চোরাই মোটরসাইকেল বিক্রির সময় দুজন আটক

210

নিজস্ব প্রতিবেদক:
চুয়াডাঙ্গায় চোরাই মোটরসাইকেল বিক্রির সময় হাতেনাতে দুই চোরকে আটক করেছে সদর থানার পুলিশ। গতকাল সোমবার রাত সাড়ে আটটার দিকে সদর উপজেলার ভালাইপুর মোড় থেকে তাঁদের আটক করা হয়। এ সময় আটক হওয়া ব্যক্তিদের কাছ থেকে একটি ডিসকভারি মোটরসাইকেল উদ্ধার করে পুলিশ। পরে তাঁদের বিরুদ্ধে মামলা দিয়ে সদর থানায় সোপর্দ করা হয়। আটক হওয়া ব্যক্তিরা হলেন দামুড়হুদা উপজেলার ইব্রাহিমপুর গ্রামের আজিজুল হকের ছেলে সাগর আহম্মেদ নিলু (২৮) ও কুনিয়াচাঁদপুর গ্রামের মৃত আলাউদ্দীনের ছেলে জালাল উদ্দীন (৪০)।
পুলিশ সূত্রে জানা যায়, চুয়াডাঙ্গা সদর উপজেলার ভালাইপুর বাজার এলাকায় একটি চোরাই মোটরসাইকেল বিক্রি হচ্ছে, এমন একটি সংবাদ পেয়ে সদর থানার পুলিশের উপপরিদর্শক (এসআই) একরামুল হোসেন ও মুহিতুর রহমান ফোর্স ঘটনাস্থলে অভিযান পরিচালনা করেন। এ সময় দামুড়হুদা উপজেলার ইব্রাহিমপুর গ্রামের সাগর আহম্মেদ নিলু ও কুনিয়াচাঁদপুর গ্রামের জালাল উদ্দীনকে আটক করেন। এ সময় তাঁদের কাছ থেকে যশোর হ-১৫-৯১৪০ ডিজিটাল নাম্বার প্লেটের একটি ১২৫ সিসির কালো রঙের ডিসকভারি মোটরসাইকেল উদ্ধার করে পুলিশ। পরে তাঁদের সদর থানা হেফাজতে নিয়ে তাঁদের বিরুদ্ধে পুলিশ বাদী হয়ে মামলা করে। আজ আটক হওয়া ব্যক্তিদের আদালতে সোপর্দ করা হতে পারে বলে জানিয়েছে পুলিশ।
এ বিষয়ে সদর থানার পুলিশের উপপরিদর্শক (এসআই) একরামুল বলেন, গোপন সূত্রে অভিযান চালিয়ে দুজনকে আটক করা হয়। উদ্ধার করা করা হয় একটি মোটরসাইকেল। প্রাথমিক জিজ্ঞাসাবাদে আটক ব্যক্তিরা শিকার করেছে এটি একটি চোরাই মোটরসাইকেল। বেশ কিছু দিন আগে দর্শনা এলাকার শামিম নামের এক ব্যক্তির কাছ থেকে ২০ হাজার টাকা দিয়ে মোটরসাইকেলটি কেনেন তাঁরা। গতকাল এ মোটরসাইকেল বিক্রির সময় তাঁদের আটক করে থানার পুলিশ।