চুয়াডাঙ্গায় ২৪ ঘণ্টায় ১৪ জন করোনা আক্রান্ত

83

মেহেরপুরে ৫, ঝিনাইদহে ৩১ ও কুষ্টিয়ায় ৪৩ জনের করোনা শনাক্ত
নিজস্ব প্রতিবেদক:
চুয়াডাঙ্গা পৌর এলাকার ১০ জন, দামুড়হুদা উপজেলার ৪ জনসহ জেলায় নতুন করে ১৪ জন করোনা শনাক্ত হয়েছেন। গতকাল শুক্রবার কুষ্টিয়া পিসিআর ল্যাব সূত্রে এ তথ্য জানা যায়। কুষ্টিয়া মেডিকেল কলেজ পিসিআর ল্যাব চুয়াডাঙ্গার নতুন ৩০টি নমুনার ফলাফল প্রকাশ করে। উক্ত ফলাফলে ১৪ জনের রিপোর্ট পজিটিভ ও বাকি ১৬ জনের রিপোর্ট নেগেটিভ আসে। জেলায় এ নিয়ে মোট আক্রান্তের সংখ্যা দাঁড়িয়েছে ৩৬৪ জনে। গতকাল নতুন ৭ জন সুস্থ হয়েছেন। নতুন আক্রান্ত ব্যক্তিরা হলেন- চুয়াডাঙ্গা সদর উপজেলার ঝিনাইদহ বাসস্ট্যান্ড পাড়ার ২ জন, ফেরিঘাট রোডের ১ জন, বাজারপাড়া ৩ জন, পুরাতন বাজার পাড়ার ১ জন, গুলশানপাড়ার ১ জন, ইসলামপুর মাদ্রাসা মোড়ের ১ জন, এতিমখানা পাড়ার ১ জনসহ ১০ জন। দামুড়হুদা উপজেলার দর্শনা কেরু অফিসার্স কোয়ার্টারের ১ জন, পুরাতন বাজার পাড়ার ২ জন, দর্শনা শ্যামপুর গ্রামের ১ জনসহ ৪ জন।
গতকাল চুয়াডাঙ্গা স্বাস্থ্য বিভাগ করোনা আক্রান্ত সন্দেহে ১০টি নমুনা সংগ্রহ করেছে। সদর উপজেলা থেকে ৫টি ও আলমডাঙ্গা উপজেলা থেকে ৫টি নমুনাসহ সংগৃহীত ১০টি নমুনা পরীক্ষার জন্য কুষ্টিয়া মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে প্রেরণ করা হয়েছে। গতকাল জেলায় নতুন কেউ সুস্থ হয়নি। এখন পর্যন্ত জেলায় মোট সুস্থ হয়েছেন ২১২ জন। বর্তমানে চুয়াডাঙ্গা সদর হাসপাতালের আইসোলেশনে চিকিৎসাধীন রয়েছেন ১৮ জন। হোম আইসোলেশনে চিকিৎসাধীন রয়েছেন ১২৮ জন।
কুষ্টিয়া মেডিকেল কলেজ হাসপাতালের পিসিআর ল্যাবের তথ্যে জানা যায়, গতকাল ল্যাবে চুয়াডাঙ্গার ফলোআপ নমুনাসহ ৩৭টি, মেহেরপুরের ১৭টি, ঝিনাইদহের ৯৭টি, কুষ্টিয়ার ১৪২টি ও নড়াইলের ৬৪টি নমুনাসহ ৩৫৭টি নমুনা পরীক্ষা করে চুয়াডাঙ্গায় ১৪ জন, মেহেরপুরে ৫ জন, ঝিনাইদহের ৩১ জন, কুষ্টিয়ায় ৪৩ ও নড়াইলে ২২ জনসহ মোট ১১৫ জনের শরীরে করোনা শনাক্ত হয়েছে। এছাড়া কুষ্টিয়ার কুমারখালী উপজেলার ১ জন এবং ঝিনাইদহ জেলার ৩ জনের ফলোআপ রিপোর্ট পজিটিভ। বাকিগুলোর ফলাফল নেগেটিভ।
চুয়াডাঙ্গা সদর হাসপাতালের আবাসিক চিকিৎসা কর্মকর্তা (আরএমও) ডা. শামীম কবির বলেন, চুয়াডাঙ্গায় নতুন ১৪ জন করোনা আক্রান্তের মধ্যে সদর উপজেলার ১০ জন ও দামুড়হুদা উপজেলার ৪ জন রয়েছেন। প্রত্যেকের সঙ্গে মোবাইল ফোনে যোগাযোগ করা হয়েছে। সদর উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা আগামীকাল (আজ শনিবার) আক্রান্তদের বাড়ি-ঘর পরিদর্শন করে লকডাউনসহ বাড়ির অবস্থা বুঝে হোম আইসোলেশন অথবা প্রতিষ্ঠানিক আইসোলেশনের ব্যবস্থা নেবে। এছাড়া দামুড়হুদা আক্রান্ত ৪ জনের বিষয়ে উপজেলা স্বাস্থ্য কর্মকর্তাকে অবগত করা হয়েছে।
চুয়াডাঙ্গায় এখন পর্যন্ত আক্রান্ত হয়েছেন সদর উপজেলায় ১৪৫ জন, আলমডাঙ্গা উপজেলায় ৮৬ জন, দামুড়হুদা উপজেলায় ৯৩ জন ও জীবননগর উপজেলায় ৪০ জনসহ মোট ৩৬৪ জন। এ পর্যন্ত সুস্থ হয়েছেন সদর উপজেলায় ৭২ জন, আলমডাঙ্গা উপজেলায় ৫৬ জন, দামুড়হুদা উপজেলায় ৬৫ জন ও জীবননগর উপজেলায় ১৯ জনসহ মোট ২১২ জন।
চুয়াডাঙ্গা স্বাস্থ্য বিভাগের সর্বশেষ তথ্য অনুযায়ী জেলায় এখন পর্যন্ত মোট নমুনা পরীক্ষা ২৫০৩টি। করোনা শনাক্ত হয়েছে ৩৬৪ জনের, করোনা রিপোর্ট নেগেটিভ এসেছে ২১৩৯ জনের। সুস্থ ২১২ জন ও মৃত্যু ৪ জন।