চুয়াডাঙ্গার দোস্তে দুই ছিনতাইকারী আটক

69

প্রতিবেদক, হিজলগাড়ী:
চুয়াডাঙ্গা সদর উপজেলার দোস্ত আমতলা মোড়ের অদূরে বটতলা নামক স্থানে পুলিশ পরিচয়ে ছিনতাইয়ের ঘটনায় জড়িত দুই ছিনতাইকারীকে আটক করেছে পুলিশ। জানা গেছে, গত পরশু সোমবার বিকেল পাঁচটার দিকে চুয়াডাঙ্গা সদর উপজেলার তিতুদহ ইউনিয়নের বলদিয়া গ্রামের হানিফ আলীর ছেলে হামিদুল ইসলাম (২৭) দামুড়হুদা ডুগডুগি বাজার থেকে বস্তা সেলাইয়ের কাচ সেরে বাইসাইকেলযোগে বাড়িতে ফিরছিলেন। এ সময় তিনি দোস্ত আমতলা মোড়ের নিকটবর্তী এসে পৌঁছালে দুই ছিনতাইকারী নিজেদেরকে পুলিশ পরিচয় দিয়ে তাঁর গতিরোধ করে। এ সময় পুলিশ পরিচয়দানকারী দুই ছিনতাইকারী হামিদুলকে ভয় দেখিয়ে তাঁর পকেটে থাকা ৪ শ টাকা বের করে নেয়। একই সময় হামিদুলের পকেটে জোরপূর্বক গাঁজা টুকিয়ে চালান দেওয়ার ভয় দেখিয়ে আরও ৫ হাজার টাকা বাড়ি থেকে আনতে বলে। এ সময় জোরাজুরি করলে ছিনতাইকারীরা হামিদুলকে মারধর শুরু করে। সেখান থেকে কৌশলে দৌঁড়ে আমতলা মোড়ে চলে আসেন হামিদুল। এর কিছুক্ষণ পরই ওই দুই ছিনতাইকারী আমতলা মোড় কিছুদূর দিয়ে দর্শনার দিকে যাচ্ছিল। হামিদুল তাদের চিনে ফেলে স্থানীয়দের দেখিয়ে দেন। হামিদুলের দেখানো মতে স্থানীয় লোকজন দোস্ত গ্রামের ভুইয়াপাড়ার মাফির ছেলে নয়ন (২৪) ও সিরাজুল ওরফে সিরুর ছেলে সাইদুরকে (২৩) জিজ্ঞাসাবাদ করলে তারা ছিনতাইয়ের ঘটনা স্বীকার করে হামিদুলের কাছে থেকে নেওয়া ৪ শ টাকা ফেরত দেয়। খবর পেয়ে হিজলগাড়ী ক্যাম্প পুলিশের ইনচার্জ এসআই কিশোর ফোর্স নিয়ে ঘটনাস্থলে গিয়ে নয়নকে আটক করতে পারলেও কৌশলে পালিয়ে যায় সাইদুর। গতকাল মঙ্গলবার দুপুর সাড়ে ১২টার দিকে পালিয়ে যাওয়া ছিনতাইকারী সাইদুরকে দর্শনা থেকে আটক করে হিজলগাড়ী ক্যাম্প পুলিশ। এ বিষয়ে হিজলগাড়ী ক্যাম্প ইনচার্জ এসআই কিশোর বলেন, আটকৃতদের দর্শনা থানায় সোর্পদ করা হয়েছে।