ঝিনাইদহে করোনায় আক্রন্ত হয়ে ব্যাংক কর্মকর্তার মৃত্যু

71

ঝিনাইদহ অফিস:
ঝিনাইদহ অস্থায়ী কোভিড হাসপাতালে চিকিৎসাধীন অবস্থায় প্রথম একজন ব্যাংক কর্মকর্তার মৃত্যু হয়েছে। এ নিয়ে ঝিনাইদহে করোনায় ১১ জনের মৃত্যু হলো। মৃত ব্যাংক কর্মকর্তার নাম মো. ওয়াজিউল্লাহ। গত বৃহস্পতিবার সন্ধ্যার দিকে তাঁর মৃত্যু হয়। তিনি জেলা শহরের চানপাড়া গ্রামের মাওলানা আবদুল কাদেরের ছেলে ও সোনালী ব্যাংকের গাড়াগঞ্জ শাখায় অফিসার পদে কর্মরত ছিলেন। তাঁর গ্রামের বাড়ি শৈলকুপার দিগনগর ইউনিয়নের হড়রা গ্রামে।
পারিবারিক সূত্রে জানা গেছে, করোনা উপসর্গ দেখা দিলে নমুনা পরীক্ষার জন্য দেওয়া হয়। বৃহস্পতিবার দুপুর ১২টার দিকে নমুনা পরীক্ষার ফলাফলে তাঁর করোনা পজিটিভ ধরা পড়ে এবং বিকেলেই তাঁকে ঝিনাইদহ করোনা হাসপাতালে ভর্তি করা হয়। ঝিনাইদহ ইসলামিক ফাউন্ডেশন ঝিনাইদহের উপপরিচালক আবদুল হামিদ জানান, সন্ধ্যার দিকে ব্যাংকার ওয়াজিউল্লাহ করোনায় আক্রান্ত হয়ে মারা যান। তিনি বলেন, ইসলামিক ফাউন্ডেশন গঠিত দাফন কমিটির সদস্যরা রাত ১০টার দিকে মৃত ব্যক্তির জানাজা শেষ করে চানপাড়া গ্রামে দাফন করেন। এ নিয়ে ২৫টি লাশ দাফন সম্পন্ন করছেন ইসলামিক ফাউন্ডেশনের লাশ দাফন কমিটির সদস্যরা। এদিকে, জেলা স্বাস্থ্য বিভাগ সূত্রে জানা গেছে, নতুন করে ঝিনাইদহ জেলায় ২৭ জনের শরীরে করোনা শনাক্ত হয়েছে। সর্বমোট জেলায় আক্রান্তের সংখ্যা ৫৮৭ জনে দাঁড়িয়েছে। এর মধ্যে মৃত্যু হয়েছে ১১ এবং সুস্থ হয়েছেন ১৯২ জন। বর্তমানে কোভিড হাসপাতালে ভর্তি হয়ে চিকিৎসা নিচ্ছেন ২১ জন।