চুয়াডাঙ্গা ও মেহেরপুরে বিভিন্ন বিদ্যালয়ের এসএসসি ও সমমান পরীক্ষার্থীদের বিদায়, শিক্ষার্থীদের নবীনবরণ

119
Exif_JPEG_420

সমীকরণ ডেস্ক:
আগামী ৩ ফেব্রুয়ারি সারা দেশে একযোগে এসএসসি ও সমমান পরীক্ষা অনুষ্ঠিত হতে যাচ্ছে। অনুষ্ঠেয় এসএসসি ও সমমান পরীক্ষা উপলক্ষে গতকাল সোমবার চুয়াডাঙ্গা, মেহেরপুর ও ঝিনাইদহের বিভিন্ন বিদ্যালয়ে পরীক্ষার্থীদের বিদায় এবং নতুন শিক্ষার্থীদের নবীনবরণ অনুষ্ঠিত হয়।
আলমডাঙ্গা:
আলমডাঙ্গা সিদ্দিকিয়া আলিম মাদ্রাসায় দাখিল ও এসএসসি ভোকেশনাল পরীক্ষার্থীদের বিদায় ও আলিম শিক্ষার্থীদের নবীনবরণ অনুষ্ঠিত হয়েছে। গতকাল সকাল ১০টার দিকে মাদ্রাসা প্রাঙ্গণে এ বরণ ও বিদায় অনুষ্ঠিত হয়। অনুষ্ঠানে সভাপতিত্ব করেন মাদ্রাসার অধ্যক্ষ সিরাজুল ইসলাম। প্রধান অতিথি ছিলেন মাদ্রাসা পরিচালনা পরিষদের সভাপতি ও চুয়াডাঙ্গা জেলা পরিষদের সদস্য আবু মুসা। বিশেষ অতিথি ছিলেন সদস্য জসিম উদ্দিন, শিক্ষক প্রতিনিধি শফিউদ্দিন, শামিম উদ্দিন, জামাত আলী, সানাহার মণ্ডল, মুসলিমা খাতুন ও নাজনীন সুলতানা। শিক্ষক মহসিন কামালের উপস্থাপনায় অন্যদের মধ্যে উপস্থিত ছিলেন আসাদুজ্জামান, রহিদুল হক, ওমর ফারুক, ইয়াসিন মোল্লা, শফিকুর রহমান, ইয়াহিয়া, সাবিনা ইয়াসমিন, আসমা খানম, কানিজ ফাতেমা, লাইলা নাসরিনসহ সব ছাত্র-ছাত্রী ও অভিভাবকেরা।
দামুড়হুদা:
দামুড়হুদা উপজেলার বড় বলদিয়া স্কুল অ্যান্ড কলেজে বিদায় ও বরণ অনুষ্ঠিত হয়েছে। গতকাল সোমবার সকাল ১০টায় দর্শনা পৌরসভার চেয়ারম্যান মতিয়ার রহমানের সভাপতিত্বে এ বিদায় ও বরণ অনুষ্ঠান অনুষ্ঠিত হয়। অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথি ছিলেন দামুড়হুদা উপজেলার চেয়ারম্যান আলী মুনসুর বাবু। বিশেষ অতিথি ছিলেন গোলাম রহমান। এ ছাড়া অন্যদের মধ্যে উপস্থিত ছিলেন হাবিবউল্লাহ, আওয়ামী লীগের নেতা বরকত আলী, সিরাজুল ইসলাম, ইউসুফ আলী, লিয়াকত আলী, তক্কেল আলী, জিয়া উদ্দিন প্রমুখ। অনুষ্ঠানটি পরিচলনা করেন শিক্ষক মজিবার রহমান।
এদিকে, দামুড়হুদা উপজেলার নাটুদাহ মাধ্যমিক বিদ্যালয়ে গতকাল সোমবার সকাল ১০টার দিকে এসএসসি পরীক্ষার্থীদের বিদায় ও ষষ্ঠ শ্রেণির শিক্ষার্থীদের নবীনবরণ অনুষ্ঠিত হয়েছে। বিদ্যালয়টির প্রধান শিক্ষক আ. মান্নানের সভাপতিত্বে অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন বিদ্যালয়টির পরিচালনা পর্ষদের সভাপতি আওয়ামী লীগের নেতা আ. মালেক। এ সময় অনুষ্ঠানে বিশেষ অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন কার্পাসডাঙ্গা ইউনিয়ন আওয়ামী লীগের সভাপতি শাফিকুর রহমান শাফিক মাস্টার, নাটুদাহ ইউনিয়ন আওয়ামী লীগের সভাপতি হামিদুল্লাহ বিশ্বাস, এএসআই রোমেন সরকার, তালসারী মাধ্যমিক বিদ্যালয়ের সহকারী প্রধান শিক্ষক সহিদুল মাস্টার, আব্দুল্লাহ, সাংবাদিক মেহেদী হাসান মিলন, শরীফ রতন প্রমুখ।
