চুয়াডাঙ্গায় বিদ্যুৎস্পৃষ্টে একই পরিবরের দগ্ধ ৪

218

নিজস্ব প্রতিবেদক:
চুয়াডাঙ্গার ছয়ঘরিয়ায় বিদ্যুৎস্পৃষ্টে দুই শিশুসহ একই পরিবরের চারজন দগ্ধ হয়েছেন। গতকাল বৃহস্পতিবার বেলা দেড়টার দিকে চুয়াডাঙ্গা সদর উপজেলার শঙ্করচন্দ্র ইউনিয়নের ছয়ঘরিয়া গ্রামে এ ঘটনা ঘটে। এ সময় পরিবারের সদস্যরা স্থানীয় ব্যক্তিদের সহায়তায় তাঁদের উদ্ধার করে চুয়াডাঙ্গা সদর হাসপাতালে নিয়ে আসেন। আহত ব্যক্তিরা হলেন চুয়াডাঙ্গা সদর উপজেলার শঙ্করচন্দ্র ইউনিয়নের ছয়ঘরিয়া গ্রামের উজ্জ্বল হোসেনের স্ত্রী সাথী খাতুন (৩০), ছেলে বদরুজ্জামান বনি (১৪), মেয়ে খাদিজা খাতুন (৮) ও ফুফু সহিরন বেগম (৫০)।
পারিবারিক সূত্রে জানা যায়, গতকাল দুপুরে নিজ বাড়ির দুই তলার ছাদের ওপর ধান শুকাচ্ছিলেন সাথী খাতুন ও সহিরন বেগম। এ সময় ছাদের ওপর খেলা করছিল বদরুজ্জামান বনি ও তার ছোট বোন খাদিজা খাতুন। ছাদের পাশ ঘেষে রয়েছে উচ্চক্ষমতাসম্পন্ন বৈদ্যুতিক তার। খেলার একপর্যায়ে অসর্তকতাবসত খাদিজা বৈদ্যুতিক তারের কাছে চলে গেলে সে বিদ্যুতস্পৃষ্ট হয়। তাকে বাঁচাতে ছুটে যেয়ে হাত ধরে টানলে মা সাথী খাতুনও বিদ্যুতস্পৃষ্টে গুরুতর দগ্ধ হন। তাঁদেরকে বাঁচাতে গেলে একে একে ছেলে বদরুজ্জামান বনি ও ফুফু সহিরন বেগমও বিদ্যুৎস্পৃষ্ট হন। বিদ্যুতস্পৃষ্টে শিশু খাদিজা খাতুনের হাতের একটি আঙুল গুরুতর জখম, দুই পা ও শরীরের বিভিন্ন স্থানে গুরুতর দগ্ধ হন। একই সঙ্গে শরীরের বিভিন্ন স্থানে দগ্ধ হন সাথী খাতুন, ছেলে বদরুজ্জামান বনি ও ফুফু সহিরন বেগম। এ সময় চিৎকারে পরিবারের সদস্যরাসহ স্থানীয় ব্যক্তিরা ছুটে এসে তাঁদেরকে উদ্ধার করে চুয়াডাঙ্গা সদর হাসপাতালে নিয়ে আসেন।
হাসপাতালের জরুরি বিভাগের কর্তব্যরত চিকিৎসক তাঁদের তাৎক্ষণিক চিকিৎসা দিয়ে হাসপাতালের মহিলা সার্জারি ওয়ার্ডে ভর্তি করেন এবং শিশু বনিকে হাসপাতলের পুরুষ সার্জারি ওয়ার্ডে ভর্তি করেন। শেষ খবর পাওয়া পর্যন্ত বিদ্যুৎস্পৃষ্টে দগ্ধ প্রত্যেকেই হাসপাতালে চিকিৎসাধীন অবস্থায় ছিলেন।