জীবননগর ডিগ্রি কলেজের শিক্ষকদের সামনে বহিরাগত ছাত্রের হাতে কলেজে ছাত্রকে পেটানোর অভিযানপ্রতিবাদে পদক্ষেপ নেই কলেজ শিক্ষকদের! পুলিশি আগমনে বন্ধ হলো বিক্ষোভ মিছিল

254

bn

জীবননগর অফিস: জীবননগর ডিগ্রি কলেজের শিক্ষকদের সামনে প্রকাশ্য ২ছাত্রকে কলেজের ভিতরে বহিরাগত ছাত্ররা পিটিয়েছে বলে অভিযোগ উঠেছে। জানা গেছে, গতকাল মঙ্গলবার বিকাল সাড়ে ৩টায় জীবননগর ডিগ্রি কলেজে ১বর্ষের ছাত্র/ছাত্রীদের পরীক্ষা চলাকালিন বহিরাগত ছাত্ররা কলেজের ভিতরে ঢুকে পিয়ারাতলা গ্রামের ওলিউর রহমানের ছেলে কলেজের ১ম বর্ষের ছাত্র তাজিম ও রজব আলীর ছেলে লাদেনকে পিটিয়ে আহত করে । এদিকে কলেজের ভিতরে বহিরাগত ছাত্ররা কলেজে প্রবেশ করে শিক্ষকের সামনে কলেজের ছাত্রদের পিটিয়ে আহত করায় শিক্ষকরা কোন প্রতিবাদ না করায় কলেজে ছাত্ররা একটি বিক্ষোভ মিছিল বের করেন অবশেষে পুলিশ কলেজে এসে তা বন্ধ করেদেন। এ ব্যাপারে আহত ২কলেজের ছাত্রদের সাথে কথা বললে তারা অভিযোগ করে বলেন আমরা ক্লাসে পরীক্ষা দেওয়ার সময় নিপা নামের একটি মেয়ে আমাদের পরীক্ষার খাতা দেখানোর জন্য বলে। তাকে আমরা খাতা দেখাতে অপরাগত জানালে সে আমাদেরকে মারার হুমকি দেয় অবশেষে আমরা পরীক্ষা দিয়ে ক্লাস থেকে বেরিয়ে আসার সাথে সাথে জীবননগর পৌরসভার ৬নং ওয়ার্ডের মৃত নজরুল ইসলামের ছেলে মামুন আমাদের শিক্ষকদের সামনে পিটাতে থাকে এবং আমাদের শাসিয়ে যায়। এ ব্যাপারে কলেজ ছাত্রী নিপার সাথে কথা বললে তিনি বলেন আমি পরীক্ষা দিচ্ছিলাম এমন সময় ৬নং ওয়ার্ড কাউন্সিলার আবুল কাশেমের ছেলে বিপ্লব আমার খাতা দেখে লেখার জন্য আমাকে বলে আমি তাকে খাতা দেখাতে রাজি না হলে সে আমাকে খারাপ ভাষায় গালিগালাজ করতে থাকে। তাকে নিষেধ করলে সে আমার গায়ে হাত তোলে। এক পর্যায় বিপ্লব ও তার বন্ধু লাদেন আমাকে বিভিন্নভাবে খারাপ ভাষায় গালিগালাজ করে থাকে এবং তারা না লিখে ক্লাস রুমে উচ্চশ্বরে চিল্লাতে থাকে আমি বিষয়টি ক্লাসে স্যারকে বললে তারা আমার উপরে চড়াও হয় এবং বিপ্লব আমার হাত ধরে ক্লাস রুমে রেখে দেয় অবশেষে শিক্ষকরা ক্লাসে এলে সে আমাকে ছেড়ে দেয়। এ দিকে বিপ্লবের সাথে কথা বললে সে জানান নিপা যে অভিযোগটি করেছে তা সম্পন্ন মিথ্যা বানোয়াট। আমি তার গায়ে হাত দিইনি এ ব্যাপারে জীবননগর ডিগ্রি কলেজের ভারপ্রাপ্ত অধ্যক্ষ আলী আকতারের সাথে কথা বললে তিনি বলেন আমি আমার গ্রামের বাড়িতে ছিলাম তবে বিষয়টি আমি শুনেছি। তবে এ বিষয় নিয়ে আমরা কলেজে বসবো। একটি সুত্রে জানা গেছে জীবননগর ডিগ্রি কলেজে বহিরাগত ছাত্রদের আনাগোনার ফলে কলেজের ভাবমূতিখুন্ন হচ্ছে। এমনটি সংবাদ প্রকাশ হলেও শিক্ষকদের নেই কোন পদক্ষেপ। একটি গোপন সুত্রে জানা গেছে জীবননগর ডিগ্রি কলেজের শিক্ষার মান উন্নয়নের লক্ষে এবং বহিরাগত ছাত্র/ছাত্রীদের প্রবেশ বন্ধে এবং কলেজের প্রকৃতি ছাত্র/ছাত্রীদের পরিচয়ে কলেজ আইডি কার্ড ব্যবহার করার কথা থাকলেও এখনও পর্যন্ত কলেজ কতৃপক্ষ এ নিয়ে কোন কথাই বলেনি। যার ফলে অনেক সময় দেখা গেছে কলেজের ছাত্ররা শিক্ষকদের সামনে গেলে শিক্ষকরা চিন্তে পারে না সেই সুযোগে কলেজে প্রতিনিয়িত বহিরাগত ছাত্ররা প্রবেশ করছে যার কারণে  কলেজের ভাবমূর্তি নষ্ট হচ্ছে।