জীবননগর:
জীবননগরে এসএসসি পরীক্ষার্থীদের বিদায় ও নতুন শিক্ষার্থীদের বরণ অনুষ্ঠিত হয়েছে। গতকাল সোমবার সকাল সাড়ে ১০টার সময় জীবননগর থানা সরকারি পাইলট মাধ্যমিক বালিকা বিদ্যালয়ের আয়োজনে ২০২০ সালের এসএসসি পরীক্ষার্থীদের বিদায় ও নতুন শিক্ষার্থীদের বরণ অনুষ্ঠিত হয়। জীবননগর উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা সিরাজুল ইসলামের সভাপতিত্বে অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথি ছিলেন জীবননগর উপজেলা পরিষদের চেয়ারম্যান হাজি হাফিজুর রহমান। বিশেষ অতিথি ছিলেন উপজেলা পরিষদের ভাইস চেয়ারম্যান আ. সালাম ঈশা, মহিলা ভাইস চেয়ারম্যান আয়েসা সুলতানা লাকী, জীবননগর পৌর মেয়র জাহাঙ্গীর আলম, প্রধান শিক্ষক যাদব কুমার প্রমাণিক ও পৌর কাউন্সিলার আবুল কাশেম। অনুষ্ঠানটি পরিচালনা করেন শিক্ষক আ খ ম সালাউদ্দিন কবির।
এদিকে, চুয়াডাঙ্গা জেলার জীবননগর উপজেলার আন্দুলবাড়ীয়া ইউনিয়নের শাহাপুর মাধ্যমিক বিদ্যালয়ের উদ্যোগে ২০২০ সালের এসএসসি পরীক্ষার্থীদের বিদায় ও ষষ্ঠ শ্রেণির নতুন ছাত্র-ছাত্রীদের নবীণবরণ অনুষ্ঠিত হয়েছে। গতকাল সোমবার বেলা ১১টায় শাহাপুর মাধ্যমিক বিদ্যালয় চত্বরে এ অনুষ্ঠানের আয়োজন করা হয়। অনুষ্ঠানে শাহাপুর মাধ্যমিক বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষক আব্দুর রহমানের সভাপতিত্বে প্রধান অতিথি হিসেবে বক্তব্য দেন শাহাপুর মাধ্যমিক বিদ্যালয় পরিচালনা কমিটির সভাপতি সোলাইমান হোসেন। স্বাগত ও সমাপনী বক্তব্য দেন শাহাপুর মাধ্যমিক বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষক আব্দুর রহমান। বিশেষ অতিথি ছিলেন আন্দুলবাড়ীয়া প্রেসক্লাবের সাধারণ সম্পাদক জাহিদুল ইসলাম মামুন। এ সময় বিদ্যালয়ের শিক্ষক-শিক্ষিকা, কর্মকর্তা-কর্মচারীদের মধ্য থেকে বক্তব্য দেন সহকারী প্রধান শিক্ষক তরিকুল ইসলাম স্বপন, সিনিয়র সহকারী শিক্ষক আওলাদ হোসেন সর্দার, আব্দুর রাজ্জাক, তানভীর রানা রাজু, বিপ্লব কুমার পাল ও মহর আলী। বিদায়ী ছাত্র-ছাত্রীদের মধ্য থেকে বক্তব্য দেন জুবায়েদ হাসান। এ সময় উপস্থিত ছিলেন শাহাপুর মাধ্যমিক বিদ্যালয় পরিচালনা কমিটির অভিভাবক সদস্য শরিফুল ইসলাম, আব্দুল মোতালেব, মশিয়ার রহমান, বিদ্যোৎসাহী সদস্য নজরুল ইসলাম নজু, সংরক্ষিত আসনের মহিলা সদস্য লাইলা আফরোজসহ বিদ্যালয়ের সব শিক্ষক-শিক্ষিকা, কর্মকর্তা-কর্মচারী, অভিভাবক ও শিক্ষার্থীরা। অনুষ্ঠান শেষে দেশের শান্তি, অগ্রগতি ও কল্যাণ কামনায় এবং বিদায়ী এসএসসি পরীক্ষার্থীদের জন্য দোয়া ও বিশেষ মোনাজাত অনুষ্ঠিত হয়। দোয়া পরিচালনা করেন শাহাপুর মাধ্যমিক বিদ্যালয়ের সহকারী ধর্ম শিক্ষক মাওলানা মো. আব্দুল মজিদ।
