাড়ে ১০টায় অনলাইন প্লাটফর্মে জুম অ্যাপসের মাধ্যমে এ আলোচনা সভা অনুষ্ঠিত হয়। সভায় জুম অ্যাপে প্রধান অতিথি হিসেবে যুক্ত থেকে বক্তব্য দেন চুয়াডাঙ্গা-১ আসনের সংসদ সদস্য বীর মুক্তিযোদ্ধা সোলায়মান হক জোয়ার্দ্দার ছেলুন। প্রধান অতিথির বক্তব্যে তিনি বলেন, ‘মাঠপর্যায়ের কর্মীদেরকে দিয়ে সাধারণ মানুষকে সচেতন করতে হবে। কোভিড-১৯ এর চিকিৎসাসহ পরিবার পরিকল্পনা এবং মা-শিশু স্বাস্থ্যসেবা কার্যক্রম আরও জোরদার করে ভবিষ্যৎ প্রজন্মের জন্য একটি নিরাপদ জাতি গঠনে আমাদের সদা প্রস্তুত থাকতে হবে। তাহলেই দেশ আরও এগিয়ে যাবে, জাতি হিসেবে আমরা দেশকে বিশ্বের দরবারে উচ্চ মর্যাদার আসনে অধিষ্ঠিত করতে সক্ষম হব। জনসংখ্যাকে পরিণত করতে হবে জনসম্পদে।’
সভাপতির বক্তব্যে চুয়াডাঙ্গা জেলা প্রশাসক নজরুল ইসলাম সরকার বলেন, বাংলাদেশ বিশ্বের ঘনবসতিপূর্ণ দেশগুলোর অন্যতম। ভূ-আয়তনের তুলনায় এ দেশের জনসংখ্যা অনেক বেশি। এ বিশাল জনগোষ্ঠীর দৈনন্দিন চাহিদা তথা খাদ্য, বস্ত্র, বাসস্থান, কর্মসংস্থান, যোগাযোগসহ অন্যান্য অবকাঠামো নির্মাণ ও উন্নয়নের গতিধারা অব্যাহত রাখতে প্রতিনিয়ত ভূমি, পানিসহ অন্যান্য প্রাকৃতিক সম্পদের ওপর মাত্রাতিরিক্ত চাপ পড়ছে। এতে একদিকে প্রাকৃতিক ভারসাম্য নষ্ট হচ্ছে, অন্যদিকে নানা প্রাকৃতিক দুর্যোগের ফলে জানমালের ক্ষতিসহ উন্নয়ন ও অগ্রগতি বাধাগ্রস্থ হচ্ছে। এরই ফলশ্রুতিতে এ বছর মহামারি কোভিড-১৯ এর কারণে বাংলাদেশসহ পুরো বিশ্ব বিপর্যস্ত। এ পরিপ্রেক্ষিতে জনসংখ্যাকে কাক্সিক্ষত মাত্রায় রেখে বিদ্যমান সম্পদের পরিবেশবান্ধব ও সর্বোত্তম ব্যবহার নিশ্চিত করতে হবে। টেকসই উন্নয়নে পরিকল্পিত ও দক্ষ জনসংখ্যার গুরুত্ব অপরিসীম।
অনুষ্ঠানে বিশেষ অতিথি হিসেবে জুম অ্যাপে যুক্ত থেকে বক্তব্য দেন চুয়াডাঙ্গার পুলিশ সুপার জাহিদুল ইসলাম, সিভিল সার্জন ডা. এ এস এম মারুফ হাসান এবং চুয়াডাঙ্গা জেলা প্রশাসকের সম্মেলন কক্ষে বিশেষ অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন চুয়াডাঙ্গার অতিরিক্ত জেলা ম্যাজিস্ট্রেট মনিরা পারভীন, অতিরিক্ত জেলা প্রশাসক (সার্বিক) মোহাম্মদ ইয়াহ্ ইয়া খান, অতিরিক্ত জেলা প্রশাসক (রাজস্ব) জাহিদুল ইসলাম, জেলা পরিবার পরিকল্পনা কর্মকর্তা দীপক কুমার শাহা প্রমুখ।
