ঝিনাইদহের নিচপুটিয়া গ্রামে কৃষক মহিদুল ইসলাম হত্যাকান্ডে র‌্যাবের অভিযান স্বামী হত্যার দায় স্বীকার করে স্ত্রী শাহানাজের জবানবন্দি

194

Jhenidah-hasbend-killed--pi

ঝিনাইদহ অফিস: ঝিনাইদহ সদর উপজেলার নিচপুটিয়া গ্রামের কৃষক মহিদুল ইসলাম হত্যার মুল পরিকল্পনাকারী স্ত্রী শাহানাজ পারভীন আদালতে ১৬৪ ধারায় স্বীকারোক্তি মুলক জবানবন্দি দিয়েছেন। সোমবার বিকেলে ঝিনাইদহের জুডিসিয়াল ম্যাজিষ্ট্র্রেট কাজী আশরাফুজ্জামান এর আদালতে এ জবানবন্দি প্রদাণ করে। রোববার সকালে সদর উপজেলা নিচপুটিয়া গ্রামের মাঠ থেকে কৃষক মহিদুল ইসলামের লাশ উদ্ধার করে পুলিশ। ঘটনার দিন বিকেলে নিহতের পিতা আব্দুস সালাম বাদী হয়ে ঝিনাইদহ সদর থানায় ৩জনকে আসামী করে একটি মামলা দায়ের করে। র‌্যাব-৬, সিপিসি-২ ঝিনাইদহ ক্যাম্পের কোম্পানী কমান্ডার মেজর মনির আহম্মেদ জানান, মামলা দায়েরের পর ঝিনাইদহ র‌্যাব-৬ মামলার তদন্ত শুরু করে। স্ত্রীর পরকীয়ার কারণে কৃষক মহিদুল হত্যার বিষয়টি বেরিয়ে এলে র‌্যাব স্ত্রী শাহানাজ পারভীনকে আটক করে আদালতে সোপর্দ করে। পরে সোমবার বিকেলে বিচারকের সামনে স্বামী হত্যার দায় স্বীকার করে স্ত্রী শাহানাজ পারভীন। র‌্যাব-৬ জানায়, ওই গ্রামের কাওসার আলীর ছেলে বকুলের সাথে শাহানাজ পারভীনের দীর্ঘদিন যাবত পরকীয়া চলে আসছিল। এরই জের ধরে শনিবার রাতে কৃষক মহিদুল ইসলামকে হত্যা করা হয়। বকুলকে গ্রেফতার করলে হত্যাকান্ডের পুরো মোটিভ উদ্ধার হবে বলে এলাকাবাসীর ধারণা।