চুয়াডাঙ্গায় ফিরে শ্রদ্ধা ও ভালোবাসায় সিক্ত : বদরগঞ্জে পথসভায় হুইপ ছেলুন জোয়ার্দ্দার :জীবনের শেষ দিন পর্যন্ত মানুষের পাশে থেকে সেবা করতে চাই: জেলা প্রশাসক নবাগত পুলিশ সুপারসহ বিভিন্ন শ্রেণি পেশার মানুষের সৌজন্য স্বাক্ষাত

216

নিজস্ব প্রতিবেদক: জাতীয় সংসদের হুইপ সোলায়মান হক জোয়ার্দ্দার ছেলুন এমপি চুয়াডাঙ্গায় ফিরেছেন। দীর্ঘ তিনমাস পর নির্বাচনী এলাকায় ফিরলেন তিনি। গতকাল শুক্রবার দুপুরে চুয়াডাঙ্গা শহরের আরামপাড়াস্থ নিজ বাসভবনে পৌঁছান জাতীয় সংসদের হুইপ ও জেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি সোলায়মান হক জোয়ার্দ্দার ছেলুন এমপি। এর আগে সকাল সাড়ে ১০টায় জেলার প্রবেশদ্বার দশমাইল বদরগঞ্জ বাজারে পথসভায় অংশ নিয়ে বক্তব্য রাখেন তিনি। পরে জেলা ও উপজেলা আওয়ামী লীগ, ছাত্রলীগ, যুবলীগসহ বিভিন্ন অংগসংগঠনের নেতৃবৃন্দের মোটরসাইকেল শোভাযাত্রার সাথে চুয়াডাঙ্গা শহরের বাসভবনে পৌছান তিনি।  বাসভবনে পৌছানোর পর বিভিন্ন রাজনৈতিক নেতৃবৃন্দের সাথে আলোচনা ও মতবিনিময় করেন হুইপ ছেলুন জোয়ার্দ্দার। বিকেল সাড়ে ৫টার দিকে হুইপ’র সাথে সৌজন্য স্বাক্ষাত করেন চুয়াডাঙ্গা জেলা প্রশাসক সায়মা ইউনুস। এর আগে দুপুর সাড়ে ১২টার দিকে তাঁর বাসভবনে সৌজন্য স্বাক্ষাত করেন চুয়াডাঙ্গা পুলিশ সুপার মো. নিজাম উদ্দীন, অতিরিক্ত পুলিশ সুপার (সদর সার্কেল) তরিকুল ইসলাম, গোয়েন্দা পুলিশের ওসি এএইচএম কামরুজ্জামান খান, ডিআইও-১ মো. সোলায়মান হোসেন। এসময় হুইপ ছেলুন জোয়ার্দ্দার দ্রুত আরোগ্য লাভ করে চুয়াডাঙ্গায় ফিরে আসায় আল্লাহ পাকের কাছে শুকরিয়া আদায় করেন তারা। চুয়াডাঙ্গা জেলা আওয়ামী লীগের সাংগঠনিক সম্পাদক মুন্সী আলমগীর হান্নান জানান, শারীরিক অসুস্থতার কারণে গত বছরের ২৯ ডিসে¤॥^র চুয়াডাঙ্গা-১ আসনের সংসদ সদস্য জাতীয় সংসদের হুইপ ছেলুন জোয়ার্দ্দার চুয়াডাঙ্গা থেকে ঢাকায় যান। এরপর উন্নত চিকিৎসার জন্য চলতি বছরের ১৩ ফেব্রুয়ারি ভারতের চেন্নাইয়ে যান। সেখানে গঙ্গা হাসপাতালে তাঁর স্পাইনাল কডের একটি অস্ত্রোপচার করা হয়। সুস্থ হওয়ার পর ১৯ ফেব্রুয়ারি ভারত থেকে ঢাকায় ফিরে আসেন। চিকিৎসকের পরামর্শ অনুযায়ী ঢাকায় দীর্ঘ বিশ্রাম শেষে গতকাল বাড়ি ফিরে আসেন।  হুইপ সোলায়মান হক জোয়ার্দ্দার ছেলুন এমপি ঢাকা থেকে বিমানযোগে যশোরে পৌঁছে সড়কপথে নিজ এলাকার উদ্যেশ্যে রওনা দেন। সকাল ১০টায় চুয়াডাঙ্গা জেলার প্রবেশদ্বার দশমাইল বাজার তথা বদরগঞ্জ বাজারে পৌঁছান। হুইপের আগমনে সেখানে এক পথসভার আয়োজন করা হয়। অনুষ্ঠিত পথসভায় বক্তব্য রাখেন বীর মুক্তিযোদ্ধা সোলায়মান হক জেয়ার্দ্দার ছেলুন এমপি। তিনি