দামুড়হুদা:

‘মহামারি কোভিড-১৯ প্রতিরোধ করি, নারী ও কিশোরীর সুস্বাস্থ্যর অধিকার নিশ্চিত করি’ এ স্লোগানে বিশ্ব জনসংখ্যা দিবস-২০২০ উপলক্ষে দামুড়হুদায় ভার্চুয়াল মিটিং ও পুরস্কার বিতরণ অনুষ্ঠিত হয়েছে। মা ও শিশু স্বাস্থ্য ও পরিবার পরিকল্পনা সুষ্ঠু সেবা প্রদান করার জন্য সব পরিবার পরিকল্পনা কর্মকর্তা ও কর্মীদের হাতে ক্রেস্ট তুলে দেন দামুড়হুদা উপজেলা স্বাস্থ্য ও পরিবার পরিকল্পনা কর্মকর্তা আবু হেনা মোহাম্মদ জামাল শুভ। গতকাল শনিবার সকাল ১০টায় উপজেলা পরিষদের সভাকক্ষে এ পুরস্কার বিতরণ অনুষ্ঠানের আয়োজন করা হয়। করোনাকালীন সময়ে মা ও শিশুস্বাস্থ্য ও পরিবার পরিকল্পনা সুষ্ঠু সেবা নিশ্চিত করার লক্ষ্যে শ্রেষ্ঠ পুরস্কার ক্রেস্ট দেন সহকারী উপজেলা পরিবার পরিকল্পনা কর্মকতা হোসনে মোবারক, সহকারী পরিবার কল্যাণ কর্মকর্তা মনোয়ারা বেগম, নতিপোতা পরিবার কল্যাণ সহকারী আইরিন জান্নাতুন, দামুড়হুদা পরিবার পরিকল্পনা পরিদর্শক আতিকুর রহমান, কার্পাসডাঙ্গা পরিবার কল্যাণ পরিদর্শিকা রিজিয়া খাতুন ও জুড়ানপুর স্বাস্থ্যও পরিবার কল্যাণ কেন্দ্র স্যাকমো আব্দুল হান্নান। সার্বিক সহযোগিতা করেন উপজেলা পরিবার পরিকল্পনা সহকারী মশিউর রহমান ও অফিস সহায়ক রবিউল হোসেন।
মেহেরপুর:

মেহেরপুর জেলা পরিবার পরিকল্পনা বিভাগের উদ্যোগে বিশ্ব জনসংখ্যা দিবস পালন করা হয়েছে। গতকাল শনিবার সকাল ১০টার দিকে মেহেরপুর জেলা প্রশাসকের সম্মেলনকক্ষে আলোচনা সভা ও পুরস্কার বিতরণের মধ্য দিয়ে দিবটি পালন করা হয়। মেহেরপুর পরিবার পরিকল্পনা বিভাগের উপপরিচালক বিকাশ কুমার দাসের সভাপতিত্বে আলোচনা সভায় প্রধান অতিথি ছিলেন মেহেরপুর জেলা প্রশাসক ড. মোহাম্মদ মুনসুর আলম খান। অনুষ্ঠানে বিশেষ অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন অতিরিক্ত জেলা প্রশাসক তৌফিকুর রহমান, সদর উপজেলা পরিষদের চেয়ারম্যান অ্যাড. ইয়ারুল ইসলাম। অন্যদের মধ্যে বক্তব্য দেন বুড়িপোতা ইউনিয়নের চেয়ারম্যান মো. শাহ্জামান। আলোচনা সভা শেষে পরিবার পরিকল্পনা কাজে বিশেষ অবদান রাখায় জেলা পর্যায়ে ৮ জনকে পুরস্কৃত করা হয়। জেলা পর্যায়ে পুরস্কারপ্রাপ্তরা হলেন- মেহেরপুর জেলা