জমে উঠছে চুয়াডাঙ্গা জেলা ক্রীড়া সংস্থার নির্বাচন

47

নিজস্ব প্রতিবেদক:
সব জল্পনা-কল্পনার অবসান ঘটিয়ে চুয়াডাঙ্গা জেলা ক্রীড়া সংস্থার নির্বাচনে শেষ পর্যন্ত দুটি প্যানেলই প্রতিদ্বন্দ্বীতা করবে। গতকাল রোববার মনোনয়নপত্র জমাদানের শেষ দিনে মনোনয়নপত্র জমা দেওয়ার পর এ তথ্য সামনে আসে। চুয়াডাঙ্গা জেলা ক্রীড়া সংস্থার ৪ বছর মেয়াদী কার্যনির্বাহী পরিষদ নির্বাচনে প্রতিদ্বন্দ্বীতা করবে হুমায়ুন-লাড্ডু-অনিক পরিষদ ও ক্রীড়া উন্নয়ন পরিষদ। জেলা ক্রীড়া সংস্থার সাবেক সাধারণ সম্পাদক রফিকুল ইসলাম লাড্ডু নেতৃত্বাধীন হুমায়ুন-লাড্ডু-অনিক পরিষদে ২৭ জন ও চুয়াডাঙ্গা জেলা ক্রীড়া সংস্থার সর্বশেষ নির্বাচিত সাধারণ সম্পাদক নঈম হাসান জোয়ার্দ্দারের নেতৃত্বাধীন ক্রীড়া উন্নয়ন পরিষদের পক্ষে ২৪টি মনোনয়নপত্র জমা পড়েছে। আজ সোমবার মনোনয়নপত্রগুলো বাছাই শেষে বৈধ প্রতিদ্বন্দ্বী প্রার্থীর তালিকা প্রকাশ করা হবে। নানা কারণে চুয়াডাঙ্গা জেলা ক্রীড়া সংস্থার কার্যনির্বাহী পরিষদ নির্বাচন-২০২০ অত্যন্ত গুরুত্বপূর্ণ। এবারের নির্বাচনে প্রাথমিকভাবে ৩টি প্যানেল নির্বাচনে প্রতিদ্বন্দ্বীতা করার গুঞ্জন শোনা গেলেও শেষ পর্যন্ত দুটি প্যানেল নির্বাচনে অংশগ্রহণ করার লক্ষ্যে তাদের মনোনয়নপত্র জমা দিয়েছে।