মেহেরপুর:
মেহেরপুর সরকারি বালিকা উচ্চবিদ্যালয়ে এসএসসি পরীক্ষার্থীদের বিদায় অনুষ্ঠান অনুষ্ঠিত হয়েছে। গতকাল সোমবার সকাল সাড়ে ১০টার দিকে বিদ্যালয় প্রাঙ্গণে এসএসসি পরীক্ষার্থীদের বিদায় অনুষ্ঠান অনুষ্ঠিত হয়। বিদায় অনুষ্ঠানে মেহেরপুর সরকারি বালিকা উচ্চবিদ্যালয়ের সহকারী প্রধান শিক্ষক মো. মিজানুজ্জামানের সভাপতিত্বে এবং বিদ্যালয়ের দশম শ্রেণির ছাত্রী ফারিয়া আফরিন এলিসা ও নাফিজা রেজার সঞ্চালনায় শিক্ষকদের পক্ষ থেকে বক্তব্য দেন আব্দুল হামিদ, আলিমুজ্জামান রিপন, কে এম খসরু পারভেজ, সৌরভ হোসেন, সেকেন্দার আলী, সাইফুর রহমান প্রমুখ। এ সময় বিদায়ী শিক্ষার্থীদের পক্ষ থেকে বক্তব্য দেয় তাসনিয়া তাহসিন, জান্নাতুল ফেরদৌস জ্যোতি, ঈশিতা আফরিন, নিলুফা ইয়াসমিন রিয়ানা, রোজা ইয়াসমিন মুন্নি, মাসুমা খাতুন ও আফ্রিনা তাবাসসুম তৃষা। অনুষ্ঠানের সভাপতি সহকারী প্রধান শিক্ষক মো. মিজানুজ্জামানের সমাপনী বক্তব্যের মধ্য দিয়ে শেষ হয় বিদায় অনুষ্ঠান। অনুষ্ঠানের শেষ পর্যায়ে বিদায়ী শিক্ষার্থীদের হাতে ফুলের তোড়া ও বিভিন্ন শিক্ষা উপকরণ তুলে দেন শিক্ষকেরা।
এদিকে, মেহেরপুর সদর উপজেলার রাধাকান্তপুরের আর আর মাধ্যমিক বিদ্যালয়ের আয়োজনে বিদ্যালয়ের এসএসসি পরীক্ষার্থীদের বিদায় ও নতুন শিক্ষার্থীদের বরণ অনুষ্ঠিত হয়েছে। অনুষ্ঠানে জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের ছাত্রজীবনের দর্শন শীর্ষক আলোচনা সভা ও দোয়া অনুষ্ঠিত হয়। গতকাল সোমবার বেলা ১১টার দিকে আর আর মাধ্যমিক বিদ্যালয় প্রাঙ্গণে এ অনুষ্ঠান অনুষ্ঠিত হয়েছে। বিদ্যালয়ের ম্যানেজিং কমিটির সভাপতি ও মেহেরপুর জেলা পরিষদের চেয়ারম্যান আলহাজ¦ গোলাম রসুলের সভাপতিত্বে অনুষ্ঠানে বিশেষ অতিথি ছিলেন জেলা আওয়ামী লীগের যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক আবুল কাশেম মাস্টার, মেহেরপুর সদর উপজেলা ভাইস চেয়ারম্যান মোমিনুল ইসলাম, লতিফুন্নেছা লতা, উপজেলা মাধ্যমিক শিক্ষা কর্মকর্তা বিনয় কুমার চাকী। এ সময় অন্যদের মধ্যে বক্তব্য দেন প্রধান শিক্ষক মো. আশরাফুজ্জামান, ফিরাতুল ইসলাম, রাজন আলী, তামিম হোসেন, শহিদুল ইসলাম প্রমুখ। অনুষ্ঠানের শুরুতেই নবাগত শিক্ষার্থীদের ফুল ছিটিয়ে বরণ করে নেওয়া হয়। পরে বিদায়ী শিক্ষার্থীদের জন্য দোয়া অনুষ্ঠিত হয় এবং তাদের হাতে বিভিন্ন শিক্ষাসামগ্রী তুলে দেওয়া করা হয়।