পর্যায়ের শ্রেষ্ঠ পরিবার কল্যাণ সহকারী মেহেরপুর সদর উপজেলার কুতুবপুর ইউনিয়ন পরিবার কল্যাণ সহকারী ফিরোজা বেগম, শ্রেষ্ঠ পরিবার কল্যাণ পরিদর্শিকা গাংনী উপজেলার বাউট ইউনিয়ন স্বাস্থ্য ও পরিবার কল্যাণ কেন্দ্রের মনোয়ারা খাতুন, শ্রেষ্ঠ পরিবার পরিকল্পনা পরিদর্শক সদর উপজেলার কুতুবপুর ইউনিয়নের পরিবার পরিকল্পনা পরিদর্শক আজাদ রহমান, শ্রেষ্ঠ উপসহকারী কমিউনিটি মেডিকেল অফিসার সদর উপজেলা আমদহ স্বাস্থ্য ও পরিবার কল্যাণ কেন্দ্রের উপসহকারী কমিউনিটি মেডিকেল অফিসার রফিকুল আলম, শ্রেষ্ঠ ইউনিয়ন স্বাস্থ্য ও পরিবার কল্যাণ কেন্দ্র সদর উপজেলার বুড়িপোতা স্বাস্থ্য ও পরিবার কল্যাণ কেন্দ্র, শ্রেষ্ঠ ইউনিয়ন পরিষদ মেহেরপুর সদর উপজেলার বুড়িপোতা ইউনিয়ন পরিষদ, শ্রেষ্ঠ উপজেলা পরিষদ মেহেরপুর সদর উপজেলা পরিষদ এবং বেসরকারি স্বেচ্ছাসেবী সংস্থা (ক্লিনিক ভিত্তিক) মেহেরপুর সূর্যের হাসি ক্লিনিককে পুরস্কার প্রদান করা হয়। পুরস্কার বিতরণ অনুষ্ঠানে অন্যদের মধ্যে মেহেরপুর মা ও শিশু কল্যাণ কেন্দ্রের মেডিকেল অফিসার ডা. রোমানা হেলালি জুশি সেখানে উপস্থিত ছিলেন।
গাংনী:

মেহেরপুরের গাংনীতে সামাজিক দূরত্ব বজায় রেখে বিশ^ জনসংখ্যা দিবস পালিত হয়েছে। গতকাল শনিবার সকালে দিবসটি উপলক্ষে গাংনী উপজেলা পরিষদের সম্মেলনকক্ষে আলোচনা সভা ও সনদ বিতরণ অনুষ্ঠিত হয়েছে। অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথি ছিলেন মেহেরপুর জেলা আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক ও উপজেলা পরিষদের চেয়ারম্যান এম এ খালেক। উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা আর এম সেলিম শাহনেওয়াাজের সভাপতিত্বের অনুষ্ঠানে উপস্থিত ছিলেন উপজেলা পরিষদের মহিলা ভাইস চেয়ারম্যান ফারহানা ইয়াসমিন ও পরিবার পরিকল্পনা জেলা কনসালটেন্ট ডা. রফিকুল ইসলামসহ পরিবার পরিকল্পনার কার্যালয়ের বিভিন্ন পর্যায়ের কর্মকর্তাবৃন্দ। অনুষ্ঠানে গাংনী উপজেলা শ্রেষ্ঠ ইউনিয়ন পরিষদের সনদ পায় মটমুড়া ই্উনিয়ন। মটমুড়া ইউনিয়ন শ্রেষ্ঠ ইউনিয়ন পরিষদ হওয়ায় উপজেলার বিভিন্ন এলাকারা মানুষ ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান সোহেল আহম্মেদকে অভিনন্দন জানিয়েছেন।