চুয়াডাঙ্গার পীতম্বরপুরে গরু চুরির চেষ্টা : গৃহকর্তার চিৎকারে ছুটে এলো গ্রামবাসী গরুচোর সন্দেহে গণপিটুনিতে মেহেরপুরের ইমরান নিহত

215

15722443_1776651462584282_1583409372_n নিজস্ব প্রতিবেদক:চুয়াডাঙ্গার পীতম্বরপুরে গরুচোর সন্দেহে এলাকাবাসীর গণপিটুনিতে একজন নিহত হয়েছেন। শুক্রবার দিবাগত রাত ৩টার দিকে গরুচোর সন্দেহে ইমরান হোসেনকে ধরে গণপিটুনি দেয় এলাকাবাসী। খবর পেয়ে ভোর ৪টার দিকে ঘটনাস্থল থেকে আহত ইমরানকে হাসপাতালে নেয় সদর থানা পুলিশ। গতকাল শনিবার দুপুরে চিকিৎসাধীন অবস্থায় তার মৃত্যু হয়। পুলিশ লাশের সুরতহাল করে ময়নাতদন্তের জন্য গতরাতে চুয়াডাঙ্গা সদর হাসপাতালের হিমঘরে রাখা হয়েছে। 15722436_1776651499250945_2068325071_nআজ রোববার ইমরানের লাশের ময়নাতদন্ত শেষে পরিবারের কাছে হস্তান্তর করা হবে। নিহত ইমরান হোসেন (৪২) সদর উপজেলার বারাদী হাসানাবাদ কলোনীর মৃত আশরাফ আলীর ছেলে। সে ডাকাতিসহ বিভিন্ন অপরাধমূলক কর্মকা-ে জড়িত ছিলো বলেও স্থানীয় সূত্রে জানা গেছে।
স্থানীয়রা জানায়, শুক্রবার দিবাগত রাত ৩টার দিকে ৫/৭ জনের একটি দল চুয়াডাঙ্গা সদর উপজেলার পীতম্বপুর গ্রামের আব্দুল খালেকের বাড়িতে ঢুকে গরু চুরির চেষ্টা করে। টের পেয়ে বাড়ির লোকজন চিৎকার শুরু করলে গ্রামবাসী ছুটে আসে। এসময় অন্যরা পালিয়ে গেলেও গরুচোর ইমরানকে আটক করে এলাকাবাসী। তাকে গণপিটুনি দিয়ে গুরুতর আহত করে স্থানীয়রা। খবর পেয়ে ভোর ৪টার দিকে চুয়াডাঙ্গা সদর থানা পুলিশ ঘটনাস্থল থেকে আহতাবস্থায় উদ্ধার করে সদর হাসপাতালে ভর্তি করে। চিকিৎসাধীন অবস্থায় গতকাল শনিবার দুপুর ২টার দিকে ইমরান হোসেনের মৃত্যু হয়। ইমরান হোসেনের মৃত্যুর পর তার লাশের সুরতহাল প্রণয়ন করে পুলিশ। ময়নাতদন্তের জন্য শনিবার তার লাশ চুয়াডাঙ্গা সদর হাসপাতালে রাখা হয়েছে। আজ রোববার ইমরানের লাশের ময়নাতদন্ত শেষে পরিবারের কাছে হস্তান্তর হবে।
এদিকে, নিহত ইমরান দীর্ঘদিন ধরে ডাকাতি করে আসছিলো। এছাড়া ডাকাতিসহ বিভিন্ন অপরাধমূলক কর্মকা-ে জড়িত ছিলো বলেও স্থানীয় সূত্রে জানা গেছে।
চুয়াডাঙ্গা সদর থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) তোজাম্মেল হক ঘটনার সত্যতা নিশ্চিত করেছেন।