গড়াইটুপিতে ভ্রাম্যমাণ আদালতে চার যুবকের জরিমানা

32

প্রতিবেদক, তিতুদহ:
চুয়াডাঙ্গা সদরের গড়াইটুপিতে অনুমতি ছাড়া মাইকে প্রচার করে অনলাইন থেকে এনআইডি কার্ডের ফটোকপি বিক্রির অভিযোগে ৪ যুবককে আটক করার ঘটনা ঘটেছে। আটককৃতরা হলেন আন্দুলবাড়িয়া ইউনিয়ন আন্দুলবাড়িয়া গ্রামে হারদাপাড়ার জহির উদ্দীনের ছেলে নাহিদ হাসান, খাঁ-পাড়ার শেখ এলেমের ছেলে ছান্নান, ফজলুরের ছেলে মামুন ও ফারুকের ছেলে শাওন।
জানা গেছে, গত কয়েকদিন যাবত আন্দুলবাড়িয়াসহ তিতুদহে কয়েকটি গ্রামে মাইকিংয়ের মাধ্যমে ন্যাশনাল আইডি কার্ডের কপি প্রতি পিস ৬০ টাকা হারে বিক্রি করছিল। গতকাল বৃহস্পতিবার সকাল ১০টার সময় গড়াইটুপি প্রায়মারি স্কুল কক্ষে একই ভাবে কার্ডের কপি বিক্রি করছিল ঐ চার যুবক। বিষয়টি তিতুদহ ইউনিয়ন চেয়ারম্যান আকতার হোসেনকে জানালে তিনি দ্রুত নির্বাহী অফিসার (ইউএনও) সাদিকুর রহমানকে অবগত করলে তিনি তাদেরকে আটক করার জন্য তিতুদহ পুলিশ ফাঁড়ির ইনচার্জকে নির্দেশ দেন।
এবিষয়ে তিতুদহ ইউনিয়ন চেয়ারম্যান আকতার বলেন, ‘অনুমতি ছাড়া মাইকিং করে অনলাইন থেকে এনআইডি কার্ড বিক্রি করায় ইউনিয়ন পরিষদের গ্রাম পুলিশ দ্বারা ৪ যুবককে আটক করে পুলিশে সোপর্দ করা হয়। পরে তাদেরকে চুয়াডাঙ্গা সদর উপজেলা পরিষদে নিয়ে যায় পুলিশ।’
এবিষয়ে চুয়াডাঙ্গা সদর নির্বাহী কর্মকর্তা (ইউএনও) সাদিকুর রহমান জানান, ‘বেআইনিভাবে মাইকে ঘোষণার মাধ্যমে এনআইডি কার্ড বিক্রির অভিযোগে ৪ জনকে আটক করা হয় এবং তাদের কাছ থেকে ৩টি ল্যাপটপ একটি প্রিন্টার, একটি লেমিনেটিং মেশিন জব্দ করা হয়। পরে তাদের ভ্রাম্যমাণ আদালতে প্রত্যোককে ১হাজার করে চারজনকে ৪ হাজার টাকা জরিমানা করে শর্তসাপেক্ষে জব্দকৃত মালামাল ফেরতসহ ছেড়ে দেয়।