বলেন, আপনাদের সবার দোয়াই আমি আবার সুস্থ্য হয়ে আপনাদের মাঝে ফিরে এসেছি। আপনারা আমার জন্য দোয়া করবেন, আমি যেন বাকি জীবনটুকু আপনাদের সেবায় নিজেকে নিয়োজিত রাখতে পারি। এসময় চুয়াডাঙ্গা জেলা আওয়ামী লীগের সহসভাপতি সদর উপজেলা পরিষদ চেয়ারম্যান আসাদুল হক বিশ্বাস, সহ-সভাপতি খুস্তার জামিল, সহ-সভাপতি নাসির জোয়ার্দ্দার, আওরঙ্গজেব মোল্লা টিপু, মোশারফ হোসেন, অ্যাড. আব্দুর রশিদ মোল্লা, যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক রিয়াজুল ইসলাম জোয়ার্দ্দার, অর্থ বিষয়ক সম্পাদক আলী রেজা সজল, সাংগঠনিক সম্পাদক মুন্সী আলমগীর হান্নান, এ্যাড. শামসুজ্জোহা, মাসুদুর রহমান লিটু বিশ্বাস, যুব ও ক্রীড়া বিষয়ক সম্পাদক আরশাদ উদ্দিন জোয়ার্দ্দার চন্দন, প্রচার সম্পাদক ফেরদৌস ওয়ারা সুন্না, উপ-প্রচার সম্পাদক শওকত আলী বিশ্বাস, দপ্তর সম্পাদক এ্যাড. আবু তালেব বিশ্বাস। আওয়ামী লীগ নেতা মাহফুজুর রহমান মনজু ও নজরুল মল্লিকসহ বিভিন্ন ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান, জেলা পরিষদের সদস্যবৃন্দ ও বিভিন্ন অঙ্গসংগঠনের নেতাকর্মীরা উপস্থিত ছিলেন। পরে বদরগঞ্জ বাজার থেকে মোটরসাইকেল শোভাযাত্রা বের করেন আওয়ামী লীগ, যুবলীগ ও ছাত্রলীগ নেতাকর্মিরা। প্রায় ১ হাজার মোটরসাইকেল, পিকআপ ও মাইক্রোবাসসহ শোভাযাত্রার সাথে নিজ বাসভবনে পৌছান হুইপ ছেলুন জোয়ার্দ্দার। পরে চুয়াডাঙ্গা কবরী রোডস্থ জেলা আওয়ামী লীগ কার্যালয়ে নেতাকর্মিদের সাথে মতবিনিময় ও আলোচনা সভা অনুষ্ঠিত হয়। শোভাযাত্রা ও মতবিনিময় সভায় অংশ নেন জেলা ছাত্রলীগের সাবেক সভাপতি জেলা যুবলীগ নেতা আব্দুল কাদের, সাবেক জিএস রাশিদুজ্জামান বাকী, সিরাজুল ইসলাম আসমান, যুবলীগ নেতা মিরাজুল ইসলাম কাবা, জেলা ছাত্রলীগের সাবেক সভাপতি রেজাউল করিম, সাবেক সিনিয়র সহ-সভাপতি রুবাইত বিন আজাদ সুস্তির, সাবেক সাধারণ সম্পাদক মোহাইমেন হাসান জোয়ার্দ্দার অনিক, সাবেক প্রচার সম্পাদক আব্দুর রহমান, ফিরোজ জোয়ার্দ্দার, সাবেক সদস্য খালিদ মাহামুদ, চঞ্চল, রানা, সৈকতসহ বিভিন্ন পর্যায়ের নেতাকর্মিরা। এছাড়া আরো উপস্থিত ছিলেন কুতুবপুর ইউনিয়নের চেয়ারম্যান হাসানুজ্জামান মানিক, জুড়ানপুর ইউনিয়নের চেয়ারম্যান সোহরাব হোসেন, আলোকদিয়া ইউনিয়নের চেয়ারম্যান ইসলাম উদ্দীন, পদ্মবিলা ইউনিয়নের চেয়ারম্যান আবু তাহের বিশ্বাস, শংকরচন্দ্র ইউনিয়নের চেয়ারম্যান বীর মুক্তিযোদ্ধা আব্দুর রহমানসহ আলমডাঙ্গা উপজেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি ও আলমডাঙ্গা পৌর মেয়র হাসান কাদের গনু, আলমডাঙ্গা ছাত্রলীগের সাধারণ সম্পাদক আশরাফুল ইসলাম স্বপন প্রমূখ।