ঘরের দরজা ভাঙতেই দেখা গেল ৫০টি গরু মরে পড়ে আছে

19

বিষ্ময় ডেস্ক:
ভারতের ছত্তিশগড়ে অস্থায়ী একটি শিবিরের মধ্যে গাদাগাদি করে অনেক গরু রাখা হয়েছিল। এর জেরে ৫০টি গরুর মৃত্যু হওয়ায় প্রবল উত্তেজনা তৈরি হয়েছে। পরিস্থিতি এতটাই জটিল হয়ে পড়ে যে স্বয়ং মুখ্যমন্ত্রী দোষীদের শনাক্ত করে কড়া শাস্তি দেওয়া হবে বলে ঘোষণা করেছেন। মর্মান্তিক এই ঘটনাটি ঘটেছে বিলাসপুর জেলার তাখতপুর এলাকার মেধপার গ্রামে। স্থানীয় সূত্র বলছে, ওই গরুগুলোকে মেধাপার গ্রাম পঞ্চায়েতের একটি ছোট্ট ঘরের মধ্যে ঢুকিয়ে রাখা হয়েছিল। শনিবার সকালে প্রচণ্ড দুর্গন্ধ বেরোতে শুরু করলে এলাকার মানুষ খোঁজখবর শুরু করে। পরে পঞ্চায়েতের ওই ঘরের বন্ধ দরজা ভাঙতেই বেরিয়ে আসে আসল সত্য। দেখা যায়, সেখানে ৫০টি গরু মরে পড়ে রয়েছে। খবরটি জানাজানির পর ঘটনাস্থলে আসেন প্রশাসনের লোকজন। তারপর গরুগুলোর মৃতদেহ ট্রাক্টরে করে সরিয়ে নিয়ে যাওয়া হয়।
এ ঘটনার ভিডিও ভাইরাল হতেই রাজ্যজুড়ে উত্তেজনা তৈরি হয়েছে। পরিস্থিতি সামাল দেওয়ার চেষ্টা করেন ছত্তিশগড়ের মুখ্যমন্ত্রী ভূপেশ বাঘেল। এ প্রসঙ্গে তিনি বলেন, ‘ঘটনাটি খুবই দুর্ভাগ্যজনক। এই ঘটনার জন্য যারা দায়ী তাদের শনাক্ত করে কড়া শাস্তি দেওয়ার নির্দেশ দিয়েছি বিলাসপুরের কালেক্টরকে। এর সঙ্গে জড়িত কাউকে ছাড়া হবে না।’