চাকুলিয়া সীমান্ত থেকে অবৈধ অনুপ্রবেশের দায়ে দুইজন আটক : ভারতীয় একাধিক আইডি কার্ডসহ বিভিন্ন মালামাল উদ্ধার : আটককৃতদের দাবি তারা বাংলাদেশী

339

নিজস্ব প্রতিবেদক: চুয়াডাঙ্গার চাকুলিয়া সীমান্ত এলাকা থেকে সন্দেহভাজন দুইজন অনুপ্রবেশকারীকে আটক করেছে বিজিবি। গতকাল শনিবার বিকেল ৫টার দিকে দামুড়হুদা উপজেলার চাকুলিয়া গ্রামের পশ্চিমপাড়া থেকে তাদের আটক করা হয়। চাকুলিয়া গ্রামের ৮৭ ন¤॥^র মেন পিলার থেকে ২০ গজ বাংলাদেশের অভ্যন্তরে পশ্চিমপাড়া থেকে তাদের আটক করে ঠাকুরপুর বিওপি টহল দল। এসময় তাদের কাছ থেকে বেশকয়েকটি নিজ নামের ভারতীয় পরিচয়পত্র, রুপী, রেশন কার্ড, পেশার কার্ড, এটিএম কার্ড, ইনকাম ট্যাক্স কার্ড, বাংলাদেশ ও ভারতের সিমকার্ড, ব্যাংক অ্যাকাউন্টের চেক বইসহ বিভিন্ন ভারতীয় মালামাল উদ্ধার করে বিজিবি। তবে তারা দামুড়হুদার কুড়ুলগাছি এলাকার বাসিন্দা বলে দাবি করেছেন আটককৃত আলমগীর ও মোত্তালিব হোসেন। অবৈধভাবে সীমান্ত পারাপারের দায়ে তাদের দামুড়হুদা থানায় সোপর্দ করার বিষয়ে প্রক্রিয়া চলছে বলে চুয়াডাঙ্গা-৬ বিজিবির অধিনায়ক লে. কর্নেল রাশিদুল আলম স্বাক্ষরিত এক প্রেস বিজ্ঞপ্তিতে জানানো হয়েছে।
জানা যায়, অবৈধ অনুপ্রবেশের দায়ে দুইজনকে আটক করেছে চুয়াডাঙ্গা-৬ বিজিবির অধিনস্থ দামুড়হুদা উপজেলার ঠকুরপুর বিওপি’র টহল দল। আটককৃতরা হলো, নূহ নবীর ছেলে আলমগীর হোসেন (৩০) ও শহিদুল ইসলামের ছেলে মোত্তালিব হোসেন (২৪)। তারা দুজনেই বাংলাদেশী নাগরিক দাবি করে বলেছে, তারা দামুড়হুদা উপজেলার কুড়ুলগাছি ইউনিয়নের বাসিন্দা। তবে তাদের কাছ থেকে উদ্ধার হওয়া মালামাল বলছে অন্য কথা। পরিচয়পত্র, রেশন কার্ড, ব্যাংক অ্যাকাউন্টের চেক বইসহ উদ্ধারকৃত মালামালের সবই ভারতীয়।
আটককৃত আলমগীর হোসেনের কাছ থেকে ভারতীয় রুপি ৪,৪১৮ টাকা, নিজ নামে ভারতীয় পরিচয়পত্র, ভোটার আইডি ২টি, রেশন আইডি ১টি, পেশার আইডি ১টি, ভারতীয় এটিএম কার্ড ১টি, ভারতীয় ইনকাম ট্যাক্স কার্ড ১টি, ভারতীয় বিভিন্ন দোকানের কার্ড ৫টি, ০৫-৭-১৭ তারিখের ভারতীয় ট্রেনের টিকেট (কৃষ্ণনগর হতে শিয়ালদহ) ১টি, ভারতীয় অ্যাকাউন্ট চেক বই ১পাতা, ভারতীয় মোবাইল ফোন (ইনটেক্স) ১টি, মানি ট্রান্সফার (৮০০০ টাকা) রশিদ ১টি, ভারতীয় সিম কার্ড ২টি, বাংলাদেশী সিম কার্ড ১টি, ভারতীয় সেনেগ্রা ট্যাবলেট ১২টি, ভারতীয় মোবাইল মেরামত রশিদ ১টি, মানি ব্যাগ ১টি, ছাতা ১টি, ডাইজেল সিরাপ ১টি, এনজোমেজিক সিরাপ ১টি এবং এডলের‌্যাব ডিএসআর ট্যাবলেট ১পাতা (১০ পিস) উদ্ধার করে বিজিবি।
মোত্তালিব হোসেনের কাছ থেকে ভারতীয় রুপি ৮৩৫টাকা, নিজ নামে ভারতীয় পরিচয়, ভোটার আইডি ২টি, প্যান কার্ড ১টি, বাংলাদেশী টাকা ১১৭২টাকা, মালয়েশিয়ান টাকা (০৫ টাকার নোট) ১টি, বাংলাদেশী মোবাইল ফোন (কারবোন) ১টি, ভারতীয় সিম কার্ড ৪টি, বাংলাদেশী সিম কার্ড ১টি, মেমোরী কার্ড (২ জিবি ও ৪ জিবি) ২টি, মানি ব্যাগ ১টি এবং হাত ঘড়ি ১টি উদ্ধার করা হয়। আটককৃতদের অবৈধভাবে সীমান্ত অতিক্রমের দায়ে দামুড়হুদা থানায় সোপর্দ করার বিষয়টি প্রক্রিয়াধীন রয়েছে বলে প্রেস বিজ্ঞপ্তিতে জানানো হয়েছে।
এদিকে, গত শুক্রবার রাত ৮টার দিকে দামুড়হুদার সুলতানপুর গ্রামের সুলতানপুর মাঠ বাশঁবাগান নামক স্থান থেকে ৭৮ হাজার পিস প্রাকটিন ট্যাবলেট উদ্ধার করে বিজিবি। যার আনুমানিক মূল্য ১ লাখা ৫৬ হাজার টাকা। অপরদিকে, শুক্রবার রাত আনুমানিক সাড়ে ১১টার দিকে জীবননগরের উথলী মাঠ নামক স্থান থেকে ৪৮ বোতল ফেন্সিডিল উদ্ধার করে বিজিবি। যার আনুমানিক মূল্য ১৯ হাজার ২০০ টাকা। পৃথক অভিযানে উদ্ধারকৃত ৭৮ হাজার পিস প্রাকটিন ট্যাবলেট এবং ৪৮ বোতল ফেন্সিডিলের সর্বমোট মূল্য ১ লাখ ৭৫ হাজার ২০০ টাকা।