এসএমএসকে বিদায় দিতে আসছে আরসিএস

14

প্রযুক্তি ডেস্ক
এখনকার সেলফোন ব্যবহারকারীরা হয়তো এসএমএস নিয়ে খুব একটা গুরুত্ব দেন না বলে অনেকেই মনে করেন। কিন্তু বাস্তব বিষয়টা অন্য। কেউ কেউ এখনো মাসে হাজার হাজার এসএমএস সেন্ড ও রিসিভ করেন। যাইহোক, এসএমএস অনেক পুরাতন প্রযুক্তি, ১৯৯২ সালে এই প্রযুক্তি বের হওয়ার পরে এর উপরে মারাত্মকভাবে নির্ভরশীল হই আমরা। কিন্তু এর এক লিমিটেশন হচ্ছে মাত্র ১৬০ কারেক্টর টেক্সট আঁটানো যায় এক মেসেজে। আপনি এর চেয়েও বেশি টেক্সট আটাতে পারবেন বর্তমান অপারেটরগুলোতে কিন্তু সেক্ষেত্রে একাধিক ম্যাসেজের চার্জ প্রদান করতে হয়। পুরাতন এসএমএস সিস্টেমকে রিপ্লেস করার জন্য ২০০৭ সালে রিচ কমিউনিকেশন সার্ভিস (আরসিএস) -এর প্রস্তাবিত করা হয়। কিন্তু খুব বেশি সারা পাওয়া যায়নি আরসিএস নিয়ে। মানুষ হয়তো এসএমএস নিয়েই বেশি সুখী ! কিন্তু বর্তমান যুগে এসে এসএমএস যেন সত্যিই লিমিটেশন তৈরি করেছে। তাই এবার গুগল সকলের মেরুদ- হিসেবে কাজ করছে আর মেজর ইউএস মোবাইল অপারেটরগুলো এটিঅ্যান্ডটি, টি-মোবাইল, স্প্রিন্ট বলেছে তারা ২০২০ এর মধ্যে এসএমএসকে সম্পূর্ণ আরসিএস দ্বারা রিপ্লেস করে দেবে। শুধু ১৬০ কারেক্টর থেকেই মুক্তি নয়, পাশাপাশি আরসিএস অনেকটা ইনস্ট্যান্ট ম্যাসেজিং অ্যাপের মতো কাজ করবে। ঠিক যেমনটা ফেসবুক ম্যাসেঞ্জার, হোয়াটসআপ, টেলিগ্রাম, বা অ্যাপেলের আই-মেসেজ এ হয়ে থাকে। আপনি গ্রুপ চ্যাট করতে পারবেন, অডিও বা ভিডিও ম্যাসেজ সেন্ড করতে পারবেন, হাই কোয়ালিটি ইমেজ শেয়ার করতে পারবেন, তাও আবার মোবাইলের ম্যাসেজিং অ্যাপ থেকেই। নতুন এই মেসেজিং সিস্টেমে সবকিছুই মিষ্টি কেকের মতো হলেও একটি জিনিষ কিন্তু কেকের মধ্যে পোকার মতো ব্যাপার, আর সেটা হচ্ছে এতে অ্যান্ড-টু-অ্যান্ড এনক্রিপশন সিস্টেম সাপোর্ট করে না। আপনার যদি সিকিউরিটি ও প্রাইভেসি প্রধান ফোকাস হয়ে থাকে সেক্ষেত্রে হয়তো আরসিএস ইউজ না করে হোয়াটসঅ্যাপের মতো ইনস্ট্যান্ট মেসেজিং ক্লায়েন্টে চিপকে থাকতে হবে।এক মোবাইল অপারেটর থেকে আরেক মোবাইল অপারেটরেও এই সিস্টেম কাজ করবে। আপনি জাস্ট আপনার বন্ধুর মোবাইল নাম্বারেই ইনস্ট্যান্ট মেসেজ সেন্ড করতে পারবেন, চ্যাট করতে পারবেন। আলাদা কোন ক্লায়েন্ট বা অ্যাকাউন্ট দরকারি হবে না। সামনের বছরের অ্যান্ড্রয়েড ফোনগুলোতে এই ফিচার বিল্ডইনভাবে পাওয়া যাবে সাথে ইউএসের মোবাইল অপারেটরগুলো আরসিএস এর সাপোর্ট চালু করবে। বাংলাদেশের অপারেটর গুলো কবে এসএমএস থেকে মুভ করে আরসিএসে এ আসবে এই ব্যাপারে কোন আপডেট নেই। হাজার বছর খানেক অপেক্ষা করলে হয়তো দেখা যেতেও পারে।