জীবননগর পৌর ও উপজেলা বিএনপির মতবিনিময় সভায় কেন্দ্রীয় নেতা বাবু খান

287

আন্দোলন করে আমাদের রাজপথে টিকে থাকতে হবে
জাহিদুল ইসলাম মামুন: বাংলাদেশ জাতীয়তাবাদী দল বিএনপি জীবননগর উপজেলা ও পৌর শাখার উদ্যোগে মতবিনিময় সভা অনুষ্ঠিত হয়েছে। গত শনিবার সকাল ১০টার সময় আন্দুলবাড়ীয়াস্থ বাবু খানের নিজ বাসভবনে এ মতবিনিময় সভা অনুষ্ঠিত হয়। উপজেলা বিএনপির সভাপতি আক্তারুজ্জামানের সভাপতিত্বে প্রধান অতিথি হিসেবে বক্তব্য রাখেন বিএনপি’র কেন্দ্রীয় কমিটির উপ-কোষাধ্যক্ষ, জেলা বিএনপির ১নং সিনিয়র যুগ্ম আহবায়ক, বিজিএমই’র সহ-সভাপতি, আসন্ন একাদশ জাতীয় সংসদ নির্বাচনে চুয়াডাঙ্গা-২ আসনে বিএনপির মনোনয়ন প্রত্যাশী আলহাজ¦ মাহমুদ হাসান খান বাবু।
প্রধান অতিথির বক্তব্যে বাবু খান বলেন, আবেগ দিয়ে রাজনীতি হয় না, রাজনীতিতে নেতৃত্ব দিতে হলে উদার মানসিকতার পরিচয় দিতে হবে। তবেই নেতৃত্ব দেওয়া সম্ভব। তিনি আরো বলেন, গণতন্ত্র হত্যায় সরকারের যারা বিভিন্ন অপকর্মে লিপ্ত আছেন, যারা মানুষের অধিকার কেড়ে নিচ্ছে তাদের দিন ফুরিয়ে এসেছে। এ সরকারের বিরুদ্ধে আমাদের উঠে দাঁড়ানোর পালা এসেছে। মানুষের অধিকারকে ফিরিয়ে আনার জন্য সকল ভয়ভীতি, জেল জুলুমকে উপেক্ষা করে গণতন্ত্রের সংগ্রামে জাতীয়তাবাদীমনা সবাইকে একযোগে কাজ করতে হবে। আন্দোলন করে আমাদের রাজপথে টিকে থাকতে হবে। কারণ আন্দোলন ছাড়া আমাদের সামনে আর কোনো বিকল্প পথ নেই। তিনি খালেদা জিয়ার নেতৃত্ব সকল রাজনৈতিক দলকে ঐক্যবদ্ধ করে গণতন্ত্র ফিরিয়ে আনার আহ্বান জানান।
সভায় বক্তব্য রাখেন উপজেলা বিএনপি’র সাধারণ সম্পাদক ও আন্দুলবাড়ীয়া ইউপির সাবেক চেয়ারম্যান আনোয়ার হোসেন খান খোকন, উপজেলা বিএনপির সহ-সভাপতি ও উথলী ইউপির চেয়ারম্যান আবুল কালাম আজাদ, সাংগঠনিক সম্পাদক ডা. ওসমান গনী, পৌর বিএনপির সভাপতি শাহাজাহান কবির, সাধারণ সম্পাদক শামসুজ্জামান ডাবলু, সহ-সভাপতি আ. রশিদ, সাংগঠনিক সম্পাদক নাসির ইকবাল ঠান্ডু, আন্দুলবাড়ীয়া ইউনিয়ন বিএনপির সভাপতি আতিয়ার রহমান, সাধারন সম্পাদক মোস্তাফিজুর রহমান সোনা, সাংগঠনিক সম্পাদক আজিম খান, উথলী ইউনিয়ন বিএনপির সাধারন সম্পাদক সেলিম রেজা, রায়পুর ইউনিয়ন বিএনপির সভাপতি রেজাউল ইসলাম, সাধারন সম্পাদক মতিয়ার রহমান, হাসাদাহ ইউনিয়ন বিএনপির সভাপতি কামাল উদ্দীন সিদ্দিকী।
এসময় উপস্থিত ছিলেন বাঁকা ইউনিয়ন বিএনপির সাধারণ সম্পাদক মুন্সী আবুল কাশেম, সীমান্ত ইউনিয়ন বিএনপির সাধারণ সম্পাদক বদর উদ্দীন বাদল, মনোহারপুর ইউনিয়ন বিএনপির উপজেলা যুবদল নেতা কামরুজ্জামান কামরুল, সীমান্ত ইউপি চেয়ারম্যান ও যুবদল নেতা ময়েন উদ্দীন ময়েন, যুবদল নেতা সাইফুল ইসলাম, সাবেক সাংগঠনিক সম্পাদক আলী হোসেন, কেডিকে ইউনিয়ন বিএনপির অন্যতম নেতা মনোয়ার হোসেন মাস্টার, সাবেক সেনা সদস্য শহিদুল ইসলাম, রফিউল আলীম, আমিনুল মেম্বর, জাহিদুল ইসলাম টিপু মেম্বর, ঈদবারী মেম্বার, ওমেদুল মেম্বার, ইচ্ছামুল ইসলাম, ফজলে করীম, শফিউদ্দীন-১, শফিউদ্দীন শফি-২, শুকুর আলী, বাবু, তপন, বজলু, আবু জাফর, জিয়া, সলেমান, মন্টু, আক্তার, ইয়া, লাল, সাইদুলসহ আরো অনেকে।