জীবননগরে পৌর কাউন্সিলর আজমের বিরুদ্ধে বাঁশ ব্যবসায়ীর ওপর হামলার অভিযোগ

58

জীবননগর অফিস:
জীবননগর পৌরসভার কাউন্সিলর খন্দকার আলী আজমের বিরুদ্ধে দলবল নিয়ে এক মুদি দোকানির ওপর হামলা চালিয়ে জখম করাসহ টাকা-পয়সা ছিনিয়ে নেওয়ার অভিযোগ উঠেছে। জখম মুদি দোকানি বাবুল গাজী জীবননগর উপজেলার লক্ষীপুর গ্রামের ব্রিজপাড়ার মৃত আব্দুল হামিদ গাজীর ছেলে। তিনি মুদি ব্যবসার পাশাপাশি বাশেঁর ব্যবসাও করেন।
ঘটনা সূত্রে জানা যায়, বাবুল গাজী দীর্ঘদিন যাবত তাঁর দোকানের পাশেই বাঁশের ব্যবসা করে আসছেন। একইস্থানে মৃত রব মোল্যার ছেলে আব্দুলও বাঁশের ব্যবসা করেন। বাঁশ বিক্রি নিয়ে গত মঙ্গলবার তাঁদের মধ্যে বাকবিতণ্ডার সৃষ্টি হয়। বাকবিতণ্ডার খবর পেয়ে জীবননগর পৌরসভার ৫নং ওয়ার্ড আওয়ামী লীগের সভাপতি পৌর কাউন্সিলর খন্দকার আলী আজম, প্রতিবেশী শুকুর আলী, তার ছেলে আলম, দেলোয়ারের ছেলে আরিফুল, সৈয়দের ছেলে জয়নালসহ বেশ কয়েকজন লাঠিসোটা নিয়ে ঘটনাস্থলে উপস্থিত হয়ে বাবুল গাজীকে মারধর করে ও তাঁর নিকট থাকা ব্যবসার ৪৫ হাজার ৫৫০ টাকা ছিনিয়ে নেয়। এ ঘটনায় গতকাল বুধবার সন্ধ্যায় বাবুল গাজী ও কাউন্সিলর খন্দকার আলী আজম একে অপরে বিরুদ্ধে জীবননগর থানায় পাল্টাপাল্টি লিখিত অভিযোগ দায়ের করেন।
এবিষয়ে বাবুল গাজী বলেন, আমি মুদিখানা ব্যবসার পাশাপাশি বাঁশের ব্যবসা করে জীবন-জীবিকা নির্বাহ করে আসছি। বাঁশ ক্রয়-বিক্রয় নিয়ে আব্দুলের সাথে আমার বিরোধ সৃষ্টি হয়। এ ঘটনায় মঙ্গলবার সন্ধ্যায় আমার সাথে আব্দুলের কথা কাটাকাটির ঘটনায় জীবননগর পৌরসভার ৫নং ওয়ার্ড আওয়ামী লীগের সভাপতি পৌর কাউন্সিলর খন্দকার আলী আজম তাঁর দলবল নিয়ে আমার দোকানে এসে আমাকে পিটিয়ে জখম করে ও আমার সঙ্গে থাকা ব্যবসার ৪৫ হাজার ৫৫০ টাকা ছিনিয়ে নেয়। তারা আমার দোকানে ঢুকে মালামাল তছনছ করেছে, আবার সেই আজম-ই এখন ক্ষমতার দাপট দেখিয়ে আমাদেরকে পুলিশ দিয়ে হয়রানী করছে। আমরাও থানায় একটি লিখিত অভিযোগ করেছি। কিন্তু পুলিশ বিবাদীদের বিরুদ্ধে কোনো পদক্ষেপ নেয়নি।
এবিষয়ে কাউন্সিলর খন্দকার আলী আজম বলেন, ‘আমি কাউকে মারিনি, বাবুল গাজীই আমাকে মেরেছে। এখন কোনো সমস্যা নেই। আমি একজন জনপ্রতিনিধি আমি কারো টাকা ছিনিয়ে নিতে পারি না। এটা আমাকে ফাঁসাতে বলা হচ্ছে।’
জীবননগর থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) সাইফুল ইসলাম বলেন, ‘আপাতত পরিস্থিতি শান্ত আছে। ঘটনার পরপরই ঘটনাস্থলে পুলিশ পাঠিয়েছিলাম। ঘটনার ব্যাপারে দুপক্ষই লিখিতভাবে অভিযোগ দিয়েছে। তদন্ত সাপেক্ষে আইনি ব্যবস্থা নেওয়া হবে।,