ঝিনাইদহে চিকিৎসকসহ আরও ১২ জনের করোনা শনাক্ত

89

ঝিনাইদহ অফিস:
রাস্তাঘাটে গিজগিজ করছে মানুষ। যানবাহনও ফাঁকা নেই। ইজিবাইক, ভটভটি ও নছিমন-করিমনে ঠাসাঠাসি মানুষ। হাট-বাজারও ফিরেছে সেই পুরোনো চেহারায়। গ্রামগঞ্জের বাজারঘাটে চায়ের দোকানে জটলা। শহরের অলি-গলিতে রাতের পর উদ্দেশ্যহীন যুবকদের ঘোরাঘুরি। সবকিছু দেখে মনে হচ্ছে ঝিনাইদহবাসীর কাছে করোনাভাইরাস এখন ডেম কেয়ার। তাই চলাফেরায়ও ডোন্ট কেয়ার ভাব। করোনা আতঙ্ক ও সরকারি কোনো বিধি নিষেধ মানুষের মনে দাগ কাটছে না। ফলে জেলায় থাবা বিস্তার করে চলেছে করোনাভাইরাস। এদিকে, ঝিনাইদহের বিশিষ্ট গাইনি চিকিৎসক ও যশোর আদ্ব-দীন মেডিক্যাল কলেজ হাসপাতালের অধ্যাপক ডা. হাসানুজ্জামানসহ ঝিনাইদহে নতুন করে আরও ১২ জন করোনায় আক্রান্ত হয়েছেন। এ নিয়ে জেলায় করোনায় আক্রান্তের সংখ্যা দাঁড়াল ৩৭৮ জন।
সিভিল সার্জন ডা. সেলিনা বেগম জানান, গতকাল শুক্রবার সকালে কুষ্টিয়া ল্যাব থেকে ঝিনাইদহে ৪৯টি রিপোর্ট এসেছে। এর মধ্যে ১২টি পজিটিভ। এলাকাভিত্তিক আক্রান্তদের মধ্যে শহরের নেভি অফিস, দুঃখি মাহমুদ সড়ক, র‌্যাব অফিস, আদর্শপাড়া ও পাগলাকানাই, কালীগঞ্জ উপজেলার বারোবাজার, চাপরাইল, বলিদাপাড়া ও নিয়ামতপুর, শৈলকুপা উপজেলার দুধসর, গোসাইডাঙ্গা ও কাতলাগাড়ি এবং মহেশপুরের পুরন্দরপুর ও ফতেপুর এলাকায় আক্রান্ত হয়েছেন। এ পর্যন্ত আক্রান্ত ৩৭৮ জনের মধ্যে সুস্থ হয়েছেন ১২৮ জন। হাসপাতালে ভর্তি রোগীর সংখ্যা ২০ জন। জেলায় মোট মৃত্যুর সংখ্যা ৭ জন।