হুমায়ুন কবীর মালিক-রফিকুল ইসলাম লাড্ডু-মোহাইমেন হাসান জোয়ার্দ্দার অনিক পরিষদে সহ-সভাপতি পদে হুমায়ুন কবীর মালিক, সরোয়ার হোসেন জোয়ার্দ্দার মধু, এ নাসির জোয়ার্দ্দার, ওবায়দুল হক জোয়ার্দ্দার, সাধারণ সম্পাদক পদে রফিকুল ইসলাম লাড্ডু, অতিরিক্ত সাধারণ সম্পাদক পদে মোহাইমেন হাসান জোয়ার্দ্দার অনিক, যুগ্ম-সাধারণ সম্পাদক পদে সামসুদ্দোহা মালিক হাসু, বদর উদ্দিন খান, কোষাধ্যক্ষ পদে ফজলুল হক মালিক এবং নির্বাহী সদস্য পদে সালাউদ্দিন মো. মর্তুজা, সাইদুর রহমান মালিক, শহিদুল কদর জোয়ার্দ্দার, মেহেরুল্লাহ মিলু, রকিবুল ইসলাম (ইসলাম রকিব), হামিদুর রহমান সন্টু, মোছা. সাহাজাদী, সাইদুর রহমান, হাফিজুর রহমান লাল্টু, ক্রিকেটার ইমরান হুসাইন, নাফিউল ইসলাম জোয়ার্দ্দার, হাসানুজ্জামান, রুবায়েত বিন আজাদ, সাহাবুল হোসেন, উপজেলা ক্রীড়া সংস্থার পক্ষে সংরক্ষিত পদে নাসির আহাদ জোয়ার্দ্দার, এম নুরুন্নবী ও জেলা মহিলা ক্রীড়া সংস্থার পক্ষে সংরক্ষিত পদে সেলিনা খাতুন এবং নুরুন্নাহার কাকলী।
ক্রীড়া উন্নয়ন পরিষদে সহ-সভাপতি পদে হাজী ইয়াকুব হোসেন মালিক, অধ্যক্ষ মাহবুল ইসলাম সেলিম, আব্দুল লতিফ খান যুবরাজ, ক্রীড়া ব্যক্তিত্ব সোহেল আকরাম, সাধারণ সম্পাদক পদে নঈম হাসান জোয়ার্দ্দার, অতিরিক্ত সাধারণ সম্পাদক পদে হাফিজুর রহমান, যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক পদে আব্দুস সালাম, সালাউদ্দিন বিশ্বাস, কোষাধক্ষ্য পদে টুটুল মোল্লা, নির্বাহী সদস্য মহসিন রেজা, অ্যাডভোকেট তছলিম উদ্দিন ফিরোজ, একলাছ উদ্দিন সুজন, সাজ্জাদ হোসেন, শেখ রাসেল, শিমুল হোসেন, দেলোয়ার হোসেন, মমিন খান, রোকনুজ্জামান, শফিকুল ইসলাম মালেক, রায়হান উদ্দিন, শাহিন কাদির, রাশেদুল হাসান ও উপজেলা ক্রীড়া সংস্থা থেকে সংরক্ষিত পদে খন্দকার জেহাদ-ই-জুল ফিকার।
হুমায়ুন-লাড্ডু-অনিক পরিষদের সাধারণ সম্পাদক পদে প্রতিদ্বন্দ্বীতাকারি চুয়াডাঙ্গা জেলা ক্রীড়া সংস্থার সাবেক সাধারণ সম্পাদক রফিকুল ইসলাম লাড্ডু বলেন, ‘চুয়াডাঙ্গার স্থবির ক্রীড়াঙ্গনকে আবারো সচল করার লক্ষ্যে আমার পরিষদ কাজ করবে। প্রবীন এবং নবীনের সমন্বয় ঘটিয়ে প্রকৃত ক্রীড়াবিদ, ক্রীড়া সংগঠক ও ক্রীড়াচর্চাকারীদের মাঠে ফিরিয়ে আনা হবে। একই সাথে ফিরিয়ে আনা হবে চুয়াডাঙ্গা ক্রীড়াঙ্গনের হারানো গৌরবময় অতীত।’
ক্রীড়া উন্নয়ন পরিষদের পক্ষে সাধারণ সম্পাদক পদে প্রতিদ্বন্দ্বীতাকারী চুয়াডাঙ্গা জেলা ক্রীড়া সংস্থার বর্তমান সাধারণ সম্পাদক নঈম হাসান জোয়ার্দ্দার বলেন, ‘আমার পরিষদের কার্যক্রম নিয়ে আমি এখনই কোনো কথা বলতে চাই না। যাচাই-বাছাই শেষে চুড়ান্ত প্রার্থী তালিকা ঘোষণা হলে তার পর আমাদের কার্যক্রম ও নির্বাচনী ইস্তেহার সম্পর্কে জানাবো।’
নির্বাচনে দায়িক্তপ্রাপ্ত রিটার্নিং অফিসার চুয়াডাঙ্গা জেলা প্রশাসনের নেজারত ডেপুটি কালেক্টর (এনডিসি) আমজাদ হোসেন জানান, ‘জেলা ক্রীড়া সংস্থার সাবেক সাধারণ সম্পাদক রফিকুল ইসলাম লাড্ডু নেতৃত্বাধীন হুমায়ুন-লাড্ডু-অনিক পরিষদে ২৭ জন ও চুয়াডাঙ্গা জেলা ক্রীড়া সংস্থার সর্বশেষ নির্বাচিত সাধারণ সম্পাদক নঈম হাসান জোয়ার্দ্দারের নেতৃত্বাধীন ক্রীড়া উন্নয়ন পরিষদের পক্ষে ২৪টি মনোনয়নপত্র জমা পড়েছে। আজ সোমবার মনোনয়নপত্রগুলো বাছাই শেষে বৈধ প্রতিদ্বন্দ্বী প্রার্থীর তালিকা প্রকাশ করা হবে। সব কিছু ঠিকঠাক মতই চলছে। আগামী ৩০ সেপ্টেম্বর ভোট গ্রহণ করা হবে।’