কৃষিঋণের ২ কোটি টাকা আত্মসাৎ!

56

কালীগঞ্জে মৃতের নামে ঋণ, ভুয়া কাগজপত্র
সমীকরণ প্রতিবেদন:
ভুয়া কাগজপত্র তৈরি করে মৃত ব্যক্তির নামে ঋণ নিয়ে কৃষিঋণের প্রায় ২ কোটি টাকা আত্মসাতের অভিযোগ উঠেছে। এছাড়া আগের টাকা এখনও শোধ করতে পারেননি-এমন ঋণগ্রহীতাকেও ব্যাংক থেকে ফোন করে জানানো হয়েছে নতুন ঋণের কথা। অথচ তিনি নতুন কোনো ঋণ নেননি। এ ঘটনা ঘটেছে ঝিনাইদহের কালীগঞ্জ অগ্রণী ব্যাংক শাখায়। এ ঘটনায় ৩ সদস্যের একটি অডিট টিম ঋণের অনিয়ম খুঁজতে কাজ করছে। গ্রাহকদের অভিযোগ, মাঠ সহকারী আজির আলী ও ক্রেডিট অফিসার আবদুস সালাম ব্যাংক ম্যানেজার শৈলেন কুমার বিশ্বাসকে দিয়ে স্বাক্ষর করিয়ে এ ঋণের টাকা তুলে নিয়েছেন। তবে ব্যাংকটির নাম প্রকাশে অনিচ্ছুক এক কর্মকর্তা জানিয়েছেন, ম্যানেজারসহ ওই তিনজন প্রায় ২ কোটি টাকা আত্মসাৎ করেছেন। আজির আলী ভুয়া গ্রাহকদের ঋণের সুপারিশকারী।
এদিকে এ প্রতিবেদককে ম্যানেজ করতে লোক মারফত সোনালী ব্যাংক, কালীগঞ্জ শাখার একটি ১৫ হাজার টাকার চেক পাঠিয়ে দেন মাঠ সহকারী আজির আলী। অনুসন্ধানে জানা গেছে, ২০১৭ সাল থেকে গ্রাহকদের কাগজপত্র জাল করে ৪% সুদে কৃষিঋণের টাকা তারা আত্মসাৎ করে আসছেন। গ্রাহকরা জানেনও না তাদের নামে ঋণ দেয়া হয়েছে। এসব জানাজানি হলে ১৩ সেপ্টেম্বর আজির আলীকে স্ট্যান্ড রিলিজ করে ঝিনাইদহ সদর হামদহ বাসস্ট্যান্ড শাখায় ও শৈলেন কুমারকে ওএসডি করে চুয়াডাঙ্গা আঞ্চলিক অফিসে বদলি করা হয়।
অগ্রণী ব্যাংক কালীগঞ্জ শাখার বর্তমান ম্যানেজার নাজমুস সাদাত জানান, এ শাখায় যোগদানের পর তিনি কৃষিঋণ দেয়ার ব্যাপারে অসঙ্গতি খুঁজে পান। মৃত ব্যক্তিদের নামে ঋণ নবায়ন করা হয়েছে। প্রতিদিনই নতুন নতুন ভুয়া গ্রাহক ও টাকার সংখ্যা বাড়ছে। তদন্ত শেষ না হওয়া পর্যন্ত গ্রাহক ও টাকার পরিমাণ বলা যাচ্ছে না। অগ্রণী ব্যাংকের ঝিনাইদহ আঞ্চলিক কার্যালয়ের ডিজিএম (উপব্যবস্থাপক) দীন মোহাম্মদ ঘটনার সত্যতা নিশ্চিত করেছেন। অভিযোগের বিষয়ে মাঠ সহকারী আজির আলী বলেন, ব্যাংকের সব ঋণের বিষয়ে একজন ম্যানেজার সবকিছু জানেন। তার স্বাক্ষর ছাড়া কোনো ঋণ পাস হয় না। আমি কোনো টাকা আত্মসাৎ করিনি।
ক্রেডিট অফিসার আবদুস সালাম বলেন, কিছু অসঙ্গতি আছে। তদন্ত শেষ না হওয়া পর্যন্ত কিছু বলা যাচ্ছে না। একটা ঋণের বিষয়ে ব্যাংকের ম্যানেজার সবকিছু জানেন। শৈলেন কুমার বিশ্বাস বলেন, মাঠ সহকারী আজির আলী ও ক্রেডিট অফিসার আবদুস সালাম এ ঘটনায় জড়িত। আমি কিছু জানি না, ওরা সবকিছু জানেন। (তথ্যসূত্র-যুগান্তর)