চুয়াডাঙ্গা পুলিশ লাইন্সের কনস্টেবল কামরুজ্জামানের ইন্তেকাল

278

চুয়াডাঙ্গা পুলিশ লাইন্সের কনস্টেবল কামরুজ্জামানের ইন্তেকাল
জানাযা নামাযে এসপি নিজাম উদ্দীনসহ সহকর্মীদের অংশ গ্রহন
Police Dead (2)নিজস্ব প্রতিবেদক: চুয়াডাঙ্গা পুলিশ লাইন্সে কর্মরত পুলিশ সদস্য কামরুজ্জামান মজনু ইন্তেকাল করেছেন (ইন্নালিল্লাহে…..রাজেউন)। মৃত্যুকালে তার বয়স হয়েছিল আনুমানিক ৫০ বছর। হৃদরোগে আক্রান্ত হয়ে রাজধানী ঢাকার একটি হাসপাতালে চিকিৎসাধীন অবস্থায় কামরুজ্জামান মজনুর মৃত্যু হয়। গতকাল শুক্রবার বেলা ১২টার দিকে তার লাশ চুয়াডাঙ্গা পুলিশ লাইন্সে পৌছায়। এরপর বাদ জুম্মা পুলিশ লাইন্স মাঠে মরহুমের নামাযের যানাজা শেষে নিজবাড়ি কুষ্টিয়া মিরপুরের বড়বাড়িয়া গ্রামের উদ্দেশ্যে লাশ নিয়ে রওনা দেয় তার পরিবার।
জানা যায়, বাংলাদেশ পুলিশের কনস্টেবল কামরুজ্জামান মজনু চুয়াডাঙ্গা পুলিশ লাইনে কর্মরত ছিলেন। হৃদরোগে আক্রান্ত হয়ে কিছুদিন আগে তিনি হাসপাতালে ভর্তি হন। পরে তাকে রাজধানী ঢাকার হার্ট ফাউন্ডেশন হাসপাতালে ভর্তি করা হয়। সেখানে চিকিৎসা নিয়ে সুস্থ্য হওয়ার পর আবারও অসুস্থ্য হয়ে হাসপাতালে চিকিৎসাধীন অবস্থায় তার মৃত্যু হয়। গতকাল শুক্রবার বেলা ১২টার দিকে কামরুজ্জামান মজনুর লাশবাহী অ্যাম্বুলেন্স এসে পৌছায় তার কর্মস্থল চুয়াডাঙ্গা পুলিশ লাইন্সে। বাদ জুম্মা সেখানে যানাজার নামায অনুষ্ঠিত হয়। যানাজায় অংশ নেন চুয়াডাঙ্গা পুলিশ সুপার মো. নিজাম উদ্দিনসহ জেলা পুলিশের কর্মকর্তা-কর্মচারিরা। এসময় শোকসন্তপ্ত পরিবারের প্রতি গভীর শোক প্রকাশ করে সমবেদনা জানান পুলিশ সুপার মো. নিজাম উদ্দিনসহ জেলা পুলিশের কর্মকর্তারা। মরহুম পুলিশ সদস্য কামরুজ্জামান মজনুর ছেলে সোহেল শোকে কাতর হয়ে পড়লে তাকে শান্তনা দিয়ে মরহুমের পরিবারের কোন সমস্যার বিষয়ে জানালে তাদের সাহায্যের আশ্বাসও দেন চুয়াডাঙ্গা পুলিশ সুপার নিজাম উদ্দিন।
চুয়াডাঙ্গা পুলিশ লাইন্সে মরহুমের যানাজা শেষে পুলিশ ভ্যানে লাশ নেয়া হয় নিজবাড়ি কুষ্টিয়ার মিরপুর উপজেলার বড়বাড়িয়া গ্রামে। সেখানে ২য় যানাজা শেষে বিকেল ৫টার দিকে গ্রাম্য কবরস্থানে দাফনকার্য সম্পন্ন হয় বলে জানা গেছে।