করোনাকালে যারা নিয়ম মানছেন না তাদের জন্য এই ছবি

50

বিস্ময় ডেস্ক:
করোনার এই সংকটকালে ভাইরাসকেন্দ্রীক নানা গুজব প্রতিনিয়ত ডালপালা ছড়াচ্ছে। ফলে মানুষ বিভ্রান্ত হচ্ছে। সম্প্রতি সামাজিক যোগাযোগমাধ্যমে একটি ছবি ভাইরাল হয়েছে। ছবিতে দেখা যায়, একজন সৈনিক একটি গাধাকে পিঠে বয়ে নিয়ে যাচ্ছে। ছবির ক্যাপশনে লেখা: ‘যুদ্ধক্ষেত্র থেকে সৈন্যরা গাধাটিকে পিঠে তুলে নিয়েছিল নিজেদের প্রয়োজনে। কারণ গাধাটি যদি ভুল পথে হেঁটে যেত, তবে রাস্তায় পেতে রাখা লুকানো মাইন বিস্ফোরণে সবাই বিপদে পড়ত। বিস্ফোরণে মৃত্যুর হাত থেকে নিজেদের রক্ষা করতে সৈনিকটি গাধাকে পিঠে তুলে নিয়েছে। তাই করোনা সংক্রমণের এই সময়ে যারা নিয়ম মানছেন না তাদের এই গাধার মতো নিয়ন্ত্রণ করুন। যাতে আপনি নিজেকে এবং আশেপাশের পরিবেশ সুরক্ষিত রাখতে পারেন।’ এই ছবির ক্যাপশনের প্রতীকী অর্থ সত্য হলেও মূল ঘটনা আদৌ এরকম নয়। নিজেদের মাইন থেকে বাঁচাতে নয়, স্রেফ মানবিক কারণে গাধাটিকে সৈনিকরা পিঠে তুলে নিয়েছিল। এবার আসুন সত্য ঘটনা জানি। ছবিতে দেখানো জায়গাটা হলো, আলজেরিয়ার উত্তর-পশ্চিমের খেনচেন অঞ্চল। ১৯৫৪-৬২ সাল পর্যন্ত আলজেরিয়ার স্বাধীনতা যুদ্ধ সংঘটিত হয়। ফ্রান্স ও আলজেরিয়ার স্বাধীনতাকামীদের মধ্যে এই যুদ্ধে খেনচেন অঞ্চলে মোতায়েন ছিল ফ্রেঞ্চ ফরেন লিজিয়নের হারকা সৈন্যদল। হারকা হচ্ছে আলজেরিয়ার স্থানীয় কিছু মানুষ, যারা ফ্রান্সের পক্ষে কাজ করত। অর্থাৎ তারা ছিল দেশদ্রোহী। ১৯৫৮ সালে এই স্থানে যুদ্ধের পর গাধাটিকে উদ্ধার করে একজন হারকা সৈন্য। গাধাটিকে উদ্ধার করে নাম দেয়া হয় বাম্বী। পরে এই ছবি বিশ্ব মিডিয়ায় প্রকাশিত হয়। প্রকাশের পর হইচই পড়ে যায় এবং বিভিন্ন আন্তর্জাতিক ম্যাগাজিনে ছবিটি প্রকাশিত হতে থাকে। পরবর্তী সময়ে ইংল্যান্ডভিত্তিক সবচেয়ে পুরাতন ও বড় প্রাণি অধিকার সংগঠন ‘জড়ুধষ ঝড়পরবঃু ভড়ৎ ঃযব চৎবাবহঃরড়হ ড়ভ ঈৎঁবষঃু ঃড় অহরসধষং’ ১৯৫৮ সালে অফিশিয়ালি ফরেন লিজিয়নকে মানবতার এমন উজ্জ্বল দৃষ্টান্ত স্থাপনের জন্য ধন্যবাদ জানায় এবং এমন মানবিক কাজের স্বীকৃতিস্বরূপ মেডেল দিয়েও সম্মান প্রদর্শন করে।