ঝিনাইদহে ধানের শীষের ৩ প্রার্থীর নির্বাচন প্রত্যাখান

182

ঝিনাইদহ অফিস: ঝিনাইদহের ধানের শীষ প্রতিকের তিন প্রার্থী সুষ্ঠু ও নিরপেক্ষ নির্বাচনের দাবিতে নির্বাচন প্রত্যাখান করেছেন। গতকাল রোববার দুপুরে লিখিত ও সাংবাদিক সম্মেলন করে তিন প্রার্থী নির্বাচন প্রত্যাখানের ঘোষনা দেন। ঝিনাইদহ-৩ (কোটচাঁদপুর ও মহেশপুর) আসনে ধানের শীষের প্রার্থী জামায়াত নেতা মাওলানা মতিয়ার রহমান দুপুরে ভোট বর্জনের ঘোষণা দেন। তার এজেন্টদের কেন্দ্রে প্রবেশ করতে না দেওয়া, ভোটারদের কেন্দ্রে উপস্থিত হতে বাঁধা দেওয়া ও নির্বাচনী পরিবেশ না থাকার অভিযোগ এনে প্রার্থীর প্রধান নির্বাচনী এজেন্ট ফারুক আহাম্মেদ এক প্রেস বিজ্ঞপ্তির মাধ্যমে এ তথ্য জানান। এ আসনের ধানের শীষের প্রার্থী মাওলানা মতিয়ার রহমান জেলে থাকায় তার পক্ষে নির্বাচন পরিচালনা করেন প্রধান এজেন্ট ফারুক আহাম্মেদ। তিনি মুঠোফোনে অভিযোগ করেন মহেশপুর কোটচাঁদপুরে পুলিশ ও দলীয় ক্যাডার দিয়ে চরম বিভীষিকা পরিবেশ তৈরী করে ভোট ডাকাতির উৎসব পালন করা হয়েছে। ঝিনাইদহ-১ আসনে ধানের শীষ প্রতীকের প্রার্থী এ্যাড. আসাদুজ্জামান কেন্দ্র দখল, জাল ভোট ও পোলিং এজেন্ট না দেওয়ার লিখিত অভিযোগ তুলে ভোট প্রত্যাখান করেন। শৈলকুপা উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা উসমান গণির কাছে লিখিত দেন। এর কিছুক্ষন পর ঝিনাইদহ-৪ আসনে ধানের শীষ প্রতীকের প্রার্থী সাইফুল ইসলাম ফিরোজ পুনঃ নির্বাচনের দাবিতে ভোট প্রত্যাখান করেন। সাংবাদিক সম্মেলনে তিনি অভিযোগ করেন ঝিনাইদহ-৪ আসনে কোন কেন্দ্রেই তার এজেন্ট দিতে দেওয়া হয়নি। ভোটারদের পথে পথে মারধর করা হয়েছে। বারোবাজার কয়েক স্থানে হামলা হয়েছে। জেলা প্রশাসক ও জেলা রিটার্নিং কর্মকর্তা সরোজ কুমার নাথ ভোট প্রত্যাখানের বিষয়ে বলেন, কোন প্রার্থীর ভোট বর্জনের খবর তার জানা নেই। কেউ তাকে কিছু বলেনি।